হানিমুনে করিশ্মাকে নিলামে তুলেছিলেন স্বামী, বন্ধুদের সঙ্গে শুতে বাধ্য করা হয়েছিল অভিনেত্রীকে

Karisma Kapoor shares the reasons behind her separation with Sanjay Kapur

নব্বইয়ের দশকে বলিউডের (Bollywood) সেরা অভিনেত্রী ছিলেন করিশ্মা কাপুর (Karishma Kapoor)। দীর্ঘ প্রায় ১ দশক ধরে বলিউডে রাজত্ব করার পর করিশ্মা আচমকাই নিজেকে সিনেমা জগৎ থেকে গুটিয়ে নেন। কেরিয়ারে যখন শীর্ষে অবস্থান করছিলেন করিশ্মা, ঠিক তখনই তিনি নিজেকে বলিউড থেকে সরিয়ে নেন। এখন আর তাকে সেভাবে বলিউডের কোনও ছবিতে অভিনয় করতে দেখা যায় না। হাতেগোনা দু’চারটে প্রজেক্ট কিংবা বিজ্ঞাপনেই এখন কাজ করেন করিশ্মা।

একসময় গোবিন্দা, সলমান খান, অক্ষয় কুমারের মতো বলিউডের তাবড় তাবড় অভিনেতাদের সঙ্গে জোট বেঁধে বলিউডকে বহু সুপারহিট ছবি উপহার দিয়েছেন করিশ্মা কাপুর। তবে তিনি যখন তার কেরিয়ারের শীর্ষে অবস্থান করছিলেন, ঠিক তখনই তার একটি ভুল সিদ্ধান্ত তার জীবনকে সম্পূর্ণভাবে বদলে দেয়। বলতে গেলে, বিপর্যস্ত করে দেয়।

বলিউডে কেরিয়ার যখন তুঙ্গে, ঠিক তখনই ব্যবসায়ী সঞ্জয় কাপুরকে (Sanjay Kapoor) বিয়ে করেন করিশ্মা। ২০০৩ সালে তাদের বিবাহ সম্পন্ন হয়। আর তার ঠিক পর থেকেই করিশ্মার জীবন সম্পূর্ণ বদলে যায়। তিনি যাকে স্বেচ্ছায় বিবাহ করেছিলেন, সেই সঞ্জয়ের বিরুদ্ধেই পরবর্তী দিনে মানসিক এবং শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ তোলেন করিশ্মা। অসুখী দাম্পত্যের জেরে ২০১৬ সালে সঞ্জয়ের সঙ্গে করিশ্মার বিবাহ বিচ্ছেদ হয়ে যায়।

বিবাহ-বিচ্ছেদের মামলা চলাকালীন সঞ্জয়ের বিরুদ্ধে করিশ্মার অভিযোগ ছিল, হানিমুন চলাকালীন সঞ্জয় করিশ্মাকে তার বন্ধুদের সাথে শোওয়ার জন্য বাধ্য করেছিলেন! শুধু তাই নয়, করিশ্মা বাধা দিতে গেলে সঞ্জয়ের সঙ্গে এই নিয়ে তার তুমুল অশান্তিও হয়েছিল বলে দাবি করেন অভিনেত্রী। সঞ্জয় এবং করিশ্মার ১৩ বছরের দাম্পত্য জীবনে তাদের দুই সন্তান জন্ম নেয়। করিশ্মার অভিযোগ ছিল, প্রথম সন্তানের জন্মের সময়েও তাকে মারধোর করতেন সঞ্জয়।

প্রসঙ্গত, সঞ্জয় কাপুরের দ্বিতীয় স্ত্রী করিশ্মা। করিশ্মা অভিযোগ করেন, তার সঙ্গে বৈবাহিক সম্পর্কে থাকাকালীনও গোপনে প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলছিলেন সঞ্জয়। করিশ্মার অভিযোগ ছিল, গর্ভাবস্থায় তার শাশুড়ি তাকে একটি পোশাক পরতে দিয়েছিলেন। তবে তিনি সেই পোশাক পরতে পারেননি। এই নিয়েও সংসারে অশান্তি বাঁধে। সেই সময় গর্ভবতী করিশ্মার ওপর শারীরিক নির্যাতন থেকে শুরু করে তাকে চড় পর্যন্ত মেরেছিলেন সঞ্জয়।

Karisma Kapoor shares the reasons behind her separation with Sanjay Kapur

এমনই সব বিস্ফোরক অভিযোগ নিয়ে ২০১৬ সালে আদালতে ডিভোর্সের মামলা দায়ের করেন করিশমা। আদালতে বিচারকের কাছে করিশ্মা জানিয়েছিলেন, করিশ্মার উপর নজর রাখার জন্য সঞ্জয় তার ভাইয়ের উপর দায়িত্ব দিয়েছিলেন। সামান্য কারণেই তাদের মধ্যে রাগারাগি থেকে শুরু করে বিষয়টা মারধর পর্যন্ত চলে যেতে বলে দাবি করেছেন করিশ্মা। সংসারের নিত্য দিনের অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে ২০১২ সালে দুই সন্তানকে নিয়ে বাপের বাড়িতে চলে আসেন করিশ্মা।

২০১৬ সালে সঞ্জয়ের সঙ্গে করিশ্মার আইনত বিচ্ছেদ (Divorce) হয়ে যায়। করিশ্মাকে এখন বলিউডের আর বড় কোনও প্রজেক্টে কাজ করতে না দেখা গেলেও সাম্প্রতিককালে “মেন্টালহুড” (Mentalhood) নামের একটি ওয়েব সিরিজে অভিনয় করেছিলেন অভিনেত্রী। সেখানেই তিনি তার বৈবাহিক এবং একান্ত ব্যক্তিগত জীবনের দুর্বিষহ কিছু অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরেন। বর্তমানে দুই সন্তানকে নিয়ে বাপের বাড়িতে খুশিই রয়েছেন অভিনেত্রী।