বিশ্বের সর্বোচ্চ স্ট্যাচুর কারিগর কে চেনেন? আলাপ করুন ৯৩ বছর বয়সী শিল্পীর সঙ্গে

গুজরাটের সর্দার সরোবর বাঁধ থেকে ৩ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত ১৮২ মিটার উঁচু সর্দার বল্লভভাই প্যাটেলের মূর্তির উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ইতিমধ্যেই এই মূর্তি নিয়ে শুরু হয়েছে নানা জল্পনা কল্পনা। কিন্তু আমরা ক’জন জানি এই মূর্তি যার হাতে তৈরি সেই মানুষটিকে?

বিশ্বের সর্বোচ্চ স্ট্যাচুর কারিগর কে চেনেন? আলাপ করুন ৯৩ বছর বয়সী শিল্পীর সঙ্গে

লৌহমানবের এই মূর্তি তৈরির কারিগর পদ্ম-পুরস্কারে ভূষিত শিল্পী ৯৩ বছর বয়সী রামবন সুতার। প্রায় সাত দশক ধরে স্থাপত্য শিল্পের সঙ্গে যুক্ত তিনি। বানিয়েছেন ৫০ টির বেশী মনুমেন্টাল স্কাল্পচার। ১৯৯৯ সালে পদ্মশ্রী পুরস্কার ছাড়াও ২০১৬ সালে পদ্মভূষণ এবং টেগোর সম্মানেও তাঁকে ভূষিত করে সরকার।

বিশ্বের সর্বোচ্চ স্ট্যাচুর কারিগর কে চেনেন? আলাপ করুন ৯৩ বছর বয়সী শিল্পীর সঙ্গে

১৯২৫ সালে মহারাষ্ট্রের ধুলিয়া জেলার গোন্ডুরে জন্মগ্রহণ করেন রামবন সুতার। তাঁর পিতা ছিলেন ছুতোর। ছেলেবেলা থেকেই রাস্তার নুড়ি-পাথর কুড়িয়ে তা দিয়ে ভাস্কর্য বানাতেন সুতার। মন না বসায় ক্লাস ফাইভ অবধি পড়েই পড়াশোনায় ইতি টানেন তিনি। এক রাতে স্বপ্নে দেখেন, একটি সোনার চড়াই পাখি শিল্পের প্রতি নিজের আবেগকে অনুসরণ করতে বলছে তাঁকে। এই স্বপ্নই যেন ভাগ্য ঠিক করে দিল সুতারের। ঠিক করে নিলেন, নিজের শিল্পের প্রতি সৎ থাকবেন আজীবন। ব্যস, সব ছেড়েছুড়ে চলে এলেন মুম্বই শহরে। যে কাজ পেলেন তাই করলেন। লক্ষ্য জেজে স্কুল অফ আর্টসে ভর্তি হওয়া। হলেনও। এরপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি কোনওদিন। পেয়েছেন শুধুই সাফল্য। তবে স্থাপত্যশিল্পকে পেশা হিসাবে নেওয়ার আগে বেশ কিছুদিন কাজ করেছেন মুম্বইয়ের তথ্যসম্প্রচার মন্ত্রকে।

বিশ্বের সর্বোচ্চ স্ট্যাচুর কারিগর কে চেনেন? আলাপ করুন ৯৩ বছর বয়সী শিল্পীর সঙ্গে

রামবন সুতারের স্থাপত্য শিল্পের গুণমুগ্ধ ভক্ত ছিলেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহেরু। গত সাত দশকে ভারত ছাড়াও রাশিয়া, ইংল্যান্ড, মালেয়াশিয়া, ফ্রান্স এবং ইতালিতে বসেছে তাঁর তৈরি মূর্তি ও স্থাপত্য। বল্লভভাই প্যাটেলের মূর্তির পর এবার ভারতীয় সেনা বাহিনীর যুদ্ধের স্মৃতিতে একটি স্থাপত্য তৈরি করছেন সুতার।

আরো পড়ুন : স্ট্যাচু অফ ইউনিটি সম্পর্কে ১০টি অজানা তথ্য

বিশ্বের সর্বোচ্চ স্ট্যাচুর কারিগর কে চেনেন? আলাপ করুন ৯৩ বছর বয়সী শিল্পীর সঙ্গে

এই ৯৩ বছর বয়সেও ছেলের সঙ্গে স্টুডিওর কাজে হাত লাগান রামবন সুতার। বল্লভভাই প্যাটেলের দশাসই মূর্তির সামনে নতজানু হওয়ার পাশাপাশি ‘ইচরেপাকা’ সেই মূর্তি তৈরির কারিগর রামবন সুতারের প্রতি জানাচ্ছে বিনম্র শ্রদ্ধা।