অনুগামীর বিচারে বিশ্বের প্রথম ১০ ধর্ম 

সারা পৃথিবীতে অসংখ্য ধর্ম। বিভিন্ন মানুষ বিভিন্ন ধর্ম মেনে চলেন। সেটা তাঁদের সংস্কার। একেক দেশে একেক ধর্মের আধিপত্য। আবার কোনও নির্দিষ্ট ধর্মের মানুষ ছড়িয়ে আছেন বিভিন্ন দেশে। এখানে আমরা অনুগামীদের সংখ্যা বিচারে বেছে নিয়েছি ১০ ধর্ম। সেগুলোকেও সাজিয়েছি ক্রমিক অনুসারে।

Jewis Religion
Source

১০। ইহুদি ধর্ম

প্রাচীন একেশ্বরবাদী ধর্ম। ধর্মতাত্ত্বিকদের মতে, ইহুদি ধর্ম থেকেই ধারাবাহিকভাবে খ্রীষ্ট, ইসলামের মতো হিব্রাহিমীয় ধর্মগুলি তৈরি হয়েছে। এই ধর্মাবলম্বীদের ধর্মগ্রন্থ ‘ওল্ড টেস্টেমেন্ট’। এঁরা বলেন ‘তোরাহ’। মোজেসকে মানেন অবতার হিসাবে।

Source

৯। শিখ ধর্ম

এই ধর্মও একেশ্বরবাদী। খ্রিষ্টীয় পঞ্চদশ শতাব্দীতে পাঞ্জাব অঞ্চলে শিখ ধর্ম প্রবর্তিত হয়। ধর্মের মূল ভিত্তি গুরু নানক এবং উত্তরসূরি দশ শিখ গুরু। শিখ ধর্মকে দর্শন গুরুমত বা গুরুর উপদেশ নামেও পরিচিত।

আরও পড়ুন : হিন্দু বিয়েতে বিয়ের অনুষ্ঠানে পাত্রের মা থাকতে পারেন না কেন ?

Source

৮। জৈন ধর্ম

জীবের প্রতি অহিংসা এবং শান্তি এই ধর্মের মূল লক্ষ্য। জৈন ধর্মকে শ্রমণ ধর্ম বা নির্গ্রন্থদের ধর্মও বলা হয়। সর্বোচ্চ গুরুকে তীর্থঙ্কর বলা হয়।

৭। কনফুসীয় ধর্ম

চীনের নৈতিক এবং দার্শনিক বিশ্বাস। দার্শনিক কনফুসিয়াস এই ধর্মের প্রতিষ্ঠাতা। অনেক শিক্ষাবিদ অবশ্য এটাকে দর্শন হিসাবে মানেন। পূর্ব এশিয়ার দেশগুলিতে কনফুসীয় ধর্মকে রাষ্ট্রধর্ম হিসাবে স্বীকৃত। এই ধর্মের মূল কথা মানবতাবাদ।

আরও পড়ুন : হিন্দুদের প্রধান দেবতা শিব সম্পর্কে ২০ কথা

Bahai Religion
Source

৬। বাহাই ধর্ম

বাহাউল্লাহ কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত একেশ্বরবাদী একটি ধর্ম বা বিশ্বাস। উনবিংশ শতাব্দীতে তৎকালীন পারস্য অর্থাৎ এখনকার ইরানে এই ধর্মের উতপত্তি। বর্তমানে ২০০-এর বেশী দেশে বাহাই ধর্মের অনুগামীরা ছড়িয়ে আছেন।

আরও পড়ুন : ১২ হিন্দু পরম্পরার অবাক করা বৈজ্ঞানিক কারণ

Source

৫। বৌদ্ধ ধর্ম

গৌতম বুদ্ধ কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত ধর্ম বিশ্বাস এবং জীবন দর্শন হল বৌদ্ধ ধর্ম। ভারত-সহ এশিয়ার বিভিন্ন দেশে বৌদ্ধ ধর্ম ছড়িয়ে আছে। বর্তমানে সবচেয়ে বেশী বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বী বাস করেন চীনে। আক্ষরিক অর্থে ‘বুদ্ধ’ বলতে জ্ঞানবান বা জাগরিত ব্যক্তিকে বোঝায়।

আরও পড়ুন : হিন্দু পুরাণের সঙ্গে আধুনিক প্রযুক্তির মেলবন্ধন

Source

৪। কোরিয়ান সামানিজম

কোরিয়াবাসীর জন্যই এই ধর্ম। সামানিজম ধর্মাবলম্বীরা বিশ্বাস করেন ঈশ্বর এক। এই ধর্মের প্রধান ভিত্তি প্রার্থনা।

আরও পড়ুন : হিন্দু ধর্মে মেয়েদের নানান অলঙ্কার পরার পেছনে আশ্চর্যজনক বৈজ্ঞানিক কারণ

Hindu Religion Symbol
Source

৩। হিন্দু ধর্ম

ভারতীয় উপমহাদেশ-সহ এশিয়ার বেশ কয়েকটি দেশের বেশীরভাগ মানুষ সনাতন হিন্দু ধর্মের অনুগামী। এই ধর্মের কোনও একক প্রতিষ্ঠাতা নেই। প্রধান ধর্মগ্রন্থ ‘বেদ’। বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম ধর্ম হল হিন্দু ধর্ম।

আরও পড়ুন : হিন্দু ধর্মে দেহ পুড়িয়ে অন্তিম সংস্কার করা হয় কেন ?

islam Religion
Source

২। ইসলাম ধর্ম

একেশ্বরবাদী এবং আব্রাহামীয় ধর্ম। ইসলাম ধর্মের প্রতিষ্ঠাতা নবী মহম্মদ। তবে ইসলাম ধর্মাবলাম্বীরা মনে করেন এই ধর্মের পুনঃপ্রচার করেন। প্রধান ধর্মগ্রন্থ ‘কোরান’। ইসলাম ধর্ম বিশবাসীদের মুসলমান বলা হয়। এটি বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম ধর্ম।

আরও পড়ুন : ১০ হিন্দু বিশ্বাসের পেছনের যুক্তি

Source

১। খ্রীষ্ট ধর্ম

এটিও একেশ্বরবাদী ধর্ম। যীশুর জীবন এবং শিক্ষাই এই ধর্মের আধার। যীশু এই ধর্মের প্রতিষ্ঠাতা। প্রধান ধর্মগ্রন্থ ‘বাইবেল’। ২০০১ সালের গণনা অনুযায়ী সারা বিশ্বে ২.১ বিলিয়ন মানুষ খ্রীষ্টান। বর্তমানে খ্রীষ্ট ধর্ম বিশ্বের বৃহত্তম ধর্ম।

আমাদের প্রতিটি পোস্ট WhatsApp-এ পেতে ⇒ এখানে ক্লিক করুন 

সোশ্যাল মিডিয়ায় আমাদের সাথে যুক্ত হন : Facebook Instagram Twitter