পাশ হলো মোটর ভেহিক্যালস সংশোধনী বিল! নিয়ম ভাঙলে জরিমানা দ্বিগুণের বেশি

বুধবার সংসদে পাস হলো মোটর ভেহিক্যালস সংশোধনী বিল। এই বিল পাস হওয়ার ফলে বহু রদবদল করা হয়েছে ১৯৮৮ সালের মোটর ভেহিক্যালস আইনে। তবে এই বিলের সংশোধনী এই প্রথম লোকসভা ও রাজ্য সভায় পাশ হল। এর আগে ২০১৭ সালে একবার এই বিল লোকসভায় পাস হয়েছিল, কিন্তু তা রাজ্যসভায় গিয়ে হোঁচট খায়। সেসময় রাজ্যসভায় এনডিএ’র সাংসদদের সংখ্যা ছিল সংখ্যালঘু। ফলে সে সময় সেই বিল আইনের পূর্ণতা পায়নি। যা এবার লোকসভা এবং রাজ্যসভা উভয় কক্ষে পাস হওয়ার পর আইনের পূর্ণতা পেতে চলেছে।

govt-to-remove-minimum-educational-qualification-for-driving-license

নতুন এই সংশোধনীর ফলে আগের তুলনায় কয়েকগুন কড়া হতে চলেছে ট্র্যাফিক আইন। শুধু কড়া আইন নয়, পাশাপাশি আইন ভাঙলে জরিমানার পরিমাণও বাড়বে কয়েকগুণ। নতুন আইনে জরিমানার পরিমাণ ৫০০ থেকে ১০০০০ টাকা পর্যন্ত করা হয়েছে।

নতুন আইন অনুযায়ী, ট্র্যাফিকের সাধারণ নিয়ম ভাঙলে জরিমানার পরিমাণ ১০০ টাকা থেকে পাঁচ গুণ বাড়িয়ে করা হয়েছে ৫০০ টাকা।

গাড়ি বা বাইক চালানোর সময় সিটবেল্ট অথবা হেলমেট না পরলে আগে জরিমানা দিতে হতো মাত্র ১০০ টাকা। নতুন আইন অনুযায়ী জরিমানা দিতে হবে আগের তুলনায় ১০ গুণ বেশি অর্থাৎ ১০০০ টাকা।

List of Traffic Rules & Fines (Challans) in India 2019

লাইসেন্স ছাড়া গাড়ি চালানোর ক্ষেত্রেও জরিমানার পরিমাণ বাড়ানো হয়েছে দশ গুণ। যেখানে আগে জরিমানা দিতে হতো ৫০০ টাকা, এখানে এখন গুনতে হবে ৫০০০ টাকা।

নির্ধারিত গতির থেকে বেশি গতিতে অর্থাৎ রাশ ড্রাইভিং করলে জরিমানা গুনতে হবে পাঁচ হাজার টাকা।

গতির নির্দেশ না মানলে ছোট গাড়ি এবং দুই চাকার ক্ষেত্রে জরিমানা গুনতে হবে ১০০০ টাকা, বড় গাড়ির ক্ষেত্রে জরিমানা গুনতে হবে ২০০০ টাকা।

ইমারজেন্সি গাড়িকে রাস্তা না ছাড়ার ক্ষেত্রে নতুন আইন অনুযায়ী জরিমানা গুনতে হবে পাঁচ হাজার টাকা। যে জরিমানা আগে ছিল ১০০০ টাকা। অর্থাৎ এক্ষেত্রেও বাড়ানো হয়েছে পাঁচ গুণ জরিমানার পরিমাণ।

ট্রাফিক আইনে বড়সড় বদল! বিপদে পড়তে না চাইলে অবশ্যই পড়ুন

ফোনে কথা বলতে বলতে গাড়ি চালালে নতুন আইন অনুযায়ী জরিমানা গুনতে হবে পাঁচ হাজার টাকা। পূর্বে যা ছিল ১০০০ টাকা।

যেকোনো বাহনের ক্ষেত্রে ইন্স্যুরেন্সের মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ার পর গাড়ি চালালে জরিমানা গুনতে হবে ২০০ টাকা।

কোন নাবালক গাড়ি চালালে ওই নাবালকের অভিভাবক এবং গাড়ির মালিককে সমান অপরাধী হিসাবে গণ্য করা হবে। এক্ষেত্রে নতুন আইনে ব্যাপক রদবদল করা হয়েছে। এরকম ঘটনা ঘটলে গুনতে হবে ২৫০০০ টাকা পর্যন্ত জরিমানা, পাশাপাশি হতে পারে তিন বছরের জেলও। আবার গাড়ি রেজিস্ট্রেশন বাতিল করাও হতে পারে।