আসছে ১০০ টাকার নতুন নোট; কীভাবে চিনবেন আসল আর নকল নোট?

আবার নতুন নোট। তবে কোন নোটবন্দী নয়। এবার আসছে মহাত্মা গান্ধী সিরিজের নতুন ১০০ টাকার নোট। এমনই তথ্য আজ জানিয়েছে ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক। গত দেড়বছরের বেশি সময় ধরে  ভারতের মানুষ দেখেছে ভারতীয় নোট কে নিয়ে নানারকম ভেলকি। প্রথমত ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর গত ২০১৬ সালের ৮ই নভেম্বর হঠাৎ ৫০০ও ১,০০০ টাকার নোটের ব্যবহার বন্ধ করার ঘোষণা যা সর্বজনের মধ্যে “নোটবন্দী” নামে পরিচিত। আর তারপর আসে নুতন ২,০০০ টাকার নোট। তারপরে নুতন ৫০০ টাকা, ২০০ টাকা, ও ৫০ টাকা ও ১০ টাকার নোট। প্রত্যেকবারই সাধারণের মধ্যে তৈরি হয়েছে এক অদ্ভুত অস্থিরতা।

নোট বন্দীর সুফল কুফল নিয়ে যদিও আজকের আলোচনা আমরা করছি না। কিন্তু তবুও সাধারণের মধ্যে নতুন নোটকে গ্রহণ করার মানসিকতা আজও মিশ্র। সবার মধ্যেই নতুন বিভিন্ন নোটের গুণগত মান এবং আসল নকলের পার্থক্য খুঁজে পাওয়া যেন দিন দিন দুস্কর হয়ে উঠেছে। আর তাই বারবার নতুন মূল্যের নোট প্রচলনের মাধ্যমে সাধারণকে আরও বেশি বিব্রত করা হচ্ছে বলেই মনে করছে সাধারণ জনগণ। তবে ভারত সরকার ও ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক থেকে জানানো হচ্ছে যে নোটের গুণগত মান এবং বিশ্বাসযোগ্যতা বাড়ানোর জন্যই বারবার নতুন মূল্যের নোট প্রচলন করা হচ্ছে।

তবে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক থেকে স্পষ্ট জানানো হয়েছে যে পুরানো যে মহাত্মা গান্ধী সিরিজের নোট বাজারে ছড়িয়ে আছে তাও সমান ভাবেই চলবে ,তা বাজার থেকে তুলে নেওয়া হবে না। তাও এই নোট হাতে পেয়েই আপনাকে জেনে নিতে হবে নোট টি আসল না নকল৷

কীভাবে চিনবেন আসল আর নকল নোট?

রিজার্ভ ব্যাংক এই নতুন ১০০টাকার নোটের বৈশিষ্ট্য কি কী টা স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে৷ তাই এই বৈশিষ্ট্যগুলি দেখলেই আপনি খুব সহজেই বুঝে নিতে পারবেন আপনার হাতে আসা নোটটি আসল না নকল৷

  • নতুন মহাত্মা গান্ধী সিরিজের ১০০ টাকার নোটগুলি হবে বেগুনি বা ল্যাভেন্ডার রঙের।
  • নতুন নোটগুলিতে ব্যবহার করা হচ্ছে স্বদেশীয় কাগজ এবং কালি।এই নোটগুলি প্রিন্টিং করার কাজ চলছে হোসেঙ্গাবাদের সিকিউরিটি পেপার মিলে।
  • নুতন ১০০ টাকার নোটগুলির দৈর্ঘ্য হবে ১৪২মিলিমিটার এবং প্রস্থ হবে ৬৬মিলিমিটার।
  • নতুন নোটের সম্মুখভাগে ১০০ লেখাটি দেবনাগরী লিপিতে লেখা থাকবে।
  • নতুন নোটের পিছনের দিকে নোট ছাপার সময়কাল অর্থাৎ সালের নাম বামদিকে লেখা থাকবেএবং থাকবে স্বচ্ছ ভারতের লোগো স্লোগান সহ।

আরও পড়ুন : ATM থেকে নকল নোট পেলে কি করা উচিত ?

  • নোটে সিরিওরিটি থ্রেড থাকবে৷ তাতে রয়েছে কালার শিফট্৷ নোটগুলিকে মুড়লে থ্রেডের রং সবুজ থেকে নীল হয়ে যাবে৷
  • নোটের সম্মুখভাগে মহাত্মা গান্ধীর প্রতিচ্ছবি থাকবে একদম নোটের ঠিক মধ্যখানে।
  • গ্যারান্টি চিহ্ন ,গভর্নরের স্বাক্ষর,এবং প্রতিশ্রুতি বাক্য এবং RBI চিহ্ন সবই থাকবে মহাত্মা গান্ধীর প্রতিচ্ছবির ডান দিকে।
  • অশোক স্তম্ভের ছবি থাকবে ডানদিকে।
  • নোটে সিরিওরিটি থ্রেড থাকবে৷ তাতে রয়েছে কালার শিফট্৷ নোটগুলিকে মুড়লে থ্রেডের রং সবুজ থেকে নীল হয়ে যাবে৷
  • মহাত্মা গান্ধীর প্রতিচ্ছবির এবং ১০০ এর জলছবি  থাকবে সামনের দিকে।
  • নোটের উপরের বামদিকে এবং নীচের ডানদিকে ছোট থেকে বড়ো আকারের নোটের নাম্বার লেখা থাকবে।
  • নোটের পিছনের দিকে নোটের প্রিন্ট হওয়ার বছর লেখা থাকবে।
  • বামদিকে স্বচ্ছ ভারতের লোগো এবং স্লোগান নোটের বিভিন্ন ভাষায় লেখা প্যানেল।
  • সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য পেছনের দিকে থাকবে “রানী কি ভাব”এর প্রতিচ্ছবি।এই “রানী কি ভাব”ভারতের তথা গুজরাটের একটি হেরিটেজ সাইট ।

আরও পড়ুন : আপনার কাছে ছেঁড়া, ফাটা নোট আছে? জেনে নিন কীভাবে পরিবর্তন করবেন

আমাদের প্রতিটি পোস্ট WhatsApp-এ পেতে ⇒ এখানে ক্লিক করুন

সোশ্যাল মিডিয়ায় আমাদের ফলো করুন : Facebook  Instagram Twitter