সস্তায় গ্যাস সিলিন্ডার পেতে চাইলে মেনে চলুন এই পদ্ধতি

আন্তর্জাতিক বাজারে এলপিজি গ্যাসের দাম কমায় গত বুধবার মধ্যরাত থেকে ভারতেও গ্যাসের দাম ১৪.২ কেজি সিলিন্ডার পিছু কমে ৬২.৫০ টাকা। এর আগেও জুলাই মাসে একইভাবে গ্যাসের দাম সিলিন্ডার প্রতি কমেছিল ১০০.৫০ টাকা। ফলতো এই মুহূর্তে স্বস্তির হাওয়া গৃহস্থের হেঁসেলে। আর এই রান্নার গ্যাসের দাম কমায় বিরোধীদের চাপ থেকে মুক্ত কেন্দ্রীয় সরকারও, গ্যাসের দাম কমার আগের মাসে দাম ৩.৭% বাড়ায় বিরোধীদের চরম চাপের মুখে পড়তে হয়েছিল।

তবে গ্যাসের দাম বাড়ুক বা কম হোক, গ্যাস বুকিং-এর সময় কেবলমাত্র একটি পদ্ধতি অবলম্বন করলেই গ্যাসের দামের ক্ষেত্রে সিলিন্ডার পিছু ছাড়ে পাওয়া যায়। ক্যাশলেস বা নো ক্যাশ লেনদেনকে আরও মজবুত করতেই কেন্দ্রীয় পেট্রোলিয়াম মন্ত্রকের এমন সিদ্ধান্ত। সিলিন্ডার বুকিং করার পর সেই বিল অনলাইনে মেটালেই সিলিন্ডার পিছু পাওয়া যাবে ছাড়, এছাড়াও সিলিন্ডার বুকিং এর রসিদেও সেই ছাড়ের কথা উল্লেখ থাকবে।

আর এই ছাড় পেতে হলে গ্যাস বুকিং করার পর সেই গ্যাসের মূল্য আপনাকে মেটাতে হবে অনলাইনে, ক্রেডিট কার্ড, ডেবিট কার্ড অথবা নেট ব্যাঙ্কিং যে কোন পদ্ধতিতে। তাহলেই আপনি বুকিং করা গ্যাসের সিলিন্ডার প্রতি ছাড় পাবেন ৫ টাকা করে। অনলাইনে গ্যাসের বিল মেটানোর জন্য পেট্রোলিয়াম মন্ত্রকের তরফ থেকে এমন একটি পদ্ধতিও আনা হয়েছে যার জন্য আপনাকে এলপিজির সাইটে কোনরকম একাউন্ট করার প্রয়োজনও নেই।

গ্যাস বুকিং করার সাথে সাথে আপনার রেজিস্টার মোবাইল নাম্বারে একটি মেসেজের লিঙ্ক চলে আসবে বিল মেটানোর জন্য। যাতে ক্লিক করলেই অতি সহজেই পেমেন্টের অপশন পেয়ে যাবেন। তবে এক্ষেত্রে মনে রাখবেন, আপনার রেজিস্টার মোবাইলে পাওয়া ওই মেসেজের লিংক ভ্যালিডিটি গ্যাস বুকিং করার সময় থেকে ৩ ঘণ্টা অবধি। তারপর আর ওই লিঙ্ক কাজ করবে না। কিন্তু যারা আগে থেকেই এলপিজি সাইটে নিজেদের গ্যাস কানেকশনের ভিত্তিতে একাউন্ট করে রেখেছেন তারাও অতি সহজেই পেমেন্ট করতে পারবেন অনলাইনে।

এর আগে পেট্রোল ও ডিজেলের ক্ষেত্রে লেনদেনের সময় ডিজিটাল লেনদেনের ক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় পেট্রোলিয়াম ও প্রাকৃতিক গ্যাস মন্ত্রক ০.৭৫% ছাড়ের নির্দেশ দিয়েছিলেন। আর এবার এলপিজি গ্যাস সিলিন্ডার কেনাবেচাতেও ডিজিট্যাল পদ্ধতিকে আরও মজবুত করতে এমন সিদ্ধান্ত বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।