যতই বিতর্ক হোক না কেন আমরা ছাড়ছি না, রথের দড়িতে একসঙ্গে টান দিলেন কাঞ্চন ও শ্রীময়ী

রথের মেলায় হঠাৎ দেখা হলো দুজনের। একই সঙ্গে মেলায় ঘুরলেন, রথের দড়িতে টান দিলেন, জগন্নাথদেবকে দর্শনও করলেন, তবে সবটাই হলো নিভৃতে। নেটিজেনরা যেন ঘুণাক্ষরেও টের না পান, তার জন্য বিশেষ সতর্কতাবশত এক ক্যামেরায় ধরা দেননি তারা। তবুও নেটিজেনদের চোখকে ফাঁকি দেওয়া এতো সহজ কি? রথের মেলার অত ভিড়ের মধ্যে থেকেও এই জুটিকে হাতে নাতে ঠিকই ধরে ফেললেন নেটিজেনরা। কথা হচ্ছে কাঞ্চন মল্লিক (Kanchan Mullick) এবং শ্রীময়ী চট্টরাজকে (Sreemoyee Chattoraj) নিয়ে।

এই টলিউড (Tollywood) অভিনেতা এবং অভিনেত্রীর মধ্যে ঘনিষ্ঠ সম্পর্কের সম্ভাবনা নিয়ে মাত্র কয়েকদিন আগেই সোশ্যাল মিডিয়ায় সমালোচনার ঝড় বয়ে গিয়েছিল। যার প্রভাব কাঞ্চন এবং শ্রীময়ীর ব্যক্তিগত জীবনের উপরেও পড়েছে। কাঞ্চনের ভাঙ্গা সংসারের আঁচ নেটিজেনরা টের পেয়েছেন। তার জন্য অনেকেই শ্রীময়ীকে দায়ী করেছেন। খোদ কাঞ্চন পত্নী পিঙ্কিও (Pinkey Bandopadhyay) একই দাবি তুলেছেন। যদিও কাঞ্চন এবং শ্রীময়ী নিজেদের সম্পর্ককে দাদা-বোনের সম্পর্ক হিসেবেই ব্যক্ত করেছেন।

তবুও জল্পনা এত সহজে এড়ানো যায়না। এদিকে আবার মাহেশের রথের মেলায় উভয়ের উপস্থিতি টের পেয়ে আরেক জল্পনার সূত্রপাত হয়েছে নেট দুনিয়ায়। মাহেশের ৬২৫ তম রথের মেলায় একই সময়ে উপস্থিত ছিলেন তারা দুজনেই। যদিও একসঙ্গে ক্যামেরার সামনে আসেননি তারা। কাঞ্চন মল্লিক জগন্নাথদেবের দর্শনের একটি ছবি সোশ্যাল সাইটে পোস্ট করেন। এদিকে আবার শ্রীময়ীও ওই একই মেলা থেকে লাইভে এসেছিলেন। রথ যাত্রার ভিডিও তিনি অনুরাগীদের সঙ্গে ভাগ করে নেন।

এ পর্যন্ত সব ঠিকই ছিল। তবে গোল বাঁধলো যখন লাইভে শ্রীময়ীর পাশে ধরা পড়ে গেলেন সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। কারণ ওই একই দিনে জগন্নাথ দেবের দর্শনের ছবি পোস্ট করে কাঞ্চন ক্যাপশনে লিখেছিলেন, “মাহেশের রথযাত্রার ৬২৫ তম বর্ষে শ্রীশ্রী জগন্নাথ বাড়িতে মহাপ্রভু জগন্নাথ দেবের দর্শন। সাথে ছিলেন মাননীয় সাংসদ শ্রী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়। ঈশ্বর সকলের মঙ্গল করুক। জয় জগন্নাথ।” কাজেই একই সময়ে কাঞ্চন এবং শ্রীময়ীর সঙ্গে কল্যান বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিতিই প্রমাণ করে দেয় যে অভিনেতা এবং অভিনেত্রী একইসঙ্গে রথের মেলায় ঘুরেছেন।

বাদামি লাল রঙের শাড়ি এবং তার সঙ্গে মানানসই গয়নার সাজে সেজে রথের মেলা থেকে সরাসরি লাইভে এসেছিলেন শ্রীময়ী। তারপাশেই কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিতি স্পষ্ট ধরা পড়েছে ক্যামেরায়। এদিকে আবার কাঞ্চন মল্লিকের পোস্টেও কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিতির কথা স্পষ্ট। এদিকে আবার কাঞ্চনের পোস্ট করা ছবিতেও কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিতি ধরা পড়েছে।

 কাজেই দুজনে যতই চেপে যাওয়ার চেষ্টা করুন না কেন, দর্শক কিন্তু কাঞ্চন-শ্রীময়ীকে হাতেনাতে ধরেই ফেলেছেন। আর তারপর থেকেই সুপ্ত বিতর্ক আবার জেগে উঠেছে। তবে কাঞ্চন এবং শ্রীময়ী প্রসঙ্গ নিয়ে জল্পনা শুরু হওয়ার পরে নেট মাধ্যমে অবশ্য পরস্পর পরস্পরকে এড়িয়েই চলছেন তারা। কিন্তু তাদের ব্যক্তিগত সম্পর্কে এই জল্পনা তেমনভাবে কোনও আঁচ ফেলেনি। সম্প্রতি শ্রীময়ীর জন্মদিন গিয়েছে। শ্রীময়ীর জন্মদিনে তাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন কাঞ্চন। সেই খবরও পেয়ে গিয়েছিলেন নেটিজেনরা।