কাল মকর সংক্রান্তি, জেনে নিন কী করবেন আর কী ভুলেও করবেন না

হিন্দুদের একটি পবিত্র তিথি হলো মকর সংক্রান্তি। এটিকে পৌষ পার্বণ ও বলা হয়।বছরে ১২ টিসংক্রান্তির মধ্যে মেষ ,কর্কট, তুলা সংক্রান্তি ছাড়াও মকর সংক্রান্তি ও বেশ গুরুত্বপূর্ণ। এই সময় দক্ষিণায়নের সমাপ্ত হয়ে উত্তরায়নের সূচনা হয়। শাস্ত্রে বলা হয় যে,মকর সংক্রান্তির দিন যজ্ঞের আহুতি গ্রহণের জন্য দেবতারা মর্ত্যে আসেন। তাই এই দিনের বিশেষ গুরুত্ব আছে আর এই দিনে কিছু বিধি অবশ্যপালনীয় আছে, সেগুলি কী কী তাই নিম্নে আলোচনা করা হল।

মকর সংক্রান্তি কাকে বলে?

মকর সংক্রান্তির দিন সূর্যদেব নিজের কক্ষপথে মকর রাশিতে প্রবেশ করেন, তাই একে মকর সংক্রান্তি বলে। মকর সংক্রান্তি শুরু হলেই বছরের যাবতীয় উৎসব যেমন বিবাহ, গৃহপ্রবেশ ইত্যাদি শুরু হয়ে যায়। আগামী ১৪ জানুয়ারী ২০২১ বৃহস্পতিবার মকর সংক্রান্তি।

মকর সংক্রান্তি তারিখ?

মকর সংক্রান্তির দিন পূণ্যকালের সময়-সকাল ৮ টা ৩০ মিনিট থেকে বিকেল ৫ টা ৪৬ মিনিট পর্যন্ত। মকর সংক্রান্তির পূন্য কাল  ৯ ঘন্টা ১৬ মিনিট। মকর সংক্রান্তির মহাপূণ্য কাল হচ্ছে-সকাল ৮ টা ৩০ মিনিট থেকে সকাল ১০ টা ১৫ মিনিট অবধি।

মকর সংক্রান্তি কেন পালন করা হয়?

মকর সংক্রান্তি থেকেই যেহেতু সূর্যের উত্তরায়ন শুরু হয়, তাই এই দিনটি বসন্ত ঋতুকে স্বাগত জানানোর দিন হিসেবে পালন করা হয়। মকর সংক্রান্তি থেকে শুরু হয়ে পরবর্তী ছয় মাস ধরে চলে সূর্যের উত্তরায়ন। তারপর শুরু হবে সূর্যের দক্ষিণায়ন। উত্তরায়নে উত্তর গোলার্ধের কাছাকাছি আসে সূর্য।

মকর সংক্রান্তির মূল প্রথা হল গঙ্গাস্নান, অন্নদান এবং মকর সংক্রান্তি উপলক্ষ্যে বিশেষ খাবার দাবার তৈরি করা। আমাদের রাজ্যে এই দিন নানা ধরনের পিঠে ও পায়েস তৈরির প্রথা রয়েছে। অন্য রাজ্যগুলির কোথাও দইচুড়া, কোথাও খিচুড়ি এবং কোথাও গুড় বা তিলের মিষ্টি তৈরি করা হয়ে থাকে।

মকর সংক্রান্তির গুরুত্ব

শাস্ত্র মতে দক্ষিণায়নের ৬ মাস দেবতাদের রাত ও  উত্তরায়ণের ৬ মাস দেবতাদের দিন হিসেবে ধরা হয়। তাই উত্তরায়ন কে শুভ প্রকাশ স্বরূপ বলা হয় আর অন্যদিকে  দক্ষিণায়নকে অন্ধকার ও অশুভের প্রতীক বলে মনে করা হয়। তাই উত্তরায়নের যেকোনো শুভকার্য করা চলে। কথিত আছে যে যশোদা মকর সংক্রান্তির দিন উপবাস রেখেই ভগবান কৃষ্ণ কে সন্তানরূপে পেয়েছিলেন। গীতায় বলা হয়েছে যে উত্তরায়নের সময় দেহ ত্যাগ করলে ব্যক্তির আর পুনর্জন্ম হয় না।অন্যদিকে দক্ষিণায়নের সময় দেহ ত্যাগ করলে ব্যক্তি কে আবার জন্ম গ্রহণ করতে হয়।

