না জানিয়ে ছবি থেকে বাদ! অশালীন ভাষায় প্রকাশ্যে পরিচালককে ধুয়ে দিলেন রাহুল ব্যানার্জি

ছবি থেকে বাদ! পরিচালককে প্রকাশ্যে নোংরা ভাষায় গালিগালাজ দিলেন রাহুল

Rahul Banerjee abused Filmmaker Subrata Sen Publicly for Rejecting Him in a Film

টলিউড (Tollywood) অভিনেতা রাহুল অরুণোদয় ব্যানার্জী (Rahul Arunodoy Banerjee) বর্তমান সময়কালের একজন দাপুটে অভিনেতা। একজন দক্ষ অভিনেতা হওয়ার পাশাপাশি ব্যক্তিত্বের নিরিখে তিনি বাস্তববাদী এবং স্পষ্টবক্তা হিসেবেই তার পরিচয় রয়েছে। একাধারে সিনেমা, ধারাবাহিক, ওয়েব সিরিজে চুটিয়ে অভিনয় করছেন তিনি। তবে হঠাৎ করেই টলিউডের এক পরিচালকের উপর রেগে আগুন রাহুল। তারা এতটাই ধৈর্যচ্যুতি ঘটলো যে সোশ্যাল মিডিয়াতে ওই পরিচালকের প্রতি অপভাষা প্রয়োগ করতেও তার বাঁধলো না।

কেন হঠাৎ মেজাজ হারালেন রাহুল? আসলে টলিউডের ওই পরিচালক আর কেউ নন, সুব্রত সেন (Subrata Sen)। তিনি তার আগামী ছবি ‘প্রজাপতি’র জন্যে রাহুলের কাছে প্রস্তাব দিয়েছিলেন। তবে হঠাৎ করেই রাহুল জানতে পারেন তাকে সিনেমা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। এই খবর পরিচালক স্বয়ং তাকে জানানোর প্রয়োজন মনে করেননি। এতেই পরিচালকের বিরুদ্ধে রাগে ফেটে পড়েছেন অভিনেতা।

 

শুটিং সেট থেকেই একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়াতে তুলে ধরেন পরিচালক। যার কমেন্ট বক্সে ক্ষুব্ধ রাহুল লেখেন, “বাহ একজন অভিনেতা তোমার ফোন ধরেনি বলে তাকে তুমি পাবলিকলি শেম করতে পারো। আমাকে পাল্টে দেবার সময় জানানোর সৌজন্যবোধ টুকু দেখাবার প্রয়োজনবোধ করো না। ‘F**k you’ আর তোমার ডবল স্ট্যান্ডার্ডকে”।

যদিও ওই পরিচালক অবশ্য যথেষ্ট শালীনতা বজায় রেখে রাহুলকে তার প্রত্যুত্তর দেন। কমেন্ট বক্সে পরিচালক রাহুলের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিয়ে লিখেছেন, “আমার সত্যিই তোমাকে ফোন করা উচিত ছিল। কিন্তু করিনি লজ্জায়। কারণ যে রোলটা ভেবেছিলাম প্রথমে সেটা শেষ পর্যন্ত দাঁড়ায়নি। তোমার মতো অভিনেতাকে গুরুত্বহীন রোলে কাস্ট করা উচিত নয় বলে আমি মনে করি। একই ঘটনা ঘটেছে জয়রাজের ক্ষেত্রেও। তাকেও আমি লজ্জায় ফোন করিনি। এ আমাকে কিছু বলেনি এখনও, তবে এবার অবশ্যই তাকে ফোন করে নেব। আমি ক্ষমা চাইছি তোমার কাছে।”

পরিচালক এবং অভিনেতার এই লড়াইয়ের মাঝখান থেকে ঢুকে পড়েছেন টলিউডের নামকরা প্রযোজক রানা সরকার। তিনি রাহুলকে কটাক্ষ করে লিখলেন, আমাদের দেশে এমন ‘ডাবল স্ট্যান্ডার্ড’ অনেকেই রয়েছেন! রানা সরকারের কথায়, “অনেকে আছে যারা সন্তান জন্ম দেওয়ার পর তাকে বড় করার মিনিমাম কোনও দায়িত্ব নেয় না এদিকে পাবলিকলি ইমোশনাল স্টেটমেন্ট দেয়”! যদিও প্রযোজকের কথার উত্তর দেওয়ার প্রয়োজন মনে করেননি রাহুল। তবে টলিউডের পরিচালক-অভিনেতা-প্রযোজকের দ্বন্দ্ব আপাতত ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়াতে।