ভার্জিন হলে তবেই মিলবে কাজ! বলিউডের নোংরা দিক প্রকাশ্যে আনলেন মহিমা চৌধুরী

কেরিয়ারের শুরুতেই শাহরুখ খানের মতো অভিনেতার বিপরীতে অভিনয় করার সুযোগ ক’জনেরই বা হয়? মহিমা চৌধুরীর (Mahima Chaudhary) সেই সুযোগ হয়েছিল। সুভাষ ঘাইয়ের মতো পরিচালকের পরিচালনায় শাহরুখ খানের বিপরীতে ‘পরদেশ’ (Pardesh) ছবিতে অভিনয় করে নিজের কেরিয়ার শুরু করেছিলেন মহিমা। প্রথম ছবি ব্লকবাস্টার হিট হওয়ার পর বলিউডের (Bollywood) দরজা তার জন্য খুলে গিয়েছিল।

প্রথম ছবির পর একের পর এক ছবিতে অভিনয় করেছেন মহিমা চৌধুরী। তবে একটা সময় পর বলিউড থেকে কার্যত হারিয়েই যান তিনি। বলিউডের বিরুদ্ধে একরাশ ক্ষোভ নিজের মনে পুষে রেখেছেন মহিমা। বলিউডের সেকাল-একাল, তুলনা করতে গিয়ে তিনি হিন্দুস্থান টাইমসের কাছে অভিনেত্রীদের প্রতি বলিউডের মনোভাব নিয়ে বেশ কিছু তথ্য তুলে ধরেছেন তিনি। তার সময়কালে অভিনেত্রী দের প্রতি কিভাবে বৈষম্য করা হতো তাও ফাঁস করেছেন মহিমা।

মহিমা বলেন, “আমার মনে হয় ইন্ডাস্ট্রি এখন সেই লেভেলে চলে যাচ্ছে, যেখানে ফিমেল অ্যাকটার্স সমান এবং ভালো সুযোগ দেওয়া হচ্ছে। তাদের ভালো চরিত্র, ভালো পেমেন্ট, এনডোর্সমেন্ট দেওয়া হচ্ছে এবং তারা ভালো পাওয়ারফুল পজিশনে থাকছেন। তাদের কাছে আগের চেয়ে অনেক ভালো এবং লম্বা ক্যারিয়ার তৈরি হচ্ছে”। তবে বলিউডের এই বদলে মহিমা ভীষণ খুশি। এখন মহিলাদের জন্য বিভিন্ন আলাদা আলাদা রোলের ব্যবস্থা রয়েছে।

তবে মহিমা বলেন, তিনি যখন ডেবিউ করেন তখন তিনি এমন সাপোর্ট পাননি যেমনটা এখনকার অভিনেত্রীরা পেয়ে থাকেন। আগে অভিনেত্রীদের নিজেদের ব্যক্তিগত জীবন লুকিয়ে রাখতে হতো। তবে এখন সেসবের বালাই নেই। সে সময় কোনও অভিনেত্রী কারোর সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছেন এমনটা জানতে পারলেই তাকে সিনেমা থেকে বের করে দেওয়া হতো। কারণ তাদের শুধু ভার্জিন মহিলা নায়িকাই প্রয়োজন ছিল!

শুধু পরিচালক বলে নয়, দর্শকও তখন এমন নায়িকা চাইতেন যারা ব্যক্তিগত জীবনে একটা চুম্বন পর্যন্ত করেননি! তাই সেই সময় যদি নায়িকারা কারোর সঙ্গে সম্পর্কে জড়াতেন কিংবা কাউকে নিয়ে মার্কেটে যেতেন তাহলেই সকলে আঙ্গুল তুলে বলতো, “ওহ শী ইজ ডেটিং!” আর বিয়ে হলে তো কথাই নেই। নায়িকার চরিত্র থেকে ক্রমশ পার্শ্ব চরিত্রে চলে যেতে হতো অভিনেত্রীদের। সেখানেই কেরিয়ার শেষ। বদলে অন্য কিছু ভাবতে হতো। আর এই অবস্থায় যদি বাচ্চা হয়ে যায় তাহলে তো নায়িকাদের কেরিয়ার পুরোপুরি চৌপাট! তবে একা মহিলা নন, ঠিক এই কারণে বহু নায়কদেরও নিজেদের ব্যক্তিগত জীবন লুকিয়ে রাখতে হতো।

আরও পড়ুন : রূপ ও সৌন্দর্যে মাকেও ছাপিয়ে গেল মহিমার মেয়ে, গুণে গুণে মাকে দেবে ১০ গোল

উল্লেখ্য বলিউডের এই সুন্দরী অভিনেত্রী ২০০৬ সালে ববি মুখার্জিকে বিয়ে করেন। ২০০৭ সালে তাদের মেয়ে আরিয়ানার জন্ম হয়। যদিও বিয়ের কয়েক বছরের মধ্যেই মহিমা এবং ববির ডিভোর্স হয়ে যায়। বর্তমানে মেয়েকে নিয়ে সিঙ্গেল জীবন যাপন করছেন মহিমা। বলিউডের সঙ্গে তার সংযোগ বহু আগেই বিচ্ছিন্ন হয়েছে।