হিরো আলমকে নিয়ে চূড়ান্ত খিল্লি, রুদ্রনীলের ভিডিও দেখে হেসে লুটোপুটি খাচ্ছে নেটিজেনরা

শ্রীলঙ্কান গায়িকা ইয়োহানি ডি সিলভার (Yohani De Silva) ‘মানিকে মাগে হিথে’র (Manike Mage Hithe) ছন্দে মেতেছে সারা দুনিয়া। হিন্দি, বাংলা, তামিল, ইংরেজিসহ সারা বিশ্বজুড়ে একাধিক ভাষাতে বানানো হয়েছে এই গান। গানের প্রতিটি ভার্শনই কম বেশী জনপ্রিয় হয়েছে, প্রশংসা কুড়িয়েছে নেটমাধ্যম থেকে। ব্যতিক্রম শুধু আলম ভার্শন। বাংলাদেশের নায়ক হিরো আলম যেভাবে গানটি গেয়েছেন তাকে দর্শক কার্যত তার প্রতি বেজায় ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছেন। তার মানসিক সুস্থতা নিয়েও প্রশ্ন তুলছেন।

চারিদিকে যখন আলমকে নিয়ে এত কটাক্ষ, এত সমালোচনা, মজা, মশকরা চলছে তখন বাদ গেলেন না টলিউড তারকা রুদ্রনীল ঘোষ (Rudranil Ghosh)। সম্প্রতি রুদ্রনীলের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে ধরা পড়েছে একটি ভিডিও। যে ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে হিরো আলম গান শিখছেন দিদিমণি ইয়োহানির কাছ থেকে! এমনই এক মজার ভিডিও বানিয়ে সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার করেছেন রুদ্রনীল। যা দেখে কার্যত হাসি থামাতে পারছেন না নেটিজেনরা।

আসলে ইয়োহানির গাওয়া ‘মানিকে মাগে হিথে’ এবং সেই গানের আলম ভার্শন গান দুটির সংমিশ্রণে বানানো হয়েছে এই মজার ভিডিও। সেখানে প্রথমে ইয়োহানির গাইছেন গানের একটি লাইন। সেই লাইনই গিয়ে শোনার চেষ্টা করছেন তার ‘ছাত্র’ আলম। গানের সুর, তাল, লয় সম্পর্কে ছাত্রের কোনও ভ্রুক্ষেপই নেই। বেসুরে গান গাইছেন হিরো আলম। তবুও ছাত্রকে গান শেখানোর প্রচেষ্টা ছাড়েননি দিদিমণি। তবে অপদার্থ ছাত্র যে কিছুতেই সুরে গান করতেই পারেনা। তাই হাল ছেড়ে দিয়ে হেসে কুটোপাটি হলেন খোদ দিদিমণি!

এরপরেই ছাত্রের মন ভেঙে গেল। দিদিমণি তাকে নিয়ে যে ‘খিল্লি’ করলেন তাতে কার্যত ছাত্রের ‘তেল গেল ফুরাইয়া বাতি গেল নিভিয়া’ দশা! তাইতো মনের দুঃখে নিজের মতো গান ধরলেন আলম। ‘মানিকে মাগে হিথে’ গেয়ে ‘খিল্লি’ হয়ে মনের দুঃখে ছাত্র গান ধরলেন, ‘তেল গেল ফুরাইয়া, বাতি যায় নিভিয়া, কি হবে আর কান্দিয়া’! অতঃপর গানের স্কুল বন্ধ।

এই ভিডিওর ক্যাপশনে রুদ্রনীল লিখেছেন, “মানিকে মাগে হিতে সঙ্গীত প্রশিক্ষণ কেন্দ্র”। রুদ্রনীলের রসবোধ দেখে নেটিজেনরা তো হেসে কুটোপাটি। এর আগে হিরো আলমের গান শুনে দর্শক তার উপর ভীষণ রেগে গিয়েছিলেন। ইয়োহানির গাওয়া সুন্দর মিষ্টি গানের সুরে মেতেছে নেট দুনিয়া। সেখানে হিরো আলম নিজের বেসুরো গলায় গানটি গেয়ে কার্যত গানের দফারফা করে দিয়েছেন বলেই দাবি করতে থাকেন নেটিজেনদের একাংশ। যদিও আলমকে নিয়ে খিল্লি এই প্রথম নয়, এর আগেও বহুবার হয়েছে। তবুও তাতে অবশ্য তার গানের স্পিরিট দমানো যায়নি।

এর আগেও হিন্দি, ইংরেজি, বাংলা, এমনকি চীনা ভাষাতেও গান গেয়ে ভাইরাল হয়েছিলেন হিরো আলম। তখন অবশ্য তাকে নিয়ে এতটা তোলপাড় হয়নি নেটদুনিয়া। কিন্তু সিংহলি ভাষায় গান গেয়েই তিনি নেটিজেনদের রোষের মুখে পড়ে গিয়েছেন। আলমের গান শুনে আবার মানসিকভাবেও অসুস্থ হয়ে পড়েছেন কেউ কেউ!