বলিউডের সুযোগ পেয়েও ফিরিয়ে দিয়েছেন প্রস্তাব, আজ পস্তাচ্ছেন শন বন্দ্যোপাধ্যায়

‘মন ফাগুন’ করতে গিয়ে ছেড়েছেণ বলিউডের প্রস্তাব, আজ আফশোষ করছেন ঋষিরাজ

বাংলা টেলিভিশনের (Bengali Telivision) সুপারহিট এবং সুপার হট অভিনেতা বলা যেতে পারে শন ব্যানার্জিকে (Sean Banerjee)। বাংলার মহিলা দর্শকদের হার্টথ্রব। ‘আমি সিরাজের বেগম’, ‘এখানে আকাশ নীল’ থেকে শুরু করে ‘মন ফাগুন’ (Mon Phagun), শন যে কয়টি সিরিয়ালে কাজ করেছেন সব কয়টিই হিট হয়েছে। তবে প্রত্যেকটি সিরিয়ালই জনপ্রিয়তার শিখরে থাকা সত্ত্বেও আচমকা বন্ধ হয়ে গিয়েছে। এবার যেমন বন্ধ হতে বসেছে ‘মন ফাগুন’।

২১ শে আগস্ট ‘মন ফাগুন’ ধারাবাহিকের শেষ সম্প্রচার। এই ধারাবাহিকের পর আর ঋষি এবং পিহুকে একসঙ্গে পাওয়া যাবে না। প্রত্যেক ধারাবাহিক শেষ হয়ে যাওয়ার পর নতুন কাজ খুঁজে নিতে হয় কলাকুশলীদের। তবে শনের হাতে এখন রয়েছে পর পর অনেক কাজের প্রস্তাব। কোনটা ছেড়ে কোনটা বাছবেন বুঝেই উঠতে পারছেন না অভিনেতা।

সম্প্রতি টিভি৯ বাংলার কাছে তিনি এই বিষয়ে মুখ খুলেছিলেন। ধারাবাহিকটি বন্ধ হয়ে যাওয়ার কারণে সকলেরই মন খারাপ। মন খারাপ শনেরও। সেই সঙ্গে রয়েছে ভবিষ্যতের জন্য পরিকল্পনা। শনের কথায়, “নির্দিষ্ট একটি মাধ্যমেই কাজ করতে হবে, এমনটা আমি মনে করি না। অনেক কাজের অফার আসছে। তবে ভাল কাজ করতে চাই।”

সিনেমা, সিরিয়াল, ওয়েব সিরিজ নাকি মিউজিক ভিডিও, কাজের ক্ষেত্রে কোনও তাড়াহুড়ো করতে চান না অভিনেতা। খুব ভেবেচিন্তেই তিনি এবার কাজ বেছে নিতে চাইছেন। কাজ ভাল হলেই তিনি তা করার জন্য রাজি আছেন বলে জানিয়েছেন সাক্ষাৎকারে। তবে আপাতত টেলিভিশনে কাজ করতে করতে তার মধ্যে একঘেয়েমি ভর করেছে। তাই হতে পারে নতুন কোনও প্ল্যাটফর্মে তাকে পেতে পারি আমরা।

শনের কথায়, “ধারাবাহিকে যে ভাবে কাজ হয়, সেটা যথেষ্ট খাটুনির। তবে হ্যাঁ, অন্য মাধ্যমে ভাল কাজের অফার পেলে করতে চাই। একটাই শর্ত, ভাল কিছু করতে চাই। এখনই কথা দিতে পারছি না, টিভির পর্দাতেই ফিরব কি না। বিরাম একেবারেই নিতে চাই না এই মুহূর্তে। যদিও ছোট্ট বিরতি নিচ্ছি। এই মাসের শেষেই একটা অল্প দিনের ইন্টারন্যাশনাল ট্যুর করব। তারপর আবার কাজে ফিরব।”

Pihu and Rishi will get to know each other New twist on Mon Phagun

সেই সঙ্গে তিনি তার এক আফসোসের কথাও তুলে ধরেছেন। তিনি জানান ‘মন ফাগুন’ ধারাবাহিকে কাজ করতে করতে মুম্বাই থেকে অফার পেয়েছিলেন তিনি। তবে সিরিয়ালে কাজ করার জন্য ধারাবাহিকতা থাকে, তাই সব বন্ধ করে অন্য জায়গাতে কাজ করতে যাওয়া যায় না। ডেট নিয়ে সমস্যার কারণে তাকে মুম্বাইয়ের অফার ছাড়তে হয়। এই নিয়ে অল্প বিস্তর আক্ষেপ রয়ে গিয়েছে তার মনে।