ভারতীয় রেলের টিকিট ক্যানসেল এবং টাকা রিফাণ্ডের নতুন নিয়মগুলো জেনে নিন

আর দুই সপ্তাহের মধ্যেই পুজো। বাঙালিদের সবচেয়ে বড় আনন্দের উৎসব দুর্গাপূজা। আর দুর্গা পূজা মানেই বাঙালিদের একটানা অনেকটা দিনের ছুটি। এবং ছুটি পেলেই বাঙালিদের ভ্রমন পিপাসু মনে জেগে ওঠে নতুন নতুন উন্মাদনা। টানা সাত দিনের লম্বা ছুটি পেয়ে পছন্দের জায়গায় ঘুরে আসতে কার না ইচ্ছা করে? তাই অনেক দিন আগে থেকেই পুরী না হয় উত্তর ভারত বা দক্ষিণ ভারত পছন্দের জায়গা ঘুরতে যাওয়ার প্ল্যান করতে হয়। এবং সেইমতো ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বুকিং করে রাখা হয়।

কিন্তু অনেকসময় শেষ মুহূর্তে যাওয়ার পরিকল্পনা ভেস্তে যায় পারিবারিক কারনে বা ব্যক্তিগতভাবে অসুস্থতা থাকার জন্য বা রেলের আকস্মিক কোন বিপত্তি বা আপনি যে জায়গা যেতে চান সেই গন্তব্যস্থলে ঘটে যাওয়া প্রাকৃতিক দুর্যোগের ফলে।এইসব ক্ষেত্রে আপনাকে টিকিট ক্যানসেল করতে হয়।আর টিকিট ক্যানসেল করলেই বিভিন্ন ক্ষেত্রে পাওয়া যায় রিফান্ডের সুবিধা।তাই আজকের প্রতিবেদনে আমরা ভারতীয় রেলের বর্তমান টিকিট ক্যানসেল করার নিয়ম এবং রিফান্ডের সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

Source

কনফার্মড টিকিট বাতিল করতে হলে ক্যানসেলেশন চার্জ কত বা IRCTC-র পক্ষ থেকে কত টাকা যাত্রীদের রিফান্ড করা হয় সেটা দেখে নেওয়া যাক:-

টিকিট ক্যানসেল করলে রিফান্ডের টাকা ওই ব্যাঙ্কের অ্যাকাউন্টেই রেলের পক্ষ থেকে ক্রেডিট করে দেওয়া হবে ৷ যে অ্যাকাউন্ট থেকে আপনি টিকিট কেটেছিলেন ৷ অন্যদিকে অফলাইনে কাটা ট্রেনের টিকিট ক্যানসেল করতে হলে আপনাকে PRS বা প্যাসেঞ্জার রিজার্ভেশন সিস্টেমের কাউন্টারে গিয়েই করতে হবে ৷ অনলাইনে কাটা টিকিট ক্যানসেল করতে হবে অনলাইনেই ৷

যদি আপনার নিশ্চিত বা কানফার্মড টিকিট ট্রেন রওনা হওয়ার বা ছাড়ার ৪৮ঘন্টা আগে ক্যানসেল করতে হয়, তাহলে  সেক্ষেত্রে টিকিট ক্যানসেল করার জন্য আপনাকে যে ক্যানসেল ক্যানসেল চার্জ দিতে হবে তা হল

  • এসি প্রথম শ্রেণী বা এক্সিকিউটিভ শ্রেণীর জন্য প্রতি ব্যক্তির জন্য  ২৪০ টাকা।
  • এসি টু টায়ার বা প্রথম শ্রেণীর জন্য ব্যক্তি প্রতি ২০০ টাকা
  • এসি টায়ার থ্রি বা এসি চেয়ার কার বা এসি থ্রি ইকোনমি এর ক্ষেত্রে ব্যক্তি প্রতি ১৮০টাকা।
  • স্লিপার ক্লাসের জন্য ব্যাক্তি প্রতি একশো কুড়ি টাকা
  • দ্বিতীয় শ্রেণীর জন্য ব্যাক্তি প্রতি ৬০ টাকা
  • যদি কোন কানফার্মড টিকিট প্রাপ্ত প্যাসেঞ্জার, ট্রেন ছাড়ার ৪৮ ঘণ্টা থেকে ১২ ঘণ্টা আগে টিকিট ক্যানসেল করে তাহলে সে ক্ষেত্রে টিকিটের সর্বনিম্ন মোট মূল্যের ২৫ শতাংশ টাকা ক্যানসেল খরচ হিসাবে নেওয়া হতে পারে।
  • যদি কোন কনফার্ম টিকিট প্যাসেঞ্জার ট্রেন ছাড়ার ১২ ঘন্টা থেকে ৪ ঘন্টার মধ্যে টিকিট ক্যানসেল করে তাহলে সে ক্ষেত্রে মূল সর্বনিম্ন ভাড়ার ৫০%ক্যানসেল খরচ হিসেবে নেয়া হতে পারে।
Source

