নেতাজি সমর্থকদের দাবি মেনে, অবশেষে নেতাজির ছবি সম্বলিত কয়েন আনছে কেন্দ্র!

বিগত ৭০ বছরের স্বাধীন ভারতের ইতিহাসে যদি কোন দেশপ্রেমিককে তার যোগ্য সম্মান থেকে বঞ্চিত করেছে তা হলেন আমাদের বীর বিপ্লবী তথা মহান দেশনায়ক নেতাজী সুভাষ চন্দ্র বসু। ১৯৪৭সালের ভারত স্বাধীনতা লাভ করার পর থেকে জওহরলাল নেহেরুর প্রধানমন্ত্রীত্বে দেশ যখন নতুন ইতিহাস লিখতে শুরু করেছে তখন থেকেই এক প্রকার এই বীর দেশপ্রেমিকের কৃতিত্বের কথা দেশবাসীর মন থেকে মুছে ফেলার চেষ্টা চলে আসছে এই দেশে কেন্দ্রীয় স্তর থেকেই। এ নিয়ে নানা ঐতিহাসিক থেকে শুরু করে রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব এবং নেতাজির আত্মীয়-স্বজনরা বিভিন্নভাবে তাদের ক্ষোভ প্রদর্শন করেছে। দেশকে স্বাধীন করার পেছনে মহাত্মা গান্ধী বা জহরলাল নেহেরু বা অন্যান্য নরমপন্থী কংগ্রেস নেতাদের যতটুকু ভূমিকা ছিল তার কোন অংশেই কম ভূমিকা ছিল না এই চরমপন্থায় বিশ্বাসী ভারত মাতার এই বীর সন্তানের।

তিনি বিশ্বাস করতেন প্রকৃত রক্তক্ষয়ী সংগ্রামের মাধ্যমে দেশকে স্বাধীন করা যাবে। আর এই লক্ষ্যে তিনি দেশত্যাগ করেছিলেন এবং পৌঁছে গিয়েছিলেন ব্রিটিশদের শত্রু ঠিকানায় । শত্রুর শত্রু বন্ধু হয়ে থাকে কূটনীতির এই  বিশেষ নীতিকে বিশ্বাস করে তিনি দেশকে স্বাধীন করার জন্য ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন। তার পরবর্তী ইতিহাস আমাদের প্রায় সকলেরই জানা। আজাদ হিন্দ সেনা নিয়ে সশস্ত্র সংগ্রামের মাধ্যমে তিনি ইংরেজদের বিরুদ্ধে ঘোষণা করেছিলেন প্রত্যক্ষ যুদ্ধ। একজন প্রকৃত দেশপ্রেমিকের মর্যাদা নিয়ে যেখানে মহাত্মা গান্ধী থেকে শুরু করে জহরলাল নেহেরুকে আজও বিশেষ সম্মানে ভূষিত হয় এবং তাদের দেওয়া হয় যোগ্য সম্মান সেখানে বারবার অবহেলিত হয়েছে নেতাজি।

আরও পড়ুন : জানুন গান্ধীজির বিতর্কিত যৌন জীবন

কিন্তু বর্তমান সরকার গত কয়েক দশকের সরকারের থেকে সম্পূর্ণ আলাদা তা তার বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর হৃতগৌরবকে সকলের সামনে তুলে ধরার জন্য গত ২১ অক্টোবর ত্রিবর্ণ রঞ্জিত জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেছেন লালকেল্লায় নেতাজী সুভাষ চন্দ্র বসু গঠিত আজাদ হিন্দ সরকারের ৭৫ বৎসর পূর্তি উপলক্ষে।

আরও পড়ুন : গান্ধীজির খাবারে বিষ মেশাতে অস্বীকার করা রাঁধুনি বটুক মিঞার গল্প

Loading...

আর এবার প্রথমবারের জন্য বীর নেতাজির পোর্ট ব্লেয়ারে ত্রিবর্ণ রঞ্জিত জাতীয় পতাকার উত্তোলন করার ইতিহাসকে স্মরণ করে এই বিশেষ ঘটনাকে সম্মান জানানোর উদ্দেশ্যে বর্তমান কেন্দ্রীয় সরকার আনতে চলেছে ৭৫ টাকা মূল্যের বিশেষ স্মারক কয়েন। এই উপলক্ষে ভারতীয় অর্থ মন্ত্রকের তরফ থেকে এক বিশেষ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন : পিঠে গুলি খেয়ে নেতাজিকে বাঁচিয়েছিলেন কর্নেল নিজ়ামুদ্দিন

 এই কয়েনের বিশেষত্ব

  • এই বিশেষ স্মারক কয়েনের ওজন হবে ৩৫ গ্রাম। যাতে থাকবে ৫০% রুপা এবং ৪০% শতাংশ তামা এবং ৫%করে নিকেল এবং জিংক।
  • কয়েনে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর ত্রিবর্ণ রঞ্জিত জাতীয় পতাকাকে স্যালুট করা ছবি দেওয়া থাকবে সেলুলার জেলের প্রেক্ষাপটে।
  • সুভাষচন্দ্র বসুর ছবির নিচে ৭৫ তম বর্ষ  উদযাপন কথাটি উল্লেখিত করা থাকবে।
  • দেবনাগরী এবং ইংরেজি হরফে কয়েনে লেখা থাকবে “ফাস্ট ফ্লাগ হৈষ্টিং ডে” ‘First Flag Hoisting Day’ যা বাংলায় অনুবাদ করলে দাঁড়ায়” প্রথম জাতীয় পতাকা উত্তোলন দিবস”।

আরও পড়ুন : নেতাজীর ধন সম্পত্তি কারা লুঠ করেছিলো? আজ সেই সম্পত্তি কোথায়?

এ প্রসঙ্গে একটু ইতিহাস জেনে রাখা ভালো, ১৯৪৩ সালের ৩০শে ডিসেম্বর নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু সর্বপ্রথম পোর্ট ব্লেয়ারের সেলুলার জেলে ত্রিবর্ণ রঞ্জিত জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন।

তাহলে কি পরবর্তী ক্ষেত্রে আসতে চলেছে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর ছবি সম্বলিত নোট? এর উত্তর আগামী সময়ই দেবে।

Loading...