জীবনে একাধিক পুরুষের আনাগোনা, প্রতিভার জোরে টলিউড থেকে আজ বলিউডে স্বস্তিকা মুখার্জী

পাননি দাম্পত্য সুখ, একাধিক পুরুষের হাতছানি এড়িয়ে মেয়েকে নিয়ে একা লড়ছেন স্বস্তিকা

দেখতে দেখতে জীবনের ৪১টা বসন্ত পেরিয়ে এলেন স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায় (Swastika Mukherjee)। তবে টলিউডের (Tollywood) সুন্দরী অভিনেত্রীর জীবনটা শুধুই ছবির মতো সুন্দর নয়। হাজারও উত্থান-পতনের মধ্য দিয়েই আজ তিনি শুধু টলিউডে নয়, বলিউডের পরিচিত মুখ হয়ে উঠেছেন। সঙ্গে সামলেছেন মাতৃত্বের দায়ভার। মাঝে তার সঙ্গে বহু পুরুষের নাম জড়িয়েছিল ঠিকই, কিন্তু শেষমেশ ‘একলা চলো’ নীতিতেই নিজেকে বেঁধে রেখেছেন স্বস্তিকা।

স্বস্তিকার জন্ম ১৯৮০ সালের কলকাতায়। একাধিক বেসরকারি ইংরেজি মাধ্যম স্কুল থেকে তিনি স্কুল জীবনের পড়াশোনা শেষ করেছেন। ইতিহাসে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি নিয়েছেন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে। পড়াশোনা শেষ করে তবেই অভিনয় জগতে প্রবেশ করেন তিনি। প্রথমে ‘দেবদাসী’ নামের একটি বাংলা ধারাবাহিকে অভিনয় করেন। তারপর ২০০২ সালে ‘হেমন্তের পাখি’ ছবির মাধ্যমে টলিউডের সঙ্গে তার পরিচয় হয়।

জীবনের প্রথম ইনিংসে ‘ক্রান্তি’, ‘সাথী হারা’, ‘মস্তান’ এর মতো একাধিক কমার্শিয়াল ছবিতে অভিনয় করেছেন। তারপর দিনবদলের সঙ্গে সঙ্গে বেছে বেছে ছবিতে অভিনয় করতে শুরু করলেন তিনি। ‘ভূতের ভবিষ্যৎ’, ‘আমি আর আমার গার্লফ্রেন্ডস’, ‘জাতিস্মর’, ‘তবে তাই হোক’, তার জীবনের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করেছে। মাঝে বলিউড থেকেও ঘুরে এসেছেন তিনি। ‘ডিটেকটিভ ব্যোমকেশ বক্সি’, ‘দিল বেচারা’ থেকে শুরু করে ‘ব্ল্যাক উইডো’, ‘পাতাল লোক’ এর মতো হিন্দি ওয়েব সিরিজ জেতার অভিনয় নজর কেড়েছে সারা ভারতের।

অনস্ক্রিন যেমন দাপটের সঙ্গে অভিনয় করেন, পর্দার বাইরে ব্যক্তিগত জীবনেও কখনও কারও সঙ্গে আপোষ করেননি তিনি। খুব কম বয়সেই রবীন্দ্রসংগীতশিল্পী প্রয়াত সাগর সেনের ছেলে প্রমিত সেনের সঙ্গে তার বিয়ে হয়। তার বিবাহিত জীবন সুখের ছিল না। বিয়ের মাত্র দুই বছরের মাথাতেই স্বামীর বিরুদ্ধে শারীরিক এবং মানসিক নির্যাতনের অভিযোগ তুলে তিনি বিবাহবিচ্ছেদের মামলা দায়ের করেন। তবে সেই মামলা আজও আদালতের বিচারাধীন। কারণ তার স্বামী তাকে ডিভোর্স দিতে চাননি।

তবে আইনত বিচ্ছেদ না হলেও মেয়েকে নিয়ে আলাদা হয়ে যান স্বস্তিকা। সেই থেকে মেয়েই তার একমাত্র ধ্যান জ্ঞান। স্বস্তিকার মেয়ে অন্বেষার বয়স এখন ২১ বছর। মা-মেয়ের সম্পর্কে কেমিস্ট্রিটা দারুণ। তার মেয়েকে যদি সোশ্যাল মিডিয়াতে কটাক্ষের সম্মুখীন হতে হয় তাহলে মা হয়ে তার যোগ্য জবাব দিয়ে মন্তব্যকারীর মুখ নিমেষে বন্ধ করে দেন স্বস্তিকা।

একাকী জীবনে বহু পুরুষের নাম জড়িয়েছে স্বস্তিকার নামের পাশে। সৃজিত মুখোপাধ্যায়, সুমন মুখোপাধ্যায়, পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়, জিৎ, দিব্যেন্দু মুখোপাধ্যায় থেকে শুরু করে মির আফসার আলি, এই তালিকাটা বেশ বড়। যদিও শেষমেষ সব সম্পর্কের অবসান ঘটিয়ে একাকীই থেকে গিয়েছেন স্বস্তিকা।