পশ্চিমবঙ্গে চালু হচ্ছে বেসরকারি ট্রেন, এক নজরে দেখে নিন ১৫টি রুট

470

বেশ কিছু সময় ধরেই আলোচনা চলছিল রেলের বেসরকারিকরণের।২০১৯ সালেই ট্রেনের বেসরকারিকরণের প্রস্তাব গৃহীত হয়। সেই পরিকল্পনা বাস্তবায়িত করা হচ্ছে এখন তবে তা নিয়ে বিরোধী দলের সদস্যরা এমনকী অনেক রেলকর্মী সংগঠনও সরব হয়েছে। জানা যাচ্ছে আগামী ২০২৩ সাল থেকে সেই মতনই পরিকল্পনা করছে রেল মন্ত্রক।

২০১৩ সালের এপ্রিল থেকেই সারা দেশের ১০৯ টি রুটে মোট ১৫১ টি বেসরকারি ট্রেন চলবে, এমনই পরিকল্পনা করছে কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রক। এবং এগুলির মধ্যে হাওড়া ক্লাস্টার থেকেই ছাড়বে ১০টি বেসরকারি ট্রেন, তাছাড়াও পশ্চিমবঙ্গের ১৫ টি রুটে এই বেসরকারি বাসগুলি চলবে।

কোন কোন রুটে চলবে বেসরকারি ট্রেন?

১. হাওড়া-ভাগলপুর ২. শিয়ালদহ-গুয়াহাটি

৩. হাওড়া-বারাণসী ভায়া পটনা ৪. হাওড়া-আনন্দবিহার

৫. নিউ বঙ্গাইগাঁও-হাওড়া ৬. হাওড়া-রাঁচি

৭. পুরী-হাওড়া ৮. হাওড়া-চেন্নাই

৯. হাওড়া-পুনে ১০. রাঁচি ভায়া পুরুলিয়া-হাওড়া

১১. মুম্বই-হাওড়া ১২. আসানসোল-পুরী

১৩. আসানসোল-সুরাট ১৪. হাওড়া-বেঙ্গালুরু ১৫. হাওড়া-সেকেন্দরাবাদ

এই প্রক্রিয়াটির এখনও প্রারম্ভিক পর্বে চলছে। এই পর্বেই বুধবার ১৫১ টি ট্রেনের বেসরকারিকরণের বিষয় রিকোয়েস্ট ফর কোয়ালিফিকেশন বা আর এফ কিউ জমা দেওয়ার কথা জানায় যার উত্তরে বৃহস্পতিবার রেলবোর্ড চেয়ারম্যান বিনোদকুমার যাদব এই বেসরকারিকরণের বিষয় বিস্তারিত তথ্য পেশ করেন। তবে এই ট্রেনগুলোর সরকারি থেকে বেসরকারিকরণ হওয়ায় ভাড়ার বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন উঠছে অনেকেরই। বেসরকারিকরণের ফলে কি ভাড়া বৃদ্ধি হবে?

ঘোষণা থেকে কি কি জানা গেল?

১. এই ট্রেন চালানোর জন্য সেই রুটগুলো বেছে নেওয়া হয়েছে যেগুলো লাভজনক হবে।
২. বেসরকারিভাবে নতুন ট্রেনগুলো চললেও আগের ট্রেনগুলো আগের মতনই চলবে।
৩. মনে করা হচ্ছে সাধারণ ট্রেনগুলোর সাথে এই বেসরকারি ট্রেনগুলোর ভাড়ার অনেকটাই পার্থক্য হবে। সাধারণ নিম্নবিত্ত মানুষের নাগালের বাইরে চলে যেতে পারে এই ট্রেনের ভাড়া।
৪. রেলের তরফ থেকে জানা যাচ্ছে যাত্রীর চাহিদা বাড়ার বা কমার সাথেই এই ভাড়ার পরিবর্তন ঘটবে।
৫. পুরোনো নিয়মে চলা ট্রেনগুলোর সময়ের তালিকা পরিবর্তন হবেনা।
৬. যদি বেসরকারি ট্রেনে আরও পাঁচ শতাংশ ট্রেন সামিল করা যায় তবে আরও উন্নত হবে যাত্রী পরিষেবা।

এই পরিষেবা চালু করার জন্য সম্পূর্ণ দেশকে ১২ টি ক্লাস্টারে ভাগ করেছে রেল।

কোন ১২ টি ক্লাস্টারে এই ট্রেন চলবে?

১॰ বেঙ্গালুরু

২.চণ্ডীগড়

৩.চেন্নাই

৪. দিল্লি-১

৫. দিল্লি- ২

৬. হাওড়া

৭. জয়পুর

৮. মুম্বই-১

৯. মুম্বই -২

১০.পটনা

১১. প্রয়াগরাজ

১২. সেকেন্দরাবাদ ক্লাস্টার।

ট্রেনের এই বেসরকারিকরণের প্রশ্নে কেন্দ্রের দিকে অভিযোগের আঙ্গুল তুলেছেন বিরোধী দলনেতা রাহুল গান্ধী। তিনি বলেন গরীব মানুষদের একমাত্র জিবনরেখা ভারতীয় রেলকেই কেন্দ্রীয় সরকার ছিনিয়ে নিতে চাইছে। তিনি আরও বলেন যে দেশের জনতা এই কথা মনে রাখবে এবং তার জবাব দেবে।