সলমান একা নন, হিট অ্যান্ড রান কেসে জড়িয়েছেন আরেক বলিউড অভিনেতা

সলমন খানের আগে তিনি অভিযুক্ত হয়েছিলেন ‘হিট অ্যান্ড রান’ মামলায়। অভিযোগ, ১৯৯৩ সালে মুম্বইয়ের বান্দ্রায় নেশাগ্রস্ত অবস্থায় গাড়ি চালিয়ে পুরু আহত করেছিলেন আট ফুটপাতবাসীকে।

হিট অ্যান্ড রান কেসে সলমান খানের বিতর্কের বিষয় সবাই জানেন। কিন্তু অনেকেই জানেননা  বলিউডে সলমান খান প্রথম নয়, যার নামের সাথে এরকম একটি অভিযোগ রয়েছে। নেশাগ্রস্ত অবস্থায় গাড়ি চালিয়ে ইনিও ৮ ফুটপাথবাসীকে গুরুতর আহত করেছিলেন তিনি। ৮ জনের মধ্যে ৩জন ঘটনাস্থলেই মারা যান।

ঘটনাটি ঘটে ১৯৯৩ সালে, মুম্বাই এর বান্দ্রায়। এই ঘটনায় তার ওপর বেশ অনেকদিন মামলা চলে এবং তিনি গ্রেফতার হন। কিন্তু বেশিদিনের জন্য নয়। জেল থেকে ছাড়া পান তিনি তবে আর কোনোদিনই কর্মক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত হতে পারেননি। তবে যেহেতু কোনোদিনই তিনি খুব একটি পরিচিতি পাননি তাইজন্য এই বিষয়টি নিয়ে বিশেষ শোরগোল হয় নি।

“স্টার কিড’ হয়েও বলি টাউনে প্রতিষ্ঠিত হতে পারেননি, এমন উদাহরণ বলিউডে অনেক আছে। এরকমই একজন হলেন পুরু রাজকুমার, কুলভূষণ পণ্ডিত ( রাজকুমার) এর পুত্র। ভালো নাম, পুরু কুলভূষণ পণ্ডিত।

বলিউডে প্রথম পা রাখেন ১৯৯৬ সালে করিশমা কাপুরের বিপরীতে, ছবির নাম ‘বালব্রহ্মচারী’। এই ছবি নিয়ে ইন্ডাস্ট্রির বেশ আশা থাকলেও তা পূরণ হয়নি। ডেবিউ অভিনেতা হিসেবে তার নাম ডাক হলেও বক্স অফিসে ভালো ফল করতে পারেনি তার এই ছবি।

আরও পড়ুন : বলিউডে মাদক চক্রে জড়িয়েছেন এই ১৫ অভিনেতা-অভিনেত্রী

এরপর ২০০০ সালে  ‘হমারা দিল আপ কে পাস হ্যায়’, ‘মিশন কাশ্মীর’ মুক্তি পায় যাতে অভিনয় করলেও নায়কের ভূমিকায় ছিলেন না তিনি। এরপরেও ‘খতরোঁ কে খিলাড়ি’, ‘দুশমনি’, ‘এলওসি কার্গিল’, ‘জাগো’, ‘উমরাও জান’ প্রভৃতি বিভিন্ন ছবিতে তাকে দেখা গেছে তবে কোনোটাই মুখ্য চরিত্রে নয়। শেষবার তাকে বড় পর্দায় দেখা যায় ‘অ্যাকশন জ্যাকসন’ ছবিতে।

আরও পড়ুন : আগে সেক্স তারপর ট্যালেন্ট, টলিউডে কাজ পেতে শুতে হয় ছেলেদেরও

পরবর্তীকালে তার বোন বাস্তবিকাও বলিউডে আসেন তবে তিনিও কোনোদিন পরিচিতি পাননি।  জানা যায়, তার অভিনীত বেশ কিছু ছবির মুক্তি আটকে যায় এবং সেগুলি আর প্রকাশ পায়নি। বারবারই সেই বিষয় আক্ষেপ করেছেন তিনি। তবে তার সাথে তিনি এই বলেন যে বাবার মতন সফল হতে না পারায় তার কোনো দুঃখ নেই। জীবন থেকে যা পেয়েছেন তাই নিয়েই শান্তিতে থাকতে চান তিনি।