টলিউডকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে ‘আনন্দমঠ’ ছিনিয়ে নিয়ে গেল কলিউড! আসছে নতুন দক্ষিণী ছবি

টলিউড পারল না, পারল না বলিউডও, বঙ্কিমের ‘আনন্দমঠ’ অবলম্বনে ছবি বানাচ্ছে কলিউড

RRR Writer to Pen Screen Adaptation of Bankim Chandra`s Anandamath

পরাধীন ভারতবর্ষে ১৭৭৩ সালে সংঘটিত সন্ন্যাসী বিদ্রোহের উপর ভিত্তি করে সাহিত্য সম্রাট বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় (Bankim Chandra Chattopadhyay) লিখেছিলেন তার ‘আনন্দমঠ’ (Anandamath) উপন্যাসটি। তার লেখনীর মাধ্যমেই প্রথম ‘বন্দে মাতরম’ এর সঙ্গে পরিচয় হয়েছিল ভারতবাসীর। ভারতীয়দের মনে দেশপ্রেমের বীজ বপন করে ইংরেজদের বিরুদ্ধে যুদ্ধের ডাক দিয়েছিল ‘বন্দে মাতরম’! তবে আশ্চর্যের বিষয় সাহিত্য সম্রাটের অমর সৃষ্টি নিয়ে ছবি বানানোর কথা টলিউডের (Tollywood) মাথাতেও আসল না।

তবে আনন্দমঠ উপন্যাস অবলম্বনে ছবি বানানোর এই সুযোগ হাতছাড়া করতে রাজি নয় সাউথ ইন্ডিয়ান ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি (South Indian Film Industry)। ইদানিং সারা ভারতবর্ষে এমনকি ভারতের বাইরেও দক্ষিণী সিনেমার রাজত্ব চলছে। এবার সারা ভারতবর্ষজুড়ে সিনেমার পর্দা তোলপাড় করতে আসছে ‘১৯৭০ এক সংগ্রাম’ (1970 Ek Sangram)। বঙ্কিমচন্দ্রের আনন্দমঠ উপন্যাস অবলম্বনে এই ছবি আগামী দিনে সারা পৃথিবীতে ফের একবার রেকর্ড করার জন্য তৈরি হচ্ছে।

গত ৮ই এপ্রিল বঙ্কিমচন্দ্রের ১২৮ তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আসন্ন ছবির খবর জানানো হয়। ইতিমধ্যেই এই ছবির জন্য চিত্রনাট্য লেখার কাজ শুরু করে দিয়েছেন কে ভি বিজয়েন্দ্র প্রসাদ। ‘বজরঙ্গি ভাইজান’, ‘বাহুবলী’ থেকে শুরু করে সদ্য মুক্তিপ্রাপ্ত ‘আর আর আর’ তার লেখা চিত্রনাট্য থেকেই বানানো হয়েছে। ‘বাহুবলী’, ‘আরআরআর’ পরিচালক এস এস রাজামৌলির বাবা বহু বছর আগে ‘আনন্দমঠ’ উপন্যাসটি পড়েছিলেন। এবার সেই উপন্যাস অবলম্বনে আসন্ন ছবির চিত্রনাট্য লেখার ভালো তার উপরেই পড়েছে।

যখন প্রথম তার কাছে এই উপন্যাসের উপর ছবি তৈরির প্রস্তাব আসে তখন তিনি বেশ অবাকই হয়েছিলেন। তার কথায়, ‘সত্যি বলছি, আমার মনে হচ্ছিল না যে বর্তমান প্রজন্ম এই বিখ্যাত উপন্যাসের বিষয়বস্তুর সাথে কোনোভাবে একাত্ম হতে পারে বলে। তবে যখন আমি রাম কমলের সাথে কথা বলি তখন সে নিজের দৃষ্টিভঙ্গি পেশ করা আমার কাছে। তাঁর দৃষ্টিভঙ্গি ছিল আমার থেকে একেবারেই আলাদা। যেটা অনেকটা বাণিজ্যিৎক আর মানুষের ভাবনার সাথে যুক্ত’।

RRR-Writer-to-Pen-Screen-Adaptation-of-Bankim-Chandra_s-Anandamath

স্বয়ং বঙ্কিমচন্দ্রের লেখনীতে আঁচড় কেটে নতুন ধরনের চিত্রনাট্য লেখার কাজ সত্যিই চিত্রনাট্যকারের কাছে অনেক বড় চ্যালেঞ্জ। সেই চ্যালেঞ্জ নিয়েছেন এস এস রাজামৌলির বাবা। ছবিতে ক্রিয়েটিভ প্রযোজক হিসাবে থাকছেন জি ষ্টুডিওর সুজয় কুট্টি ও লেখক তথা শর্ট ফিল্ম নির্মাতা রাম কমল মুখোপাধ‍্যায়। ছবির শুটিংয়ের জন্য পশ্চিমবঙ্গ, হায়দ্রাবাদ এবং লন্ডন ভেন্যু হিসেবে বেছে নেওয়া হয়েছে। তামিল, তেলেগু ছাড়াও হিন্দি ভাষাতে মুক্তি পাবে এই ছবি।