দরজায় দরজায় ঘুরেও মিলছে না কাজ, বলিউড ছেড়ে সাউথে পালালেন রিয়া চক্রবর্তী

বলিউডের জনপ্রিয়  অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকেই তার ঘনিষ্ঠ বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীর নাম সোশ্যাল মিডিয়া থেকে শুরু করে সংবাদমাধ্যমের শিরোনামে ঘুরে ফিরে আসছিল। সুশান্ত ভক্তদের দাবি ছিল রিয়ার হাত আছে সুশান্তের মৃত্যুর পেছনে। যদিও সে রকম কোনো প্রমাণ মেলেনি তদন্তে।  তবে মাদক কান্ডে যুক্ত থাকার জন্য জেল পর্যন্ত খাটতে হয়েছিল তাকে।

এরপর জামিনে ছাড়া পেয়ে কিছুদিন সমস্ত কিছুর থেকেই দূরে সরিয়ে নিয়েছিলেন নিজেকে, সোশ্যাল মিডিয়া থেকে শুরু করে সাধারন মানুষ সব কিছুকে এড়িয়ে নিজেকে এতটাই গুটিয়ে নিয়েছিলেন যে মনে হচ্ছিলো যেন নিভৃত বাসে চলে গিয়েছিলেন তিনি। তবে সম্প্রতি আবার স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসছেন তিনি।

স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার জন্য আবার কাজের জগতে ফিরবার জন্য কাজ খুঁজছিলেন তিনি। কাজ খুঁজতে হায়দ্রাবাদেও গিয়েছিলেন তিনি। এরপর মুম্বাইতে ফিরে তিনি নতুন বাড়ির খোঁজ করছিলেন সেই সময় পাপারাৎজিদের ক্যামেরার সামনে পড়ে যান রিয়া চক্রবর্তী ও তার ভাই সৌভিক। পাপারাৎজিরা তাকে প্রশ্ন করলেও সেই প্রশ্ন এড়িয়ে যান তারা উপরন্ত সৌভিক পাপারাৎজি কে ধমকে বলেন তাদের পিছু না করতে। এরপর আবারও শিরোনামে উঠে এসেছেন রিয়া চক্রবর্তী।

জানা যাচ্ছে যে বলিউডে কাজ খুঁজবার পরেও কাজ পাচ্ছিলেন না তিনি,তাই দক্ষিণী সিনেমা ইন্ডাস্ট্রির দিকে অবশেষে ঝুঁকেছেন রিয়া। শোনা যাচ্ছে এই বছরের প্রথম থেকেই বলিউডের প্রযোজকদের দরজায় দরজায় ঘুরছেন তিনি, কিন্তু তাতে কোনো ফল হচ্ছে না। আসলে সুশান্ত কাণ্ডে তার নাম জড়ানোর পর থেকেই সুশান্ত ভক্তরা তার প্রতি আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছেন কেউই তাই তাকে কাস্টিং করবার ঝুঁকি নিতে চাইছেন না‌। তাই দক্ষিণের সিনেমা ইন্ডাস্ট্রিতে তিনি চেষ্টা করছেন কাজ পাওয়ার।

দক্ষিণের সিনেমা ইন্ডাস্ট্রিতে নতুন মুখ নন রিয়া।  ‘তুনিগা তুনিগা’ নামের একটি তেলেগু ফিল্ম করেই বড় পর্দায় ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন তিনি। সেই ছবিতে সাউথের হিরো সুমন্ত রাজুর সাথে স্ক্রিন শেয়ার করেছিলেন তিনি। এমএস রাজুর পরিচালিত এই ছবিতে দেখানো হয়েছিল যে ছোটবেলার ঘৃণা কীভাবে আস্তে আস্তে ভালবাসায় পরিনত হয় যদিও এই ছবিটি বক্স-অফিসে সাফল্য পায়নি।

তেলেগু ইন্ডাস্ট্রি তাকে কাজ দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে শর্ত সাপেক্ষে। সেই শর্তটি হলো রিয়া বেশি পারিশ্রমিক দাবি করতে পারবেন না। বলিউডের তুলনায় দক্ষিণ ভারতের ইন্ডাস্ট্রি ছোট হ‌ওয়ার সেখানকার শিল্পীরা বলিউড তারকাদের থেকে কম পারিশ্রমিক পান। তাই রিয়ার কাছে শর্ত রাখা হয়েছে যে তিনি বেশি পারিশ্রমিক দাবি করতে পারবেন না। তাকে যা দেওয়া হবে তাই নিতে হবে।

উল্লেখ্য,তার শেষ বলিউড ছবিটি চেহরে’কে ঘিরেই জনগণের ক্ষোভ প্রকাশ্যে চলে এসেছিলো। অমিতাভ বচ্চন, ইমরান হাশমির মতো অভিনেতাদের সাথে এই ছবিতে কাজ করেছিলেন রিয়া। কিন্তু এই ছবিটিতে রিয়া চক্রবর্তী আছেন বলেই এই ছবিটি বয়কটের ডাক পর্যন্ত ওঠে। ছবির টিজার ও পোস্টারে কোথাও দেখা যায়নি রিয়া চক্রবর্তীকে।