‘নুসরতকে বুদ্ধিমান মেয়ে মনে করতাম’, নুসরাত সম্পর্কে বেফাঁস মন্তব্য রাজ চক্রবর্তীর

0

টলিউড (Tollywood) অভিনেত্রী নুসরাত জাহানের (Nusrat Jahan) ব্যক্তিগত জীবন সম্পর্কে তরজা এখনো থামেনি। টলিউড অভিনেত্রী তথা তৃণমূল সাংসদের বেফাঁস কিছু মন্তব্যের জেরে বর্তমানে তাকে ঘরে-বাইরে সমালোচিত হতে হচ্ছে। নুসরাতের ব্যক্তিগত সম্পর্ক, বিশেষত দাম্পত্য সম্পর্ক চলে এসেছে ওপেন ফোরামে। তার প্রাক্তন স্বামী নিখিল জৈনের (Nikhil Jain) সঙ্গে তার সম্পর্কের অবনমন থেকে শুরু করে নতুন প্রেমিক যশের সঙ্গে তার সম্পর্কে জড়ানোটা একেবারেই ভালোভাবে নিতে পারছেন না নেটিজেনরা।

উপরন্তু নিখিলের সঙ্গে সম্পর্ক বর্তমানে সম্পূর্ণ অস্বীকার করার উদ্দেশ্যে নুসরাত সটান বলে দেন যে, “নিখিলকে বিয়েই করিনি, সহবাস করেছি মাত্র”। নুসরাতের এই বক্তব্যকে সমর্থন করছেন না নেটিজেনরা। নুসরাতের সমর্থকদের মধ্যে অনেকেই এখন তার বিপক্ষে গিয়ে তার সমালোচনা করছেন। এমনকি বিরোধীদের সমালোচনা তার রাজনৈতিক কেরিয়ারকেও প্রশ্নের মুখে ফেলে দিয়েছে।

এমতাবস্থায় নুসরাতকে কেন্দ্র করে ঘরে-বাইরে যে বিতর্ক সৃষ্টি হচ্ছে তার পরিপ্রেক্ষিতে টলিউড পরিচালক তথা তৃণমূলের তরফের বিধায়ক রাজ চক্রবর্তী (Raj Chakraborty) নিজের মতামত দিলেন। সংবাদমাধ্যমের কাছে প্রশ্নের মুখে পড়ে সম্প্রতি নুসরাত প্রসঙ্গে রাজ বলেছেন, “নুসরাত খুব বুদ্ধিমান মেয়ে। আমার তো ওঁকে ইন্ডাস্ট্রির সবচেয়ে বুদ্ধিমান বলেই মনে হত। কিন্তু যখন ও ওই কথাগুলো বলেছে, প্রেজেন্স অফ মাইন্ডে হয়তো ভুল হয়ে গেছে”।

Nusrat Jahan Nikhil Jain

রাজ আরও বলেছেন, “আমার বিশ্বাস, কোনটা কোথায় বলা উচিত, সেটা ও খুব ভালো করে জানে। ও একজন সাংসদ, একটি দলের প্রতিনিধিত্ব করে। আমার বিশ্বাস ও ভবিষ্যতে নিজেকে সংশোধন করবে। যদিও এটা সম্পূর্ণ ওঁর ব্যক্তিগত বিষয়”। প্রসঙ্গত নুসরাত আজ নিখিলের সঙ্গে তার সম্পর্ককে অস্বীকার করলেও একসময় সংসদে দাঁড়িয়ে তিনি নিজেকে নিখিল জৈনের বিবাহিতা স্ত্রী হিসেবেই পরিচয় দিয়েছিলেন।

তুরস্কে মহা ধুমধাম করে অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বিয়ে করার পর দেশে ফিরে নুসরাত যেদিন প্রথম সংসদের শপথ বাক্য পাঠ করেন, তখন তিনি নিজেকে “নুসরাত রুহি জৈন” হিসেবেই পরিচয় দিয়েছিলেন। এমনকি লোকসভায় তার মনোনয়নপত্রেও “ম্যারিটাল স্ট্যাটাস” হিসেবে নুসরাত নিজেকে “বিবাহিতা” হিসেবে উল্লেখ করেছেন। ফলে স্বভাবতই তার বিরুদ্ধে দ্বিচারিতার অভিযোগ তুলছেন বিরোধীরা।

যদিও এ প্রসঙ্গে তৃণমূলের তরফ থেকে আজ পর্যন্ত কোনও মন্তব্য পেশ করা হয়নি। তৃণমূল বরাবর নুসরাতের ব্যক্তিগত জীবনের থেকে দলের ভাবমূর্তিকে আলাদা রাখতে চেয়েছে। তাই এ প্রসঙ্গে তৃণমূলের তরফের কোনও নেতাকে যখনই কোনও প্রশ্ন করা হয়েছে, তিনি তা সযত্নে এড়িয়ে গিয়েছেন। তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা হিসেবে এই প্রথম রাজ চক্রবর্তী নুসরাত বিতর্কে মুখ খুললেন।

Nusrat Jahan Mimi Chakraborty and Yash Dasgupta

প্রসঙ্গত, নুসরাত বিতর্কে প্রশ্ন এড়িয়ে গিয়েছেন নুসরাতের বেস্ট ফ্রেন্ড মিমিও (Mimi Chakraborty)। মিমি চক্রবর্তীও টলিউডের অভিনেত্রী হওয়ার পাশাপাশি তৃণমূলের তরফের একজন সাংসদ। তবে বেস্ট ফ্রেন্ড কিংবা “বোনুয়া”র ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে তিনি টু শব্দটিও করতে নারাজ। এমনকি নুসরাতের সন্তানসম্ভাবনার কথা প্রকাশ্যে আসার পরে বান্ধবীকে শুভেচ্ছাটুকুও জানাননি মিমি। যদিও বিরোধী দলের নেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় এবং তনুশ্রী চক্রবর্তী নুসরাতের বাড়ি গিয়ে তাকে শুভেচ্ছা জানিয়ে এসেছেন।