১২০০ টাকায় থাকা-খাওয়া, নিরিবিলিতে দেদার ঘোরা! এই পাহাড়ি লোকেশনে না গেলেই চরম মিস

নামমাত্র বাজেটে ঘুরে আসুন এই পাহাড়ি লোকেশন থেকে, রইল ঠিকানা

Offbeat Tourism : শীতকালে কাছে পিঠে ঘুরতে যাওয়ার অন্যতম একটি পরিচিত এবং গুরুত্বপূর্ণ স্থান হল পুরুলিয়া। শীত ফুরিয়ে যাবার আগেই যদি আপনি পুরুলিয়া (Purulia) যাবার প্ল্যান করে থাকেন তাহলে আজ পুরুলিয়ার একটি অফবিট স্থানের সন্ধান দেওয়া হবে এই প্রতিবেদনে। শান্ত নিরিবিলি এই স্থানে পরিবারের সঙ্গে অথবা একা কিছুটা সময় কাটিয়ে আসতে পারবেন আপনি। দেখুন গোটা প্রতিবেদনটি।

পুরুলিয়ার অফবিট স্থান এই রিসোর্ট

পুরুলিয়া মানেই লাল মাটি। সারা বছর বিশেষত শীতকালে পর্যটকদের ভিড় লেগে থাকে এই পুরুলিয়া জেলায়। পুরুলিয়া মানেই সকলেই জানে অযোধ্যা পাহাড়। তবে আপনি যদি লোকালয়ের ভিড় এড়িয়ে কোনও শান্ত নিরিবিলি স্থানে সময় কাটাতে চান তাহলে পুরুলিয়ার অন্যতম প্রকৃতি ভ্রমণ কেন্দ্র মাঠা ফরেস্ট রিসোর্ট (Matha Forest Resort) যেতে পারেন আপনি।

Matha Forest Resort

একটি বেসরকারি সংস্থা গড়ে তুলেছে এই রিসোর্ট। এই রিসোর্টে আপনি পেয়ে যাবেন একাধিক বিলাসবহুল ব্যবস্থা। প্রকৃতির কোলে অসম্ভব সুন্দর প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করার জন্য আপনি যেতেই পারেন এই রিসোর্টে। পুরুলিয়ার অফ বিট স্থান গুলির মধ্যে এই রিসোর্টটি নিজের জায়গা করে নিয়েছে।

এই রিসোর্টে গেলে কী কী দেখতে পাবেন আপনি

এই রিসোর্টে রয়েছে ৯ টি লাক্সারি সুইস টেণ্ট, ২৮ টি রুম, লাক্সারি সুইমিং পুল, আউট সাইড সিটিং উইথ বন ফায়ার, ইনডোর গেম, আউটডোর গেম, বার্ড ওয়াচিং, নেচার ট্যুর, স্পা সহ একাধিক এন্টারটেইনমেন্টের বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা।

Matha Forest Resort

থাকছে একাধিক খাবারের অপশন

আপনি এই রিসোর্টে গেলে পেয়ে যাবেন চাইনিজ থেকে ইন্ডিয়ান, এমনকি তন্দুরের রকমারি খাবারের অপশন। ব্রেকফাস্টে পেয়ে যাবেন বুফের ব্যবস্থা, যেখানে বিভিন্ন রকম খাবার আপনি খেতে পারবেন মন ভরে। থাকা খাওয়া মিলিয়ে মাথাপিছু ১০০০ থেকে ১৫০০ টাকা পর্যন্ত খরচ হবে আপনার।

আরও পড়ুন : ১২০০ টাকাতেই কমপ্লিট! ঘুরে আসুন বাংলার এই ‘মিনি নায়গ্রা’ থেকে

Matha Forest Resort

আরও পড়ুন : ভুলে যাবেন দার্জিলিং-সিমলা! নামমাত্র খরচে ঘুরে আসুন ‘মিনি তিব্বত’ থেকে

বর্তমানে এই রিসোর্টে প্রায় ৩০ জন কর্মী কর্মরত। তেমনভাবে এখনো এই রিসোর্টটির খোঁজ পাননি পর্যটকরা, তাই আপনি যদি নিরিবিলিতে সময় কাটাতে চান তাহলে অবশ্যই একবার হলেও ঘুরে আসতে পারেন পুরুলিয়ার এই ফরেস্ট রিসোর্টে।