জ্বর সর্দি গলাব্যাথা নয়, করোনা সংক্রমনে দেখা যাচ্ছে ৫টি নতুন লক্ষণ

সারা বিশ্বে কোরোনা আক্রান্তের সংখ্যা প্রতিনিয়ত বাড়ছে লাফিয়ে লাফিয়ে। বর্তমানে প্রায় ৯ লক্ষ মানুষ আক্রান্ত এবং মৃত সাড়ে ৪ হাজারেরও বেশী। এতদিন মানুষ জানতেন, জ্বর, সর্দি কাশি, গলা ব্যাথা ও শ্বাসকষ্ট এই মারণ ভাইরাস সংক্রমণের উপসর্গ। এবার আরও কিছু উপসর্গের কথা জানতে পারলেন বিশেষজ্ঞরা। এই লক্ষণ দেখতে পেলেই এড়িয়ে না গিয়ে যত দ্রুত সম্ভব যোগাযোগ করুন ডাক্তারের সাথে।

জ্বর সর্দি গলাব্যাথা নয়, করোনা সংক্রমনে দেখা যাচ্ছে ৫টি নতুন লক্ষণ

১. স্বাদ এবং ঘ্রাণ শক্তি লোপ পাওয়া :- বর্তমানে একাধিক রোগী এই উপসর্গ নিয়ে ভর্তি হওয়ার পর তাদের শরীরে করোনা ভাইরাস ধরা পড়তে শুরু করেছে। পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে তো বটেই মূলত আমেরিকা যুক্তরাষ্ট তে এইরকম উপসর্গ নিয়ে অনেক কোরোনা এর রুগী ভর্তি হন। সুতরাং এটিকে এখন কোরোনা ভাইরাস সংক্রমণের নতুন উপসর্গ বলেই গণ্য করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন :- বিশ্বে প্রথম করোনা ভাইরাস ছড়ানো ব্যক্তিকে অবশেষে খুঁজে পাওয়া গেল

২. হজমের শক্তি হ্রাস পাওয়া :- হজমের ক্ষমতা কমে যাওয়ার ফলে ডায়রিয়া এটিও কোরোনা এর নতুন উপসর্গ। কোরোনা সংক্রমিত অনেকের শরীরেই এই উপসর্গই পাওয়া যাচ্ছে। চীনে এরকম উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি অনেক রোগীদের শরীরেই মিলেছিল কোরোনা ভাইরাস। তাই এইরকম উপসর্গ দেখা দিলে সময় নষ্ট না করে একবার ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করে নেওয়াই উচিৎ।

জ্বর সর্দি গলাব্যাথা নয়, করোনা সংক্রমনে দেখা যাচ্ছে ৫টি নতুন লক্ষণ

আরও পড়ুন :- করোনার ইঙ্গিত দিয়েছিল গত বছর, মিলে গেল কিশোরের ভবিষ্যদ্বাণী

৩. চোখের রং পরিবর্তন :- অনেকেরই কোরোনা সংক্রমণের পর দেখা গেছে চোখের রং এর পরিবর্তন ঘটেছে! গোলাপী হয়ে উঠেছে চোখ। তবে এটি কোনও সাধারন উপসর্গ নয়। খুব কম সংখ্যক আক্রান্তের মধ্যে এই উপসর্গ দেখা গেছে। ১-৩% রোগীদের করোনা সংক্রমণের পর চোখ ফুলে উঠেছে এবং চোখ গোলাপী বর্ণ ধারণ করেছে।

জ্বর সর্দি গলাব্যাথা নয়, করোনা সংক্রমনে দেখা যাচ্ছে ৫টি নতুন লক্ষণ

আরও পড়ুন :- বাড়িতে বসেই করুন করোনা টেস্ট, নাম বুকিং Online-এ

৪. মাথা ব্যাথা :-  সর্দি কাশি জ্বরের মতন উপসর্গের সাথেই অনেক আক্রান্ত ব্যাক্তিদের মাথায় যন্ত্রণা হতে দেখা যাচ্ছে। তবে শরীরে জ্বর থাকায় এটাকে স্বাভাবিক ভেবে এড়িয়ে যাচ্ছেন অনেকেই। আর শুধু জ্বর নয়, তার সাথেই থাকবে শরীরে অদ্ভুদ এক রকম অস্বস্তি। তাই সর্দি কাশি বা জ্বরের মতন উপসর্গ দেখা দিলেই পরামর্শ নিতে হবে চিকিৎসকের।