সারাজীবন ভুগতে না চাইলে আপডেট রাখুন আধার কার্ড

আধার সংক্রান্ত সুপ্রিম কোর্টের রায়ের পর সাধারণ মানুষের কিছুটা হলেও স্বস্তি এসেছে, তবে সব ক্ষেত্রে আধারের ছাড় পাওয়া যায়নি সেই কোর্টের রায়ে। ভারতের সর্বোচ্চ আদালত এই রায়ে জানিয়েছে, সামাজিক প্রকল্প, পেনশন, ব্যাঙ্ক, মোবাইলের সঙ্গে আধার সংযুক্তিকরণ বাধ্যতামূলক না হলেও বেশ কিছু ক্ষেত্রে আধার আবশ্যিক। সে কারণে আপনার কাছে থাকা আধার কার্ডের ভুল ত্রুটি সংশোধন করে আপডেট রাখুন আর তা না হলে বিপদে পড়তে পারেন যে কোন মুহূর্তে।

আধার সংক্রান্ত সুপ্রিম কোর্টের রায় স্বস্তি দিলেও বর্তমানে পরিচয় পত্র ও গুরুত্বপূর্ণ নথি হিসাবে বিবেচিত হয়। পেনশনের ক্ষেত্রে আধার কার্ড খুব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। অন্যদিকে ইতিমধ্যেই আয়কর দপ্তর জানিয়ে দিয়েছে আগামী ৩১ শে মার্চ এর মধ্যে প্যান কার্ডের সাথে আধার কার্ড সংযুক্তিকরণ না করলে বাতিল হয়ে যাবে প্যান কার্ড। আর এই সকল ক্ষেত্রে আধার কার্ড এর সঠিক তথ্য আপ টু ডেট থাকা অত্যন্ত আবশ্যিক।

আরও পড়ুন : আধার কার্ডের বদলানো তথ্য ডিজি লকারে রাখতে চান? কিভাবে রাখবেন ?

আমরা অনেক ক্ষেত্রেই লক্ষ্য করে দেখেছি, আমাদের যে সকল আধার কার্ড রয়েছে সেগুলিতে কোথাও বাবার নাম, কোথাও বা ঠিকানা, কোথাও বা জন্ম তারিখ ঠিক নেই। কিন্তু এগুলি সবসময়ই সঠিক রাখা প্রয়োজন। যেমন ধরুন প্যান কার্ডের সাথে আধার কার্ডের লিংক করাতে চাইছেন আপনি। কিন্তু আধার কার্ডে আপনার জন্ম তারিখ ভুল রয়েছে তাহলে সেই লিঙ্ক করা সম্ভব হবে না।

আরও পড়ুন : মোবাইল, ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট, PayTm থেকে আধার ডিলিঙ্ক করার সহজ পদ্ধতি

আধার কার্ড আপ টু ডেট করার সময় অবশ্যই মনে রাখবেন ঠিকানা জন্ম তারিখ ইত্যাদি সঠিক রাখার পাশাপাশি সেখানে যেন সঠিক উপায় নাম্বার এবং ইমেইল এড্রেসও থাকে। যাতে করে গুরুত্বপূর্ণ সময়ে ওটিপি অথবা অন্য তথ্য পাঠাতে ভোগান্তি না হয়।

আধার কার্ডের ক্ষেত্রে আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো আপনার দশটি আঙুলের ছাপ যেন সঠিক থাকে, সাথে সাথে রেটিনার ছাপও যেন সঠিক থাকে। বিভিন্ন ক্ষেত্রে আধার নিয়ে সমস্যা যেন না হয় সেই জন্য উপরের বিষয়গুলি সবসময়ই আপটুডেট থাকা প্রয়োজন।

Loading...