‘সাহস থাকলে ধর্ষণ করে দেখাক’, গর্জে উঠলেন নুসরত জাহান

বিজেপির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সভায় নারীদের প্রতি অনাচার নিয়ে আওয়াজ তুললেন অভিনেত্রী। কড়া ভাষায় জানিয়ে দিলেন, বাংলার মেয়েদের ভয় দেখিয়ে দমন করা সম্ভব নয়।

সোমবার একজন নারী এবং অভিনেত্রী হিসেবে বিজেপির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সভায় নারীদের প্রতি হওয়া দুর্ব্যবহারের বিরুদ্ধে সরব হলেন সাংসদ অভিনেত্রী নুসরাত জাহান (Nusrat Jahan)। কিছুদিন ধরেই অভিনেত্রী দেবলীনা দত্ত এবং অভিনেত্রী সায়নী ঘোষের সাথে হওয়া দুর্ব্যবহারের বিরুদ্ধে সরব হন তিনি।

সোমবার ধর্মতলার মেট্রো চ্যানেলে আয়োজিত এই প্রতিবাদ সভার নাম ছিল ‘এ কোন সকাল, রাতের চেয়েও অন্ধকার। নুসরত ছাড়াও অংশ নেন পরিচালক রাজ চক্রবর্তী, অভিনেত্রী দেবলীনা দত্ত, সায়সী ঘোষ, দেবলীনা দত্ত, কৌশিক সেন, ঋদ্ধি সেনরা।

জয় শ্রীরাম টুইট বিতর্ক এবং গোমাংস নিয়ে মন্তব্য বিতর্কে জড়ানো পরে একাধিকবার বিভিন্ন রকম হুমকি এমনকি ধর্ষণের হুমকির সম্মুখীন হতে হয়েছে সায়নী এবং দেবলীনাকে।নুসরাত জাহান স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন বাংলার মেয়েদের ভয় দেখিয়ে দমিয়ে রাখা সম্ভব নয়। তিনি জানিয়ে দিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী একজন নারী সেই রাজ্যের মেয়েরা ধর্ষণের হুমকি কে ভয় পায় না।

এদিনের প্রতিবাদ সভায় নুসরত বলেন, ‘এ কোন ভারতবর্ষে আমরা বাস করছি? এ কোন নিরাপত্তা। কীসের সুরক্ষা? কে রেপ করবে?’ প্রশ্ন নুসরতের। তিনি সাফ জানিয়ে দেন, যে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মহিলা সেখানকার মেয়েরা ধর্ষনের হুমকিতে ভয় না। তিনি আরও যোগ করেন, ‘ধর্ষণের হুমকি আমিও পাই।

দম থাকলে আয় রেপ করে দেখা… কিন্তু আমি বা এই মঞ্চে উপস্থিত কোনও মহিলা এ ধরনের হুমকিতে ভয় পায় না। সাহস থাকলে আমাদের ঘরে ঢুকে ধর্ষণ করে দেখাক। বাংলার মেয়েরা এভাবেই এগিয়ে যাবে… বাংলার বাড়িতে বাড়িতে ঝাঁটা আছে, বঁটি আছে। কেউ আমাদের ভয় দেখালে তাঁদের ঝেঁটিয়ে বিদায় করব’।

প্রতিবাদ মঞ্চে দাঁড়িয়ে তিনি বিরোধী শিবিরের উদ্দেশ্যে প্রশ্ন ছুঁড়ে দেন, ‘তোমরা বাংলার সংস্কৃতি বোঝো? বোঝোনা বলেই বাংলার মেয়েদের অপমান করো। জেনে রাখো বাংলার মেয়েদের সম্মান তাঁদের হাতে যা তোমরা কেড়ে নিতে পারবে না’। মঞ্চ থেকে নেমে যাওয়ার আগে তারকা সাংসদ বললেন, ‘আজ সায়নী-দেবলীনার সঙ্গে যা হয়েছে তা যাতে আর কোনও মেয়ের সঙ্গে না হয়, সেই জন্যই এই মঞ্চে এসেছি।’