‘সখের দাম লাখ টাকা’, চার চাকা ছেড়ে বাইকে চেপে বাড়িতে এলো বউ

সেকালের পালকিতে নয় বা একালের চারচাকা গাড়িতে নয়, এবার বিয়ে করার পর নতুন বউকে নিয়ে মোটরবাইকে চাপিয়ে বাড়িতে হাজির এক যুবক। আর বাড়ির লোকজন নববধূকে মোটরবাইকে বসা অবস্থায় বধূবরণ করলেন।

বীরভূমের সিউড়ি শহরের বারুইপাড়ার যুবক প্রতীক কর্মকারের সঙ্গে সেহরা পাড়ার প্রত্যুষা সাহার গত বুধবার রাতে বিয়ে হয়। প্রতীক স্টেট ব্যাঙ্ক কলকাতায় কর্মরত এবং প্রত্যুষা ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার সিউড়ি শাখায় কর্মরত। তাদের বিয়ের অনুষ্ঠান ছিল লিজ ক্লাবে। বৃহস্পতিবার সকালে প্রতীক তার নববধূ প্রত্যুষাকে নিয়ে বাড়িতে হাজির হন মোটর বাইকে চেপে। গাড়িতে চাপা অবস্থাতে প্রতীকের বাড়ির মহিলারা রীতি রেওয়াজ মেনে দম্পতিকে বরণ করলেন। বাইকে বসেই নতুন বউয়ের হাতে নোয়া পড়িয়ে দিলেন প্রতীক। সেখানে বসেই ছবি তোলার জন্য পোজও দিলেন তারা। সমস্ত মাঙ্গলিক অনুষ্ঠান শেষের পর তারা বাড়ীতে ঢুকলেন।

মোটরবাইকে চাপিয়ে সদ্য বিয়ে করা বউকে বাড়িতে নিয়ে আসার কারন হিসাবে প্রতীক জানায়, “বিয়ের বিশেষ মুহূর্তকে স্মৃতি মধুর করে তোলার জন্য অনেকেই অনেক কিছু করে থাকেন। আর আমাদের দুজনের সখ ছিল মোটরবাইকে চেপেই বিয়ে করে বাড়িতে প্রবেশ করার। আজ সখ ও ভাবা মাত্রই কাজ।”