আর যেতে হবে না বাজার, বাড়ির টবেই করুন লঙ্কার চাষ, শিখে নিন পদ্ধতি

বাড়ির টবে এইভাবে করুন লঙ্কার চাষ, ফলন পাবেন সারাবছর, রইল চাষের পদ্ধতি

How to Grow Chilies at Home

বাড়িতে দৈনন্দিন রান্নায় কাঁচালঙ্কা তো দিতেই হবে। কাঁচা লঙ্কা গোটা হোক বা বাটা, রান্নার স্বাদ বাড়িয়ে দেয় নিমেষে। এত প্রয়োজনীয় একটি সবজি আবার সবসময় বাড়িতে মজুত থাকেও না। কেমন হবে যদি আপনি আপনার বাড়িতেই সামান্য জায়গাতে কাঁচা লঙ্কা চাষ করে সারা বছর ফলন পান? জেনে নিন বাড়িতে কিভাবে টবে গাছ লাগিয়ে বারো মাস লঙ্কা পাওয়া সম্ভব (How To Grow Chilies At Home)।

পরিবেশ এবং টব নির্বাচন : কাঁচা লঙ্কার চাষের জন্য গরমের সময়টা দারুণ উপযোগী। গ্রীষ্ম এবং বর্ষাতে বীজ বপন করলে চারা গাছের দ্রুত বৃদ্ধি হয়। কিন্তু ফল পাকার সময় আবহাওয়া শুষ্ক থাকা প্রয়োজন। অতিরিক্ত গরমে লঙ্কার ফলন ভাল হলেও এর রং এবং ঝাঁজ কমে যায়। খুব গরম কিংবা খুব বৃষ্টির সময় লঙ্কা গাছ লাগানো উচিত নয়। তাপমাত্রা যখন ২০-২৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে থাকে তখন লঙ্কা গাছের ফলন ভালো হয়।

গাছ লাগানোর পর টব এমন জায়গায় রাখতে হবে যেখানে সূর্যের আলো পর্যাপ্ত পরিমাণে পৌঁছায়। হালকা ছায়াযুক্ত স্থানেও লঙ্কা গাছের টব রাখতে পারেন। আলো ও বাতাস যথেষ্ট পরিমাণে পৌঁছালে লঙ্কা গাছ খুব তাড়াতাড়ি বৃদ্ধি পায়। লঙ্কা গাছের চাষের জন্য মাঝারি সাইজের মাটির কিংবা প্লাস্টিকের টব ব্যবহার করতে পারেন।

রান্নাঘরের মাঝারি সাইজের পাত্র ব্যবহার করলে টবের নিচে ছোট ফুটো করে নিতে হবে। টবের নিচের ভাঙা অংশটার উপরে প্রথমে স্টোন চিপস দিয়ে তারপর অল্প বালি দিয়ে ঢেকে দিন। এতে জল বেরিয়ে যাবে না আবার জল জমেও থাকবে না।

মাটি তৈরির পদ্ধতি : চাষের আগে মাটি খুব ভালোভাবে তৈরি করে নিতে হবে। বেলে মাটি এবং দোআঁশ মাটি লঙ্কা গাছের জন্য আদর্শ। তবে এই মাটির মধ্যে যথেষ্ট পরিমাণে জৈব সার কিংবা সবজির উচ্ছিষ্ট, গোবর সার ও ইউরিয়া মিশিয়ে নিতে হবে। মাটি তৈরি করার এক সপ্তাহ পরে নার্সারি থেকে চারা গাছ কিংবা বীজ মাটির মধ্যে পুঁতে ফেলতে হবে। ১৫ দিন পর পর এই মাটিতে ১ টেবিল চামচ করে ইউরিয়া সার, পটাশিয়াম ও ম্যাগনেসিয়াম সালফেট মেশাতে হবে।

গাছের পরিচর্যা করার পদ্ধতি : গাছ লাগানোর পর ভালোভাবে গাছের পরিচর্যা করতে হবে। এর জন্য যেকোনও সারের দোকানে গিয়ে ভিটামিন লিকুইড কিনে নিন। ১ লিটার জলের মধ্যে ৩০ ফোঁটা ভিটামিন লিকুইড মিশিয়ে ১০ দিন পরপর গাছে স্প্রে করতে হবে। এতে গাছের দ্রুত বৃদ্ধি হবে ও গাছের পাতা কুঁকড়ে যাওয়া কিংবা ফুল ঝরে যাওয়ার সমস্যা থাকবে না।

গাছে যদি পিঁপড়ের আক্রমণ হয় তাহলে সামান্য সাবানের গুঁড়ো টবের মাটিতে ছড়িয়ে দিতে পারেন। অন্যান্য পোকার উপদ্রব ঠেকাতে ১ লিটার জলের মধ্যে ৩০ ফোটা রোগটপ্লাস কিংবা ক্যারিনা মিশিয়ে ১০ দিন অন্তর গাছে স্প্রে করুন। গাছে জল দিতে হবে পরিমাণ অনুযায়ী। খুব বেশি কিংবা খুব কম জল দেওয়া যাবে না।

বিশেষ টিপস : উপরের এই তিনটি ধাপে লঙ্কা গাছের পরিচর্যা করলে সারা বছর দুই দফায় এই গাছ থেকেই ৫০-৮০ টি লঙ্কা পাওয়া যায়। এই পদ্ধতি মেনে লঙ্কা গাছের খুব দ্রুত বৃদ্ধি হয়। টব এবং মাটি প্রস্তুত করতেই যা সময় লাগার লাগে। তারপর ১০-১৫ দিন অন্তর গাছের সামান্য পরিচর্যা করলে বাড়িতেই সারাবছর লঙ্কা পাবেন।