মকর সংক্রান্তির দিন যেহেতু দেবতারা  মর্ত্যে নেমে আসেন তাই মকর সংক্রান্তির দিন যদি কেউ দেহত্যাগ করেন তিনি স্বর্গলোকে প্রবেশ করেন। মহাভারতে পিতামহ ভীষ্ম যুদ্ধ শেষ হওয়ার পর বাণবিদ্ধ অবস্থাতেও দেহত্যাগ করেন নি, কারণ তখন দক্ষিণায়ণ চলছিল। তার ইচ্ছামৃত্যুর বর থাকায় তিনি সিদ্ধান্ত নেন যে উত্তরায়ণের মকর সংক্রান্তির দিন দেহ ত্যাগ করবেন। আর তিনি এমনটাই করেছিলেন। মকর সংক্রান্তির দিন সূর্যদেব শনিদেবের সঙ্গে দেখা করতে আসেন।তাই এই দিন সূর্যদেবের প্রভাবে শনি দুর্বল হয়ে পড়ায় মকর সংক্রান্তির দিন শনি জনিত সকল দোষ দূর হয়।

মকর সংক্রান্তির দিন কী কী করা উচিত

শাস্ত্রমতে মকর সংক্রান্তির দিন দুঃখী ও দরিদ্র  মানুষকে দান করতে‌ হয়। এতে অক্ষয় পূণ্য লাভ হয়। কথিত আছে যে মকর সংক্রান্তির দিন গঙ্গা স্নান করলে জীবনের সকল পাপ ক্ষয় হয়। শাস্ত্র মতে এই দিন ই বিষ্ণুর বৃদ্ধাঙ্গুষ্ঠ থেকে গঙ্গা সাগরে মিশে যান। তাই এই দিন গঙ্গায় ও গঙ্গাসাগরে স্নান করতে যান মানুষ।

এইদিন সূর্যদেবের আরাধনা করা উচিত। মকর সংক্রান্তির দিন সূর্যকে লাল বস্ত্র, গম, গুড়, মসুর ডাল, তামা,সোনা ,সুপুরি, লালফুল, নারকেল ইত্যাদি অর্পণ করা উচিত। মকর সংক্রান্তির দিন যেহেতু সূর্যের উত্তরায়ন শুরু হয় তাই এই দিন ধ্যান, জপ করার অধিক গুরুত্ব রয়েছে। এইদিন অতি অবশ্যই নিরামিষভোজন করা উচিত। এই দিন প্রবীণ ব্যক্তিদের সম্মান করা উচিত। কারো সাথে ঝগড়া বিবাদে জড়ানো উচিত নয়।

মকর সংক্রান্তির দিন কী কী করা উচিত নয়

মকর সংক্রান্তির দিনে মহিলারা চুলে শ্যাম্পু করবেন না। পাশাপাশি পুণ্যকালে দাঁত পরিষ্কার করতে নেই। গাছ কাটাও এ সময় নিষিদ্ধ। সংক্রান্তির দিনে সিগারেট, মদ ইত্যাদি সেবন থেকে দূরে থাকুন। এ ছাড়া মশলাদার খাবারও খাবেন না। এ দিন গোরু বা মোষের দুধ দোয়া অনুচিত। সংক্রান্তিতে ভুলেও রসুন, পেঁয়াজ বা মাছ, মাংস খাওয়া উচিত নয়।

আরও পড়ুন : মকর সংক্রান্তির দিন মহিলারা ভুলেও এই কাজগুলি করবেন না

এদিন ভাষায় নিয়ন্ত্রণ রাখুন। অশ্রাব্য ভাষার ব্যবহার এড়িয়ে চলুন। রাগ করবেন না। সংক্রান্তির দিনে স্নানের আগে চা পান করবেন না বা কিছু খাবেন না। এদিন যদি বাড়িতে কোনও ভিখিরি, সাধু, সন্ন্যাসী বা বয়স্ক আসেন, তা হলে তাঁদের খালি হাতে ফেরানো উচিত নয়। নিজের সামর্থ্য অনুযায়ী দান করুন। তিলের কোনও বস্তু থাকলে অবশ্যই দান করবেন। এদিন স্নানের পর লোহা, স্টিল বা প্লাস্টিকের পাত্রে সূর্যকে জলের অর্ঘ্য দেবেন না। নোংরা জামা-কাপড় পরবেন না। নতুন বা পরিষ্কার বস্ত্র পরিধান করুন। মকর সংক্রান্তিতে তুলসী পাতা ভাঙতে নেই।