‘কাঁচা বাদাম গান নয় হুজুগ’, মুখ খুলেই বাদাম কাকুকে ধুয়ে দিলেন কুমার শানু

‘কাঁচা বাদাম একটা হুজুগ, কোনও গান নয়’, বাদাম কাকুকে ধুয়ে দিলেন কুমার শানু

‘কাঁচা বাদাম’ (Kacha Badam) গায়ক ভুবন বাদ্যকর (Bhuban Badyakar) আজ গোটা দেশের কাছে এক জনপ্রিয় গায়ক। তার গাওয়া ‘কাঁচা বাদাম’ গানটি তো বিদেশের মাটিতেও জনপ্রিয়তা পেয়েছে! সাধারণ এক বাদাম বিক্রেতা ফেরিওয়ালার আজ জগৎ জোড়া খ্যাতি। তবে এই খ্যাতি বেশি দিনের নয়, বলছেন ভারতের আরেক আইকনিক গায়ক কুমার শানু (Kumar Shanu)। কাঁচা বাদাম এবং তার গায়ক বাদাম কাকুকে নিয়ে প্রথমবার সংবাদ মাধ্যমের কাছে মুখ খুললেন তিনি।

‘বাদাম বাদাম দাদা কাঁচা বাদাম’, পুজোর প্যান্ডেল থেকে শুরু করে বিয়ে বাড়ির অনুষ্ঠানেও গত এক বছর ধরে বাজছে কাঁচা বাদামের ডিজে ভার্সন। সেই সঙ্গে বাড়ছে বাদাম কাকুর জনপ্রিয়তা। শহরের নামিদামি পাব থেকে শুরু করে সারা ভারতবর্ষের নানা স্টেজে গান গাওয়ার আমন্ত্রণ পাচ্ছেন ভুবন বাদ্যকর। তার জীবনযাত্রাতেও এসেছে অনেকখানি পরিবর্তন।

kancha badam

মাটির বাড়ি ছেড়ে পাকা বাড়ি, চার চাকা, হাতে আইফোন সবই পেয়েছেন গান গাওয়ার সুবাদে। এখন আর পাড়ায় পাড়ায় ঘুরে তাকে বাদাম বিক্রি করতে হয় না। তার গানই এখন তার পরিচয়। এমতাবস্থায় প্রখ্যাত শিল্পী কুমার শানু প্রকাশ্যেই সতর্ক করলেন বাদাম কাকুকে।

টলিউড ফোকাস কলকাতা নামক একটি ইউটিউব চ্যানেলে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে তিনি বলেছেন, “মানুষ খুব হুজুগে হয়। একটা নতুন কিছু যখন আসে, ধরুন সে গাইছেই না যেমন বাদাম নিয়ে এসেছিল। এর আগেও আরও অনেক কিছু নিয়ে এসেছিল। এগুলো হুজুগে, এগুলো কিছুদিন উঠবে, ভাইরাল হবে আবার রেশ কেটে গেলে মরেও যাবে।”

কুমার শানু আরও বলেছেন সত্যিকারের গান আজীবন থেকে যাবে। হুজুগে যে গান ভাইরাল হয় সেগুলো বেশিদিন থাকবে না। তবে তিনি খুশি এই ভেবে যে এতে কোনও গরীব মানুষের উপকার হচ্ছে। এটাই সবথেকে বড় ব্যাপার বলে তিনি মনে করেন। কাঁচা বাদাম গান ভাইরাল হওয়ার পর বাদাম কাকুর সুদিন ফিরেছে। এটাই উপকারের বলে মনে করছেন কুমার শানু।

বাদাম বিক্রি করার সময় ক্রেতাকে আকর্ষণ করতে যে গান গাইতেন বাদাম কাকু, সেই গানই তাকে ভাইরাল করে তোলে। এখন ভাইরাল হয়ে গিয়ে সেলিব্রিটি হয়ে গিয়েছেন বাদাম কাকু। আজ দিল্লি, কাল মুম্বাই ঘুরে ঘুরে স্টেজ শো করছেন তিনি। ইউটিউবেও চ্যানেল খুলে ফেলেছেন ইতিমধ্যেই। এখন তার দিন বেশ ভালই কাটছে।