লাস্যময়ী রূপে উষ্ণতার মায়াজাল বুনে নেটদুনিয়ার নয়া সেনসেশন এই বাঙালি অভিনেত্রী

“চরিত্রহীন” ওয়েব সিরিজে খোলামেলা দৃশ্যে অভিনয় করে তিনি মন কেড়েছে আপামর বাঙালির। খোলামেলা দৃশ্যে অভিনয় করতে গিয়ে তিনি বিন্দুমাত্র দ্বিধা বোধ করেন না তা তিনি আগেই প্রমাণ করে দিয়েছেন। সাহসিকতায় বারবার টেক্কা দিয়েছেন বলিউডের হিরোইন দের।

চরিত্রহীন দিয়েই বাংলায় প্রথম কাজ শুরু। তবে শুধু বাংলা ইন্ডাস্ট্রি নয় দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রি বলিউড দুটোতেই সমানতালে অভিনয় করছেন তিনি।

তবে সেটা যেকোন ইন্ডাস্ট্রি হোক না কেন সাহসী দৃশ্যে সাবলীল অভিনয় করে বারবার আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু হয়েছেন তিনি।

কিভাবে লাইমলাইটে থাকতে হয় খুব ভালো করে জানেন তিনি। সোশ্যাল মিডিয়াকে ব্যবহার করে তাদের মধ্যে উষ্ণতার মায়াজাল ছড়ানোর বিদ্যাও তার করায়ত্ত।

সোশ্যাল মিডিয়ায় উষ্ণ আবেদনময়ী রুপে ছবি আপলোড করে নেটিজেনদের বারবার রাতের ঘুম উড়িয়েছেন তিনি। শরীরি হিল্লোল লাস্যময়ী রূপে যে কোনও পুরুষের রাতের ঘুম উড়িয়ে দিতে পারেন তিনি।

দেখে নিন নেট দুনিয়ার নয়া সেনসেশন নয়না গঙ্গোপাধ্যায় এর শারীরিক উস্নতা মাখানো আবেদনময়ী কয়েকটি ছবি।

২০১৬ সালে রামগোপাল ভার্মার হাত ধরে তেলেগু ছবি “বঙ্গা বেটি” তে অভিনয় জীবনের হাতে খড়ি। তারপর মকরন্দ দেশপান্ডে শর্ট ফিল্ম “মেরি বেটি সানি লিওন বননা চাহতি হে” তে অভিনয়ের সুযোগ মেলে।

শরীরি হিল্লোল লাস্যময়ী রূপে অল্প কয়েকদিনের মধ্যেই নেট দুনিয়ায় ভাইরাল হয়ে যান ন য়না গঙ্গোপাধ্যায়। তার উষ্ণ চাওনি আবেগঘন অঙ্গভঙ্গিতে বুঁদ নেটিজেনরা।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে তিনি জানিয়েছেন রাম গোপাল বর্মা কে নিজের মেন্টর হিসাবে মনে করেন তিনি।

কিছুদিন আগে দক্ষিণী সিনেমার মন মেরা মন ভিডিও গানটিতে সমুদ্র পাড়ে কাল বিকিনিতে শাড়ি হিল্লোল উষ্ণতায় মত্ত হয়েছিলেন এই অভিনেত্রী।