বরাবরই অদ্ভুত রণবীর, তার পোশাক-আশাক দেখলে হাসতে হাসতে দম ছুটে যায়

শুধু নগ্নতা নয়, আজব পোশাক পরে রাস্তায় বেরিয়েও বারবার হাসির খোরাক হয়েছেন রণবীর

রণবীর সিং (Ranveer Singh) মানেই ফুল অন এন্টারটেইনমেন্ট। বাস্তবে সবসময়ই বেশ হাসি খুশি থাকেন বলিউডের এই চার্মিং অভিনেতা। সকলকে হাসাতেও পারেন সেন্স অফ হিউমর দিয়ে। তবে জীবনভর তাকে তার পোশাক-আশাক নিয়েই সর্বাপেক্ষা বেশি হাসির পাত্র হতে হয়েছে। কারণ অদ্ভুত অদ্ভুত পোশাক পরে সর্বসমক্ষে বেরোতে পারেন তিনি যা কেও কল্পনাও করতে পারবে না।

এমনিতে বলিউড তারকাদের ফ্যাশন সেন্স অনুপ্রেরণা যোগায় ভক্তদের। কিন্তু রণবীরের ড্রেস সেন্স দেখলে হেসে গড়িয়ে পড়েন তার ভক্তরা। আর হবে নাই বা কেন? কখনও কখনও লেহেঙ্গার উপর শার্ট পরেও যে বেরিয়ে পড়েন তিনি!

এই ছবিটি ২০১৯ সালের। ডাবিং স্টুডিওতে ঢোকার সময় ধরা পড়েছিল তার এই সাজ। কাল রঙের ট্রাউজার তার সঙ্গে নিয়ন কালারের জুতো। আপাদমস্তক ঢাকা ছিল অদ্ভুত লাল রঙের পোশাকে! চোখে ছিল সানগ্লাস। মজা করে তার নাম দিয়েছিলেন ‘রেড রাইডিং হুড’, ‘জাদু কা ডাব্বা’!

এরপর একবার রীতিমতো ভাল্লুক সেজে সবাইকে অবাক করে দিয়েছিলেন তিনি। সাদা রঙের পশমের জ্যাকেট চড়িয়ে চোখে রঙিন চশমা সেঁটে ধরা দিয়েছিলেন ক্যামেরার সামনে। আর এই পোশাক শীতের জন্য আদর্শ!

একবার তো নীল রঙের আউটফিটের উপর গলায় সোনালি হার, লম্বা চুল, একগাল দাড়ি-গোঁফে ঢাকা মুখ, চোখে সানগ্লাস, মাথায় লাল রঙের টুপি, কাঁধে ক্ল্যাচ ব্যাগ ঝুলিয়ে ক্যামেরার সামনে পোজ দেন রণবীর। এই বেশ দেখেই হেসে কুটোপাটি হয়েছিলেন নেটিজেনরা।

আর একবার ছেঁড়াফাটা স্যান্ডো গেঞ্জি পরেই মুম্বাইয়ের রাস্তায় বেরিয়ে পড়েছিলেন তিনি। এটাই ছিল তার পোশাকের স্টাইল। যাকে কেন্দ্র করে সোশ্যাল মিডিয়াতে অনেক হাসাহাসি হয়।

২০১৯ সালের আইফা অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানেও রণবীরের সাজ অবাক করেছিল। রণবীরের পাশাপাশি দীপিকাকে দেখেও চমকে উঠছিলেন দর্শকরা। রণবীরের ভুলভাল সাজের সঙ্গে তারা অভ্যস্ত, কিন্তু দীপিকাকে এভাবে দেখার জন্য প্রস্তুত ছিলেন না কেউই!