কনফার্মড ই-টিকিট ক্যান্সলেশন এর ক্ষেত্রে

  • যদি ট্রেন ছাড়ার  ৪ ঘণ্টা আগে টি ডি আর বা টিকিট ডিপোজিট রিসিপ্ট অনলাইনে জমা দেওয়া হয়, তাহলে সে ক্ষেত্রে রিফান্ড পাওয়ার সুবিধা আপনি পেতে পারেন।
  • যদি ট্রেন ছাড়ার ৪ ঘণ্টা আগে টি ডি আর বা টিকিট ডিপোজিট রিসিপ্ট অনলাইনে জমা না করা হয় তাহলে সে ক্ষেত্রে আপনি টাকা রিফান্ড পাওয়ার কোনো সুযোগ পাবেন না
  • আর এ সি(RAC) -ই টিকিটের ক্ষেত্রে আপনি রিফান্ডের জন্য আবেদন করতে পারবেন তখনই যদি আপনি ট্রেন ছাড়ার আধঘন্টা আগে অনলাইনে টি ডি আর জমা দিতে পারেন ।এক্ষেত্রে যদি অনলাইনে টি ডি আর জমা না দিতে পারেন ট্রেন ছাড়ার আধঘন্টা আগে তাহলে আপনি কোন রিফান্ড পাওয়ার অধিকার পাবেন না।

আরও পড়ুন : ভারতের সর্বোচ্চ গতির ১০ ট্রেন  

Source

ফ্যামিলি  ই টিকিট ক্যানসেল এর ক্ষেত্রে

যদি কোন ব্যক্তি তার পরিবারের ই টিকেট ক্যানসেল করতে চায় সে ক্ষেত্রে ট্রেন ছাড়ার আধঘন্টা আগে টি ডি আর জমা করতে হবে এ ক্ষেত্রে পরিবারের যে সমস্ত ব্যক্তির টিকিট কনফার্ম হয়েছে এবং যাদের টিকিট ওয়েটিং স্তরে আছে উভয় ক্ষেত্রে ক্যানসেল করতে হলে এবং টাকা রিফান্ড এর সুবিধা পেতে হলে অবশ্যই অনলাইনে জমা করতে হবে ট্রেন ছাড়ার আধঘন্টা আগে টি ডি আর জমা করতে হবে।

আরও পড়ুন : ট্রেনের টিকিট হারিয়ে ফেলেছেন? ভারতীয় রেল দেবে;ডুপ্লিকেট টিকিট জানুন কীভাবে?

Source

তৎকাল টিকিট ক্যানসেল এর ক্ষেত্রে

এক্ষেত্রে আপনি যদি তৎকাল টিকিট কনফার্ম হয়েছে এবং কোন কারণবশত সেই কনফার্ম টিকিট ক্যানসেল করতে চান তাহলে আপনি কোন টাকা রিফান্ড পাবেন না। কিন্তু যদি আপনার তৎকাল টিকিট ওয়েটিং থাকে বা ট্রেন গন্তব্য স্থল থেকে ছাড়তে দেরি করে সেক্ষেত্রে আপনার টিকিট মূল্যের কিছুটা অংশ ভারতীয় রেল চার্জ বাবদ নেবে এবং বাকি অংশ আপনাকে ফেরত করা হবে। এক্ষেত্রে মনে রাখবেন ট্রেন নির্ধারিত সময়ের তিন ঘণ্টা দেরিতে চললে আপনি রিফান্ডের জন্য আবেদন করতে পারেন নতুন IRCTC এর নিয়ম অনুযায়ী।

যদি আপনার জন্য নির্ধারিত ট্রেন কোন প্রাকৃতিক দুর্যোগ বা রেললাইন জনিত কোন কারণের জন্য তার নির্ধারিত রুট বা গোটা গন্তব্যস্থলে যাওয়ার পরিকল্পনা ক্যানসেল করা হয়েছে ,সে ক্ষেত্রে আপনি আপনার ভাড়ার পুরো টাকা রিফান্ড পেতে পারেন ।এক্ষেত্রে আপনি অনলাইন বা অফলাইনে আবেদন জমা করতে পারেন টাকা রিফান্ড পাওয়ার জন্য।