বনি নয়, কমল হাসানকেই জামাই করতে চেয়েছিলেন শ্রীদেবীর মা, ফাঁস হল বিস্ফোরক তথ্য

শ্রীদেবীর সঙ্গে বিয়ে হতে হতেও হল না, কারণ জানিয়ে বিস্ফোরক কমল হাসান

দক্ষিণ তথা বলিউড (Bollywood) সুপারস্টার কমল হাসান (Kamal Hassan) একটা সময় ছিলেন ইন্ডাস্ট্রির হার্টথ্রব। তার ব্যক্তিগত জীবনও ভীষণই রঙিন। বলিউড এবং দক্ষিণের একাধিক সুপারহিট নায়িকার সঙ্গে জড়িয়েছে তার নাম। তাদের মধ্যে বলিউডের অন্যতম সুন্দরী অভিনেত্রী শ্রীদেবীও (Sridevi) রয়েছেন। একটা সময় ইন্ডাস্ট্রিতে তাদের প্রেম নিয়ে গুঞ্জন ছিল চরমে।

ব্যক্তিগত জীবনে কমল হাসান ২ বার বিয়ে করেছেন। সেই সঙ্গে বিনোদনের দুনিয়ার একাধিক নায়িকার সঙ্গে তার সম্পর্কের খবর রটেছে। শ্রীদেবীও তাদেরই একজন। শ্রীদেবীর সঙ্গে জুটি বেঁধে একটার পর একটা ছবিতে অভিনয় করেছেন কমল হাসান। তাদের অভিনীত সবকটি ছবিই ছিল সেই আমলের হিট। দর্শকরা তাদের জুটি ভীষণ পছন্দ করতেন।

‘সদমা’ ছবিতে শ্রীদেবী এবং কমল হাসানের কেমিস্ট্রি দেখার পর তাদের নিয়ে গুঞ্জন চরমে উঠেছিল। শোনা যাচ্ছিল তারা নাকি লুকিয়ে ডেট করছেন। এমনকি শ্রীদেবীর মাও নাকি চেয়েছিলেন কমল হাসানের সঙ্গেই মেয়ের বিয়ে হোক। কিন্তু এত কিছুর পরেও শেষমেষ কমল হাসানের সঙ্গে শ্রীদেবীর বিয়েটা হয়ে উঠল না আর।

পরবর্তী দিনে বনি কাপুরের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধেন শ্রীদেবী। আর কমল হাসানের সঙ্গে তার সম্পর্কের গুঞ্জন কমে তিস্মিত হয়ে আসে। তবে সেই গুঞ্জন কিন্তু একেবারে চাপা পড়ে যায়নি। এত বছর বাদে ‘দ্য ২৮ অবতারস অফ শ্রীদেবী’ অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে এই বিষয়ে মুখ খুলেছিলেন কমল হাসান। তিনিও স্বীকার করে নেন শ্রীদেবীর মা নিজেই চাইতেন যে তার এবং শ্রীদেবীর বিয়ে হোক। তিনিও তাদের জুটিটাকে পছন্দ করতেন।

তাহলে তাদের বিয়ে হল না কেন? এই প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়ে অভিনেতা জানিয়েছেন তিনি আসলে শ্রীদেবীকে বোনের নজরেই দেখতেন। পর্দাতে রোমান্স করলেও আসলে নাকি তাদের দুজনের মধ্যে ভাইবোনের সম্পর্ক ছিল। দর্শকরা তাদের রসায়ন ভীষণ পছন্দ করতেন। তারা ভাবতেন বাস্তবেও হয়তো প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে দুজনের মধ্যে।

ওই সময় ইন্ডাস্ট্রি থেকেও তাদের পরামর্শ দেওয়া হত এই ভুল ভাবনাটাই বজায় থাকুক সকলের মধ্যে। এতে সিনেমার ভাল প্রচার হবে এবং সিনেমা ভাল চলবে। কমল হাসান জানিয়েছেন শ্রীদেবী তাকে ভীষণ সম্মান করতেন। শ্রীদেবী তাকে ‘স্যার’ বলে ডাকতেন। সহ অভিনেত্রী তথা বোনের আচমকা মৃত্যুতে মনে মনে ভীষণ কষ্ট পেয়েছিলেন কমল হাসান।