রাজনীতি ছেড়ে অভিনয়! টলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে ঝড় তুলতে আসছেন মদন মিত্র

রাজনীতি ছেড়ে অন্য পেশায় নামলেন মদন মিত্র, নিজের মুখেই দিলেন সুখবর

শুধু রাজনীতি নয়, কামারহাটির কালারফুল সাংসদ মদন মিত্রের (Madan Mitra) কদর বাড়ছে টলিউডে। বিনোদনের দুনিয়ায় এন্টারটেইনমেন্ট আনলিমিটেড মদন মিত্র। সোশ্যাল মিডিয়া হোক বা সিনে ক্যামেরা, মদন মিত্রকে ক্যামেরাবন্দি করতে সব সময় মুখিয়েই থাকে মিডিয়া। আজ ফেসবুক, ইউটিউবে মদন মিত্রের জয়জয়কার। কালারফুল ইমেজের টানে টলিউডও (Tollywood) ঘুরঘুর করছে মদন মিত্রের পেছনে।

সদ্য ‘দিদি নাম্বার ওয়ান’ এর সেটে সস্ত্রীক পৌঁছে গিয়েছিলেন মদন মিত্র। মঙ্গলবার সম্প্রচারিত হলো সেই বিশেষ পর্ব। আবার মঙ্গলবারই টলিউড নায়িকা রিমঝিম মিত্রের বাড়িতে নিমন্ত্রণ রক্ষা করেছেন কামারহাটির বিধায়ক। দুজনেরই রাজনৈতিক মতাদর্শ আলাদা। ভোট মরসুমে দলবদলের আভাসও মিলছে। যদিও মদন মিত্র তার এবং রিমঝিমের সম্পর্কের মাঝে রাজনীতিকে টেনে আনতে চাননি। আনন্দবাজার অনলাইনের কাছে তার দাবি, রিমঝিম এমনিই তাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন।

কখনও তাকে দেখা যায় দেবের আসন্ন ছবি ‘টনিক’ এর প্রচারে, ‘ভাই’ দেবের হয়ে প্রচার করতে। ছবির প্রচারে কালোর উপর সোনালী সুতোর জমাট কাজের পাঞ্জাবি পরে ছবির একটি গানের দু’কলি গেয়েও শুনিয়েছেন মদন মিত্র। সঙ্গে ২০২০-২০২১ এর জোড়া বড়দিন সেলিব্রেশনে সবাইকে প্রেক্ষাগৃহে উপস্থিত থাকার আবেদন জানিয়েছেন তিনি। এছাড়াও তাকে আবার দেখা যায় টলিউড অভিনেত্রী নুসরাত জাহানের টক শো’তে। সেখানে গিয়ে নতুন প্রজন্মকে প্রেমের বার্তা দেন তিনি।

 

View this post on Instagram

 

A post shared by Dev Adhikari (@imdevadhikari)

সমাজের কাছে ভালো-মন্দ তুলে ধরতে হলে আগ্রাসী হতে হয়। নুসরাতের মধ্যে সেই গুণ পেয়েছেন মদন মিত্র। তাই তিনি তার শো’তে উপস্থিত হয়েছিলেন। আনন্দবাজারকে জানিয়েছেন কামারহাটির বিধায়ক। চারিদিকে যার এত চাহিদা তিনি কি আর ক্যামেরা থেকে দূরে থাকতে পারেন? এই চাহিদা অনুধাবন করে টলিউড মদন মিত্রের উপর জোড়া বায়োপিক বানাচ্ছে বলে খবর। কিন্তু মুশকিল একটাই। মদন মিত্রের চরিত্রের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ অভিনেতা পাওয়া যাচ্ছে না! আবার মদনদা নিজেও নিজের বায়োপিকে অভিনয় করবেন না। তাই খোঁজ চলছে।

তাহলে কি সাধারণে মদন মিত্রকে ক্যামেরার সামনে দেখতে পাবেন না? নিশ্চয়ই পাবেন। আশ্বাস যোগালেন কামারহাটির কালারফুল সাংসদ। তবে একটু অন্যরকমভাবে। সরাসরি ছবিতে নয়, মডেলিংয়ের র‍্যাম্পে হেঁটে এবার সোশ্যাল মিডিয়া মাতাবেন মদন মিত্র। তার কথায়, ‘‘ফ্লিপকার্ট থেকে স্লিপ কার্ট- সবেতেই হয়তো দেখা যাবে আমায়। কথাবার্তা সে রকমই হয়েছে। আমি চাই, কম পয়সা ভাল জিনিস সাধারণের ঘরে ঘরে পৌঁছে দিতে। তাই এই পদক্ষেপ।’’

বয়সে বড় দিদিদের সঙ্গে আলাপ করতে বন্ধুত্ব করতে বড়ই ভালোবাসেন মদন মিত্র। ছোট থেকেই দিদিদের বড় আপনার জন তিনি। ‘‘দিদিদের আমি খুবই ভালবাসি। তাই দিদি নং ১-এ এসেছিলাম। সমস্ত দিদিদের দেখলাম। মনটা ভাল হয়ে গেল!’’ তিনি আরও বলেছেন, আনন্দবাজারকে তিনি আরও বলেছেন, ‘‘দিদি-দের ভালবাসার নমুনা শুনবেন? একটি ফ্যাশন শো এবং মডেলিং প্রতিযোগিতার অন্যতম বিচারক আমি। বিখ্যাত ডিজাইনার এবং রূপসজ্জা শিল্পী নিজে আমায় আমন্ত্রণ জানিয়েছেন।’’