৬ মাসের অন্তঃসত্ত্বা মুসলিম মেয়েকে বিয়ে করেন সঞ্জয়, আজ সেই স্ত্রীর কথায় উঠেন-বসেন সঞ্জয় দত্ত

নানা নাটকীয়তায় ভরা বলিউডের সুপারস্টার সঞ্জয় দত্তের জীবন। সঞ্জয় নাকি স্ত্রীর সব কথা শোনেন এবং মেনে চলেন। যে গুণবতী এ ‘অসাধ্য সাধন’ করেছেন, তিনি হলেন মান্যতা দত্ত, সঞ্জয়ের তৃতীয় স্ত্রী।

Love story of Sanjay Dutt and Manyata Dutt

আজ বলিউডের (Bollywood) সুখী দম্পতিদের মধ্যে অন্যতম হলেন সঞ্জয় দত্ত (Sanjay Dutt) এবং মান্যতা দত্ত (Manyata Dutt)। দুই সন্তান নিয়ে সুখে সংসার করছেন তারা। প্রথম দুই অসুখী এবং অসম্পূর্ণ বিবাহের পর সঞ্জয়ের জীবনে মান্যতা এলেন নতুন বসন্ত নিয়ে। যদিও প্রথমে এই সম্পর্ক মেনে নিতে নারাজ ছিল বলিউডের দত্ত পরিবার। এমনকি বিয়ের পরেও এমন একটি বিষয় প্রকাশ্যে আসে যা ভেঙে দিতে পারতো সঞ্জয়-মান্যতার সম্পর্ক।

মান্যতা দত্ত যখন বলিউডে নিজের কেরিয়ার গড়ে তুলেছিলেন তখন তাকে সেভাবে চিনতো না কেউ। তার আসল নাম দিলনওয়াজ শেখ। মুম্বাইয়ের এক মুসলিম পরিবারে জন্ম হলেও তার ছোটবেলা কেটেছে দুবাইতে। এরপর তিনি বলিউডে ভাগ্য পরীক্ষা করতে আসেন। বলিউডের একটি আইটেম গানে নাচ করে তার কেরিয়ার শুরু হয়। তবে প্রথম দিকে বলিউডে সেভাবে থই পাচ্ছিলেন না তিনি। তেমন কোনও ভালো ছবির প্রস্তাবও পাচ্ছিলেন না। শেষমেষ একটা বি-গ্রেড ছবিতে অভিনয়ের সুযোগ পান। নিতান্তই বাধ্য হয়ে সেই ছবির জন্য হ্যাঁ বলেন মান্যতা।

আসলে সেই সময় মান্যতার বাবা মারা গিয়েছিলেন। পুরো পরিবারের দায়িত্ব ছিল তার উপর। তাই ভালোমন্দ জ্ঞান না করেই তিনি বি-গ্রেড ছবিতে অভিনয় করেন। তবে এই ছবির প্রযোজকের মাধ্যমে তার আলাপ হয় সঞ্জয় দত্তের সঙ্গে। সেই সময় দুজনেই ব্যক্তিগত সমস্যায় জড়িয়েছিলেন। রিয়া পিল্লাইয়ের সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদের মামলা নিয়ে ভুগছিলেন সঞ্জয় দত্ত।

মান্যতার সঙ্গে সঞ্জয়ের সম্পর্ক ধীরে ধীরে গড়তে শুরু করে। পরিবারের আপত্তি সত্ত্বেও শেষমেষ ২০০৮ সালে মান্যতাকেই বিয়ে করেন সঞ্জয় দত্ত। তবে আসল সমস্যা দেখা দেয় বিয়ের পরেই। কোথা থেকে রেহমান নামের এক ব্যক্তি এসে নিজেকে মান্যতার স্বামী বলে দাবি করতে থাকেন। সঞ্জয় এবং মান্যতার বিয়ে বেআইনি বলে দাবি করতে থাকেন তিনি। এমনকি তিনি মান্যতাকে তার সন্তানের মা বলেও দাবি করেছিলেন!

মান্যতার ‘প্রাক্তন স্বামী’ দাবি করেন, মান্যতা সঞ্জয়কে বিয়ে করার সময় নাকি ছয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন! বিষয়টি আদালতের দোরগোড়ায় পর্যন্ত পৌঁছায়। তবে এই সময় কিন্তু সঞ্জয় দত্ত তার স্ত্রীর পাশেই ছিলেন। স্ত্রীর প্রতি তার বিশ্বাস ছিল অটুট। পরবর্তীকালে জানা যায় ওই ব্যক্তি আসলে মিথ্যা তথ্য দিয়ে এমনভাবে বহু অভিনেত্রীকে ফাঁসানোর চেষ্টা করেছেন। আদালতের কাছে তার মিথ্যা ধরা পড়ে যায়।

এরপর সঞ্জয় এবং মান্যতার জীবনে আর কোনও সমস্যা আসে নি। সঞ্জয়ের স্ত্রী হিসেবে মান্যতা খুব তাড়াতাড়িই তার স্বামীর অনিয়ন্ত্রিত জীবন নিয়ন্ত্রণে আনেন। সঞ্জয় যাতে বন্ধু-বান্ধবদের সঙ্গে মেলামেশা করে তাদের উপর বেশি টাকা না খরচ করেন, সেদিকে কড়া দৃষ্টি রাখতে শুরু করেন মান্যতা। সঞ্জয় দত্ত কখন কী খাবেন, কী পড়বেন তাও ঠিক করে দেন মান্যতা।

SANJAY DUTTA MANYATA DUTTA

দেখতে দেখতে সময় পেরিয়েছে। সঞ্জয় দত্তের দুই যমজ সন্তানের মা হয়েছেন মান্যতা। সঞ্জয়ও মান্যতাকে বলিউডের তারকা করে তোলার জন্য কিছু কম চেষ্টা করেননি। যদিও বলিউডে সেভাবে কেরিয়ার গড়তে পারেননি তিনি। মান্যতা বরাবর দত্ত পরিবারের যোগ্য বৌমা হওয়ার চেষ্টা চালিয়ে গিয়েছেন। তবুও আজ পরিবারের অনেক সদস্যই তাকে ঠিক ভাবে গ্রহন করতে পারেননি।