নিজের ভুল বুঝতে পারলো আবির, রূপ নয় বেছে নিল গুনকেই, নতুন টুইস্ট ‘ওগো নিরুপমা’য়

সমাজের সৌন্দর্য্যের সংজ্ঞা শুধুই ত্বকের রঙের উপর নির্ভর করে। দুধে-আলতা গায়ের রং না হলে মহিলাদের সুন্দরীর ক্যাটাগরিতে ধরবেই না সমাজ। মনের সৌন্দর্য্য, সততা, কোমলতা, স্নেহ-ভালোবাসা বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই মানুষের কাছে তেমন মূল্য পায়না। যতই সুশিক্ষিতা, উপার্জনক্ষম, কাজে-কর্মে পটু হোন না কেন, ঝাঁ-চকচকে ত্বকের অধিকারীণী না হলে সমাজে তাকে ব্রাত্য হয়েই থাকতে হবে।

মহিলাদের ত্বকের রংয়ের উপরেই যেন নির্ভর করে তার তাদের সকল দোষ-গুণ, ব্যর্থতা-সফলতা। ঘরে-বাইরে শ্যামবর্ণাদের গায়ে এখনও রেসিজমের আঁচড় এসে লাগে। বিশেষত বিবাহক্ষেত্রে “সুন্দরী”দের চাহিদা আজও আগের মতোই অটুট রয়ে গিয়েছে। সুন্দরের সংজ্ঞা নিরূপণে ফর্সা-কালো, সুন্দরী-কুৎসিত, লম্বা-বেঁটে, মোটা-রোগার বাইরে কবে বেরোবে সমাজ? আদেও কখনও বেরোতে পারবে কি?

“ওগো নিরুপমা” ধারাবাহিকটিও সমাজের কাছে সরাসরি এই প্রশ্নই রাখে। সমাজের উচ্চ প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী, সুদর্শন “আবির রায় চৌধুরী”ও তার জীবনসঙ্গিনীর মধ্যে সেই চিরাচরিত “সৌন্দর্য্য” খোঁজেন। শ্যামবর্ণা, চোখে সাবেকফ্যাশনের চশমা পড়া, মেকআপ করতে না জানা, দাঁত উচু “নিরুপমা”কে তার পছন্দ নয়। অথচ মনের সৌন্দর্য্যের নিরিখে কোনও সুন্দরী মহিলা কোনদিনও “নিরুপমা”র ধারে কাছে আসতে পারবে না।

Ogo Nirupoma Serial

স্ত্রী হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া তো দূরের কথা, “আবির” কোনদিনই “নিরুপমা”কে তার যোগ্য সম্মানটুকুও দেননি। অথচ “নিরুপমা” হাজারও অসম্মানের সম্মুখীন হয়েও “আবির” এর পাশেই থেকে থেকেছেন। সেই “আবির” এখন “নিরুপমা”র দ্বিতীয় রূপ, “সংযুক্তা”র প্রেমে মগ্ন। সুন্দরী, স্মার্ট, শিক্ষিতা, নামকরা মডেল “সংযুক্তা”র কাছে হেরে গিয়েছেন “নিরুপমা”। তাইতো তার ভালোবাসাকে উপেক্ষা করে “আবির” “সংযুক্তা”র দিকেই পা বাড়িয়েছেন।

Ogo Nirupoma Serial

তবে বাইরের সৌন্দর্য্য, চাকচিক্য আর মনের সৌন্দর্য্য যে এক নয়, “আবির” খুব তাড়াতাড়িই তা বুঝতে পেরেছেন। “সংযুক্তা”র কালো মনের হদিস পেয়ে “আবির” এখন প্রতিমুহূর্তে “নিরুপমা”র অভাব উপলব্ধি করতে পারছেন। তাইতো তিনি আবার “নিরুপমা”র কাছেই ধরা দিতে চান। রূপ নয়, “আবির” এখন গুণের গুণগ্রাহী হয়ে উঠেছেন। “সংযুক্তা” তথা “নিরুপমা”র সংগ্রাম এতদিনে সার্থক। “আবির” আবারও ফিরলেন তার “নিরুপমা”র কাছে।

Ogo Nirupoma Serial

“ওগো নিরুপমা” ধারাবাহিকের গল্পের গতিপথ এখন কোন দিকে এগোবে? “নিরুপমা” কি “আবির”কে আবারও গ্রহণ করতে পারবেন? “সংযুক্তা”র কি হবে? “আবির” কি কোনদিনও জানতে পারবেন যে স্মার্ট, সুন্দরী “সংযুক্তা”ই আসলে “নিরুপমা”? জানলে তখন তার প্রতিক্রিয়া কি হবে? জানার জন্য উৎসাহী দর্শক।