৩১ জুলাই পর্যন্ত ফের লকডাউন জারি হল এই ৪ রাজ্যে

4455

দেশজুড়ে ক্রমাগত বেড়েই চলেছে কোরোনা ভাইরাস আক্রান্তদের সংখ্যা। প্রতি দিনই আক্রান্তদের সংখ্যা রেকর্ড ভাঙছে। দেশে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫ লাখের গণ্ডি পেরিয়ে গেছে। তবে শুধু আক্রান্তের সংখ্যা নয়, দেশজুড়ে মৃতের সংখ্যাও বাড়ছে লাফিয়ে লাফিয়ে। দেশে ১৫,০০০ এরও বেশী মানুষের প্রাণ নিয়েছে এই মারণ ভাইরাস।

অন্যদিকে দেশজুড়ে আনলক পর্ব শুরু করেছে কেন্দ্র। কিন্তু কোরোনা ভাইরাসের বেড়ে চলা পরিসংখ্যান নজরে রেখে ৩১শে জুলাই পর্যন্ত লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিল দেশের ৪ রাজ্য। শুধু রাজ্যে নয় মহারাষ্ট্র ও দিল্লির মতন রাজ্যের কিছু অতি সংক্রমিত জেলায়ও কড়া ভাবে লকডাউন ঘোষণা হয়। একনজরে দেখে নেওয়া যাক কোন কোন রাজ্যে ৩১ জুলাই পর্যন্ত লকডাউন  কার্যকর করা হয়েছে।

১. তামিলনাড়ু :- রাজ্যে আক্রান্তদের মোট সংখ্যা ৭৪,৬২২ জন। গত শুক্রবার মাত্র একদিনে এই রাজ্যে আক্রান্ত হন ৩, ৬৪৫ জন। তারপরই গত সপ্তাহে এই রাজ্যের সরকার চেন্নাই সহ চারটি জেলাকে সম্পূর্ণ বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছিল। রবিবার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় সম্পূর্ণ রাজ্যকে পুরোপুরি বন্ধ করে দেওয়া হবে আগামী ৩১জুলাই পর্যন্ত।

২. অসম :-  এই রাজ্যে বেড়ে চলা আক্রান্তের সংখ্যা কথা মাথায় রেখে রাজ্য সরকার আগেই রাজ্য জুড়ে ১২ ঘণ্টার কার্ফু ঘোষণা করেছিল। এই রাজ্যের কামরূপ শহরে ২৮ জুন থেকে ১৪ দিন কড়া ভাবে লক ডাউন পালন করা হবে। রাজ্য মন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা জানান প্রথম সাতদিন অর্থাৎ এক সপ্তাহ কোনো মুদির দোকানও খুলবেনা রাজ্যে এমনকি হবেনা কোনও সবজির সরবরাহ। রাজ্য সরকার সূত্রে খবর পাওয়া যাচ্ছে ২৭ তারিখ সম্পূর্ণ শহরে লক ডাউন ঘোষণা করতে পারে রাজ্য সরকার।

৩. ঝাড়খণ্ড :- ঝাড়খণ্ড রাজ্যে কোরোনা পরিস্থিতি সেরকম ভয়াবহ নয় তবে সতর্কতা অবলম্বন করেই রাজ্য সরকার আগামী ৩১ জুলাই পর্যন্ত রাজ্যে সম্পূর্ণ লকড়াউন দিয়েছে। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন রাজ্যবাসীর উদ্দেশ্যে টুইট করে এই কথা জানান যে, পরিস্থিতির গুরুত্ব বুঝে আগামী ৩১ জুলাই পর্যন্ত সম্পূর্ণ রাজ্যে লক ডাউনচলবে।

৪. পশ্চিমবঙ্গ :- বাংলায় এখনও পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ১৬,৭০০ ছাড়িয়ে গেছে। রোজই লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। সেই কারণেই পরিস্থিতির গুরুত্ব বুঝে বৃহস্পতিবার নবান্নে একটি সর্বদলীয় বৈঠকের আহ্বান করেন যেখানে ঠিক হয় যে আগামী ৩১ জুলাই পর্যন্ত রাজ্যে চলবে লকডাউন।