একরাতের ভাড়া ১০ লক্ষ টাকা, হোটেল কিনলেন মুকেশ আম্বানি, ঘুরে দেখুন অন্দরমহল

৭২৮ কোটি টাকা দিয়ে হোটেল কিনলেন মুকেশ আম্বানি, ঘুরে দেখুন হোটেলের অন্দরমহল

ভারত তথা গোটা বিশ্বের ধনীতম ধনকুবের মুকেশ আম্বানি (Mukesh Ambani)। রিলায়েন্স জিও টেলিকম সংস্থার কর্ণধার মুকেশ আম্বানির সম্পত্তির খতিয়ান নিয়ে আজকের এই প্রতিবেদন নয়। আজকের প্রতিবেদন মুকেশ আম্বানির নতুন কেনা হোটেল নিয়ে। মূল্য থেকে শুরু করে বিলাসবহুল ব্যবস্থাপনার বিচারে সহজেই মুকেশ আম্বানির এই সদ্য কেনা হোটেলটি সংবাদমাধ্যমের পাতায় জায়গা করে নিয়েছে। একনজরে ঘুরে দেখুন হোটেলের মধ্যে কি কি সুযোগ সুবিধা রয়েছে।

মুকেশ আম্বানির কেনা এই হোটেলটি অবস্থিত নিউইয়র্কে (New York)।‌ ঠিকানা, ৮০ কলম্বাস সার্কেল। ম্যানহাটনের একেবারে মধ্যবর্তীস্থানে আকাশচুম্বী মান্দারিন অরিয়েন্টাল (Mandarin Oriental) কিনে নিলেন মুকেশ আম্বানি। এই পাঁচতারা হোটেল কেনার জন্য কেম্যান আইল্যান্ডের অধীনস্থ কলম্বাস সেন্টার কর্পকে ৯.৮১৫ কোটি ডলার দিতে হয়েছে রিলায়েন্সকে। ভারতীয় মুদ্রায় যা প্রায় ৭২৮ কোটি টাকার সমান। চুক্তিপত্র অনুযায়ী ওই সংস্থার অন্তর্ভুক্ত সবথেকে বিলাসবহুল পাঁচতারা মান্দারিন অরিয়েন্টাল হোটেলের ৭৩.৩৭ শতাংশের অংশীদারিত্ব পেয়েছে রিলায়েন্স।

mandarin oriental new york

চলতি বছরের মার্চ মাসের শেষের দিকে হোটেল সংক্রান্ত লেনদেন সম্পন্ন হওয়ার কথা। এভাবে টেলিকম সংস্থার পাশাপাশি হোটেলের ব্যবসাতেও ভিত শক্ত করছে রিলায়েন্স। এই হোটেলে গ্রাহকদের সব রকমের সুযোগ-সুবিধা প্রদান করবে রিলায়েন্স সংস্থা। এই হোটেলের মধ্যে বলরুম, পাঁচতারা স্পা থেকে শুরু করে খাওয়া-দাওয়ার জন্য বিলাসবহুল মনোরম জায়গা গ্রাহকের দৃষ্টি আকর্ষণ করে। রিলায়েন্স তার একটি সহযোগী সংস্থার মাধ্যমে এই হোটেল অধিগ্রহণ করতে চলেছে বলে জানা যাচ্ছে।

নিউইয়র্কের এই মান্দারিন অরিয়েন্টাল হোটেলটি ২০০৩ সালে গড়ে তোলা হয়েছিল। এই হোটেলে সর্বমোট ২৪৮টি ঘর আছে। এটিকে নিউ ইয়র্কের বিলাসবহুল হোটেলের মধ্যে অন্যতম ধরা হয়। এখানে অরিয়ান্টাল সুটে এক রাত কাটাতে হলে খরচ হবে ১০ লক্ষ টাকারও বেশি। তবে হোটেলের সবথেকে কম খরচে ঘরের ভাড়া ৫৫ হাজার টাকা। রিলায়েন্স গোষ্ঠীর কাছে এই মুহূর্তে ২.৬ লক্ষ কোটি টাকা আছে। সেই অর্থ ব্যবহার করে ডিজিটাল এবং ক্ষুদ্র কারবারকে রিলায়েন্সের বড় স্তম্ভ হিসেবে ব্যবহার করার চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

এতে রিলায়েন্স ইন্ডিয়া লিমিটেডের গ্রাহক এবং হস্পিটালিটি ব্যবসা বৃদ্ধি পাবে। মুম্বাইয়ের বান্দ্রা-কুর্লা কমপ্লেক্সে একটি কনভেনশন সেন্টার, হোটেল এবং পরিচালিত বাসস্থান তৈরি করছে রিলায়েন্স। উল্লেখ্য গতবছর ব্রিটেনের স্টোক পার্ক লিমিটেড অধিগ্রহণ করেছিল রিলায়েন্স। এভাবে কার্যত দেশ-বিদেশে রিলায়েন্সের ব্যবসা সম্প্রসারিত হচ্ছে।