ডেটের আড়ালে চলছে নোংরামি, শ্রীলেখা-শশাঙ্কের ডেট নিয়ে উত্তাল সোশ্যাল মিডিয়া

Sreelekha Mitra Date

শশাঙ্ক ভাভসরকে (Shasanka Bhavsar) নিয়ে ডেটে যাবেন শ্রীলেখা (Sreelekha Mitra)। অনুরাগী তার কথা রেখেছেন। শ্রীলেখার শর্ত মেনে পথ পশুদের দায়িত্ব নিয়েছেন শশাঙ্ক। তাই এখন ভক্তের মনোবাঞ্ছা যে দেবীকে পূরণ করতেই হয়! আগামী বুধবার ডেটে যাওয়ার দিন ঠিক হয়েছে। স্বভাবতই শ্রীলেখার সঙ্গে ডেটে যাওয়া নিয়ে বেশ উত্তেজিত শশাঙ্ক। তবে তার উৎসাহে জল ঢেলে দিতেও পিছপা হচ্ছেন না নেটিজেনরা।

শ্রীলেখা এবং শশাঙ্ক বুধবার কফি ডেটে যাবেন। একথা জানার পর থেকেই একদল নেটাগরিক শশাঙ্ক এবং শ্রীলেখাকে নিয়ে কাদা ছোঁড়াছুঁড়িতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। কফি ডেট নয়, শশাঙ্ক এবং শ্রীলেখা নাকি ‘নোংরামি’ করতে যাচ্ছেন! ঠিক এই ভাষাতেই তাদের বিঁধেছেন জনৈক নেটিজেন। ঘটনার সূত্রপাত হয় যখন নেট মাধ্যমে শ্রীলেখা কফি ডেটের জন্য নির্ধারিত দিনের কথা ঘোষণা করেন। ফেসবুকে অভিনেত্রী লিখেছিলেন, “বুধবার শশাঙ্ক ভাভসরের সঙ্গে আমার কফি ডেটে যাওয়ার দিন ঠিক হয়েছে। কি পোশাকে ডেটে যাওয়া যায়?‌”

Sreelekha Mitra Date

নেটিজেনদের কাছে এই প্রশ্ন রেখেছিলেন তিনি। এই প্রশ্নের জবাবে নেটিজেনদের একাংশ জানিয়েছেন শ্রীলেখাকে শাড়িতেই বেশি আকর্ষণীয় লাগে। তাই সেই পোশাকে যাওয়া ঠিক হবে না। শ্রীলেখা নিজেও মনে করেন, ‘‘বাচ্চা ছেলে। শাড়ি পরে গেলে হয়তো পরিস্থিতি বদলে যাবে। লোকে আমায় ছেলেধরা বলবে!’’ আনন্দবাজার পত্রিকায় একটি সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী জানিয়েছেন, ‘‘আমার খুব ইচ্ছে ড্রেস বা জিন্স-শার্ট পরব। ডেট করব। পোশাকেও যেন সেই আমেজ থাকে।’’

কফি ডেটে গিয়ে এদিনের যাবতীয় খরচ বহন করবেন শ্রীলেখা। কফির সঙ্গে শশাঙ্ক যা খেতে ভালোবাসেন, তাকে তাই খাওয়াবেন তিনি। তবে শ্রীলেখা এবং শশাঙ্কের ডেট প্রসঙ্গে নেট মাধ্যমে কটু কথার বন্যা বয়ে যাচ্ছে। পথপশুদের দত্তক নেওয়ার অছিলায় নোংরামি করছেন শ্রীলেখা এবং শশাঙ্ক! এমন দাবিও উঠেছে। উল্লেখ্য, সম্প্রতি নেট মাধ্যমের শশাঙ্কের সঙ্গে অনলাইন একটি গেম খেলায় অংশ নিয়েছিলেন শ্রীলেখা।

সেই গেমের ফলাফলে দেখা যায় শ্রীলেখা এবং শশাঙ্কের মধ্যে ৫ টি বিষয়ের মিল রয়েছে। সেকথাও নেটিজেনদের আলাদা করে জানিয়েছিলেন শ্রীলেখা। এর পরেই জনৈক নেটিজেনের মন্তব্য, শশাঙ্কের বিয়ের বয়স পেরিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু বিয়ে হচ্ছে না। তাই ডেটে যাচ্ছেন, এ সব খেলা খেলছেন! শশাঙ্ক আবার বামেদের রেড ভলেন্টিয়ার্সের সক্রিয় সদস্য। আবার শ্রীলেখাও আপাদমস্তক বামপন্থী। অতএব ২ বামপন্থীর ডেট নিয়েও শোরগোল উঠেছে সোশ্যাল মাধ্যমে।

নেটিজেনদের এমন মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে অবশ্য চুপ থাকেননি শশাঙ্ক। রুখে দাঁড়িয়ে প্রতিবাদ করে তিনি বলেন, “পথশিশু দত্তক নেওয়ার মতোই ভাল উদ্যোগ পথপশু দত্তক নেওয়া। একে কী ভাবে আপনারা বিভিন্ন মন্তব্যের মাধ্যমে খিল্লি করছেন! এই সাধু উদ্যোগকে বাহবা দেওয়া উচিত সকলের।” শশাঙ্ক মনে করেন, ব্যক্তিগতভাবে কুৎসা না করে বরং পথপশুদের দত্তক নেওয়া অনেক ভালো। এতে সমাজের কাছে সুন্দর বার্তা পৌছায়। সমাজ আরও সুন্দর হয়ে ওঠে।