লকডাউনে সলমনের অভিনব উদ্যোগ, দায়িত্ব নিলেন বলিউডের ২৫ হাজার কর্মীর

লকডাউনে সলমনের অভিনব উদ্যোগ, দায়িত্ব নিলেন বলিউডের ২৫ হাজার কর্মীর

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বেড়েই চলেছে দেশজুড়ে। আর এই সংক্রমণের হাত থেকে দেশকে বাঁচাতে ১৪ ই এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন ডাকা হয়েছে কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে। লকডাউন চলাকালীন কাজ হারিয়েছেন লক্ষ লক্ষ দিনমজুর, অন্যদিকে আবার বন্ধ ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি। করোনা যুদ্ধে কেন্দ্রের হাতে লক্ষ থেকে কোটি টাকার অনুদান তুলে দিয়ে পাশে দাঁড়াচ্ছেন সেলিব্রিটি থেকে ব্যবসায়ীরা। আর দেশের এই পরিস্থিতিতে বলিউড তারকা সলমন খান হাঁটলেন সম্পূর্ণ ভিন্ন পথে। নিলেন এক অভিনব উদ্যোগ, যে উদ্যোগে তিনি দায়িত্ব নিলেন মুম্বাই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি সাথে যুক্ত ২৫ হাজার কর্মীর।

যে সকল কর্মীদের দায়িত্ব তিনি নিয়েছেন তারা মুম্বই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির সাথে দৈনিক কর্মী হিসাবে যুক্ত। এই সকল কর্মীদের পরিবারের দায়িত্ব মাথায় তুলে নিলেন বলিউডের ভাইজান। এই সকল কর্মীদের মধ্যে অনেকে রয়েছেন জুনিয়র আর্টিস্ট, টেকনিশিয়ান আরও অন্যান্যরা। ওয়েস্টার্ন ইন্ডিয়া সিনে এমপ্লয়ীজ-এর সভাপতি বি.এন. তিওয়ারি একথা জানিয়েছেন পিটিআইকে।

পিটিআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি জানিয়েছেন, “সলমন খানের স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা বিইং হিউম্যানের মাধ্যমে ওই সকল কর্মীদের পরিবারের সমস্ত রকম সাহায্য পৌঁছে যাবে। ফোন মারফত গত তিনদিন আগে সলমন খানের সংস্থার তরফ থেকে একথা জানানো হয়েছে। আমাদের ইন্ডাস্ট্রিতে প্রায় ৫ লক্ষ কর্মী রয়েছেন। যাদের মধ্যে ২৫ হাজার কর্মীর আর্থিক সাহায্য খুবই প্রয়োজন। এই ২৫ হাজার কর্মীর দায়িত্ব নেওয়ার কথা জানানো হয়েছে সংস্থার তরফ থেকে। ঐ সকল কর্মীদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে সরাসরি টাকা চলে যাবে সংস্থার তরফ থেকে।”

আরও পড়ুন :- করোনা মোকাবিলায় কোন সেলিব্রিটি কত টাকা দিলেন, দেখুন তালিকা

তবে এমনটা প্রথম নয়, এর আগেও সালমান খান ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির অসহায়দের ত্রাতা হয়ে বারবার ধরা দিয়েছেন নিজেকে। সলমন খানের এই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা বহু দুঃস্থ ছাত্র-ছাত্রীদের পড়াশুনা ও ওষুধপাতির দায়িত্ব নিয়েছে। আর এবারও যখন করোনাভাইরাসের সংকটে যখন দেশ জর্জরিত তখন তিনি পিছিয়ে থাকতে পারলেন না। তিনি প্রমাণ করলেন বলিউডের ভাইজান হিসাবে।