সংকটের মাঝেই স্বস্তির খবর, ভারতে করোনামুক্ত ১ লক্ষ মানুষ

করোনা ভাইরাসের সংক্রমনের সংখ্যা যেমন দিনের পর দিন বাড়ছে ঠিক তেমনি পাল্লা দিয়ে বাড়ছে সুস্থ হয়ে ওঠার পরিসংখ্যানও। আর এই পরিসংখ্যানই ভারতের কোটি কোটি মানুষকে সংকটের মাঝে স্বস্তি দিচ্ছে। এখনো পর্যন্ত এই রোগের কোনরকম প্রতিষেধক অথবা ওষুধ আবিষ্কার না হওয়াই মানুষ বাইরে বেরোলেও পদে পদে আশঙ্কায় ভুগছেন। আর এই আশঙ্কাকেই বুধবারের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের রিপোর্ট কিছুটা হলেও স্বস্তি দিল।

বুধবার সকাল ৮টায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফ থেকে করোনা সংক্রান্ত যে রিপোর্ট পেশ করা হয়েছে তাতে দেখা গিয়েছে এযাবত দেশে ১ লক্ষের বেশি মানুষ করোনাকে জয় করে বাড়ি ফিরেছেন।আর ভারতে এই বিপুলসংখ্যক মানুষ খুব অল্পসময়ের মধ্যেই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন এটা বলাই বাহুল্য। ভারতে মূলত মার্চ মাস থেকে সংক্রমণ ছড়াতে শুরু করে। তারপরেই ২৪ শে মার্চ থেকে জারি হয় লকডাউন।

আর সেই লকডাউন এখন পঞ্চম দফায় এসে পৌঁছেছে। পঞ্চম দফার লকডাউনে ধীরে ধীরে দেশকে আনলক করার পথে হাঁটছে কেন্দ্র। আর এই আনলক পদ্ধতি চলাকালীন খুলে গেছে দেশের বড় বড় অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠানগুলি। সুতরাং বর্তমান পরিস্থিতিতে আমাদের আরও বেশি সতর্ক ভাবে চলতে হবে, জীবনের সঙ্গী হিসেবে বেছে নিয়ে চলতে হবে মাস্ক, স্যানিটাইজার ও সামাজিক দূরত্বকে।

বুধবার সকাল ৮ টায় কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তরফ থেকে যে রিপোর্ট পেশ করা হয়েছে তাতে দেখা গিয়েছে গত ২৪ ঘন্টায় ভারতের নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৮৯০৯ জন। অর্থাৎ সংক্রমণ মোটেই কমেনি বরং বেড়েই চলেছে। আর এই বিপুল পরিমাণ সংক্রমণ বাড়ার পাশাপাশি দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ২ লক্ষ ৮ হাজার ৬১৫। আর গত ২৪ ঘণ্টায় অর্থাৎ এক দিনেই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৪৭৭৬ জন। আর এর সাথে সাথেই দেশে মোট সুস্থ হয়ে ওঠার সংখ্যা ১ লক্ষ পার হয়ে দাঁড়ালো ১ লক্ষ ৩০৩। গত ২৪ ঘন্টায় দেশে মারা গেছেন ২১৭ জন। মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৫৮১৫। বর্তমানে দেশে অ্যাক্টিভ করোনা আক্রান্ত রোগী রয়েছেন ১ লক্ষ ১ হাজার ৪৯৭ জন।

রাজ্যের নিরিখে সবথেকে বেশি আক্রান্তের সংখ্যা মহারাষ্ট্রে। যেখানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৭২ হাজার ৩০০। আর পশ্চিমবঙ্গ রয়েছে অষ্টম স্থানে। পশ্চিমবঙ্গে বর্তমানে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৬ হাজার ১৬৮। বাকি রাজ্য তামিলনাড়ুতে ২৪ হাজার ৫৮৬, দিল্লিতে ২২১৩২, গুজরাতে ১৭৬১৭, রাজস্থানে ৯৩৭৩, মধ্যপ্রদেশে ৮৪২০, উত্তরপ্রদেশে ৮৩৬১, বিহারে ৪১৫৫, অন্ধ্রপ্রদেশ ৩৮৯৮, কর্ণাটক ৩৭৯৬ উল্লেখযোগ্য।