এবার PUBG খেললেই শাস্তি! PUBG খেলেন? তাহলে অবশ্যই পড়ুন

105

পাবজি গেমের বর্ষপূর্তি হয়েছে মাত্র কয়েক কয়েক দিন আগে। ‘প্লেয়ার্স আননোন ‌ব্যাটল গ্রাউন্ড’, সংক্ষেপে ‘পিইউবিজি’ বা পাবজি গেমের নেশা কি ক্রমশই মারণ ব্যধিতে পরিণত হচ্ছে, এই প্রশ্নই এখন সর্বত্র। কিছুদিন আগেই মন দিয়ে পাবজি খেলতে পারছেন না —এই অভিযোগ তুলে নিজের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে ডিভোর্স দিয়েছিলেন এক ব্যক্তি। পাবজি খেলার জন্য তাকে দামি ফোন কিনে না দেওয়ার অভিমানে মুম্বইয়ের এক কিশোরের আত্মঘাতী হওয়ার খবরও এসেছিল সামনে।

পাবজির জন্য পড়াশোনায় ক্ষতি হচ্ছে৷ গোল্লায় যেতে বসেছে পড়ুয়ারা৷ ছেলে-মেয়েদের অবস্থা দেখে চিন্তায় রাতের ঘুম ছুটে গিয়েছে বাবা-মায়ের৷ পাবজিতে আসক্তি স্বামী নাওয়া খাওয়া ভুলে মোবাইলে মগ্ন৷ এই কারণে সংসারে নিত্য অশান্তি৷ সংসার ভেঙে যাওয়ার জোগাড়৷ তবুও হুঁশ নেই স্বামীর৷ তাই জনপ্রিয় অনলাইন মোবাইল গেমটিকে নিষিদ্ধ করার দাবি জানিয়েছিল অভিভাবকরা থেকে শুরু করে স্ত্রীরা৷

এ সবের প্রেক্ষিতেই দীর্ঘ দিন ধরে দাবি উঠেছিল এই গেমকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করবার জন্য। অবশেষে সেই পদক্ষেপ করল দেশের বেশ কয়েকটি শহর।
এই দাবির সঙ্গে একমত হয়ে বেঙ্গালুরুর একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তাদের ক্যাম্পাসে পাবজি খেলার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে দেয়৷ তবে এবার আস্ত একটা জেলায় পাবজিকে নিষিদ্ধ করা হল৷ এমন নজির সম্ভবত সুরাটই প্রথম করে দেখাল৷ জানা গিয়েছে আগামী ৯ মার্চ থেকে এই নিষেধাজ্ঞা জারি হবে৷ এই মর্মে সুরাট পুলিশ কমিশনার বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে৷ অন্যদিকে পাবজির বিরুদ্ধে বাড়তে থাকা ক্ষোভের জেরে অনলাইন গেম সংস্থাটি কিছু নিয়ম কড়া করেছে৷ যেমন পাবজি খেলতে হলে বয়স হতে হবে ১৩ বছরের উপরে
সম্প্রতি রাজকোট পুলিশের তরফে এক বিবৃতি জারি করে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে এই গেমকে। তার পরেই দেশের আরও বেশ কয়েকটি শহরের পুলিশের তরফে এই গেমের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে সংবাদ সংস্থা পিটিআই-এর খবর।

শিশু এবং কিশোরদের জন্য এই গেমের আসক্তি মারাত্মক ক্ষতিকর বলে বেশ কিছু দিন ধরেই অভিযোগ উঠছিল। আগেও পাবজি গেম খেলার সময় শিশু ও কিশোরদের মানসিকতার পরিবর্তন ঘটে বলে অভিযোগ জানানো হয়েছিল। পাবজি গেম যিনি খেলছেন শুধু তাঁকেই নয়, কাউকে পাবজি গেম খেলতে উৎসাহিত করলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিও সমান ভাবে দোষী বলে বিবেচিত হবেন। ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৮৮ ধারায় এমন ঘটনার শাস্তির বিধান আছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এর আগে এই ধারা অনুযায়ীই মোমো চ্যালেঞ্জ গেম-এর বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছিল।

গুগল প্লে স্টোরে ২০১৮ সালের সেরার অ্যাাপ গেম, সিনেমা, টিভি শো ও ইবুকের তালিকা প্রকাশ করেছে সার্চ জায়ান্ট গুগল। সেখানে ২০১৮ সালের সেরা গেমের পুরস্কার জিতে নিয়েছে পাবজি মোবাইল। চলতি বছর প্রথম গুগল প্লে স্টোর পুরস্কারে গ্রাহকের পছন্দের বিভাগ শুরু হয়েছে। সেরা গেমের সাথেই ২০১৮ সালের গ্রাহকের সব চেয়ে পছন্দের গেমের পুরস্কারও ছিনিয়ে নিয়েছে এই গেম।

সম্প্রতি এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে পাবজি খেলোয়াড়ের সংখ্যা ৩০ লাখ। এর মধ্যে বেশির ভাগ খেলোয়াড় অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস থেকে এই গেম খেলেন। কয়েকদিন আগেই কোম্পানি জানিয়েছিল বিশ্বব্যাপী অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস মিলে মোট পাবজি খেলোয়াড়ের সংখ্যা ১০ কোটি। চলতি বছর মার্চ মাসেই মোবাইলের জন্য উন্মুক্ত হয়েছিল এই গেম।
মে মাসে এক কোটি খেলোয়াড় প্রতিদিন এই গেম খেলা শুরু করেন। সম্প্রতি কোম্পানির তরফ থেকে জানানো হয়েছে প্রতিদিন ১.৪ কোটি খেলোয়াড় প্রতিদিন পাবজি খেলেন।