কর্মসাথী প্রকল্প কী, কর্মসাথী প্রকল্পে কীভাবে আবেদন করবেন

‘কর্মসাথী’ প্রকল্পের আওতায় এক লাখ ছেলেমেয়েকে ব্যবসায়িক উদ্যোগের জন্য ঋণ বাবদ ২ লাখ টাকা মাথাপিছু অর্থ সাহায্য করবে রাজ্য সরকার।

পশ্চিমবঙ্গের বেকার যুবক যুবতীদের স্বনির্ভর করার উদ্দেশ্যে তৈরি হয়েছে কর্মসাথী প্রকল্প (Karmasathi Prakalpa) যেখানে প্রতিবছর রাজ্যের ১লক্ষ যুবক যুবতীদের স্বনির্ভর করার উদ্দেশ্যে (Loans for Unemployed) ৫০০ কোটি টাকা বরাদ্দ (Karma Sathi Scheme) করেছে সরকার।

আগামী তিন বছর এই প্রকল্প চলবে বলে জানা যাচ্ছে।রাজ্য জুড়ে যুব পরিষেবা ও ব্যবস্যা বাণিজ্য সহ নুতুন উদ্যোগের জন্য লোন দান (Personal Loans for Unemployed), ক্ষুদ্র ব্যবসা প্রতিষ্ঠান তৈরিতে সরকারি সাহায্য এবং রাজ্য জুড়ে স্বনিযুক্ত কর্মসংস্থান (Loans for Unemployed) এর সুযোগ তৈরি করে দেওয়াই এই প্রকল্পের উদ্দেশ্য।

কর্মসাথী প্রকল্পের আবেদন পদ্ধতি

৯ই সেপ্টেম্বর,২০২০ প্রকল্পটির গেজেট এর বিজ্ঞপ্তি ( বিজ্ঞপ্তি নম্বর 1825/MSMET-18011(11)/4/2020)  প্রকাশের পরবর্তী তিন বছর পর্যন্ত এই প্রকল্প রূপায়িত করা হবে। এই প্রকল্পের ক্ষেত্রে রাজ্যের অধীনস্থ সমবায় ব্যাঙ্ক থেকে ২ লক্ষ টাকা পর্যন্ত লোন (Loans for Unemployed) তুলতে পারবেন ব্যাক্তি এবং এই লোনের সাথেই থাকবে ভর্তুকি এবং কিস্তিতে লোন শোধ করার সুযোগ। যে কোনও ধরনের নতুন উৎপাদন, পরিষেবা এবং বাণিজ্য/ব্যবসায়িক ক্ষেত্র এই প্রকল্পের অধীনে লোন দেওয়া হবে।

কর্মসাথী প্রকল্পে কারা আবেদন করতে পারবেন?

  • ১. ১৮ থেকে ৫০ বছর বয়সের মধ্যে যে কেউ আবেদন করতে পারবেন।
  • ২. আবেদনকারীকে অষ্টম শ্রেণী পাশ হতে হবে।
  • ৩. একটি পরিবার থেকে (বাবা- মা এবং স্বামী/স্ত্রীর মধ্যে) যেকোনো একজনই আবেদন করতে পারবেন।
  • ৪. কর্মসংস্থান ব্যাংকের নাম নথিভুক্ত থাকলে পাবেন অগ্রাধিকার।

কর্মসাথী প্রকল্পের সুবিধা

এই প্রকল্পের আওতায় দুই ধরনের সরকারি ভর্তুকি দেওয়া হবে। প্রথমটি হলো প্রকল্পের ভর্তুকি যেটি হবে প্রকল্প ব্যয়ের ১৫ শতাংশ অথবা ২৫ হাজার টাকা মধ্যে যে অর্থটি যেটি নূন্যতম হবে। দ্বিতীয়টি হলো সুদের ভর্তুকি। এটি সমবায় ব্যাংক উদ্যোক্তার ওপর নির্ভরশীল।তিনি যা বার্ষিক সুদ দেবেন তাই দেওয়া হবে। এছাড়া ৩ বছর পর্যন্ত সুদ সঠিক সময় মতন দেওয়া হলে সুদের ৫০ শতাংশ দেওয়া হবে এবং অন্য ক্ষেত্রে ৪০ শতাংশ দেওয়া হবে।

কর্মসাথী প্রকল্পে নিজস্ব বিনিয়োগ

প্রকল্পের দাম যদি ৫০,০০০ হয়, সেক্ষেত্রে সমস্ত বিভাগের আবেদনকারীদের ৫ শতাংশ ব্যায় করতে হবে। অন্যদিকে প্রকল্পের মূল্য যদি ৫০ হাজারের বেশী হয়, সেক্ষেত্রে এসসি / এসটি / মহিলা / স্বতন্ত্র সংখ্যালঘু / সংখ্যালঘুদের ৫ শতাংশ ব্যয় করতে হবে এবং অন্যান্যদের ১০ শতাংশ ব্যায় করতে হবে।

কর্মসাথী প্রকল্পে কীভাবে আবেদন করতে হয়

Karma Sathi Prakalpa এর আবেদন অনলাইন এবং অফলাইন উভয় ভাবে করা যাবে। উদ্যোক্তা কে নির্দিষ্ট বয়ান এ কর্মসাথি পোর্টাল (Karma Sathi Official Webiste) https://wbmsme.gov.in/karmasathi এর মাধ্যমে অথবা সরাসরি আবেদন পত্র জমা করে আবেদন করতে হবে।

Karma Sathi Form

আবেদন পত্র (Karma Sathi Form) একদম বিনামূল্যে পাওয়া যাবে নিম্নলিখিত অফিস থেকে :-

  •  গ্রামীণ এলাকায় নিকটবর্তী বি ডি ও (B.D.O) অফিস।
  • পৌরসভা এলাকায় নিকটবর্তী এস ডি ও (S.D.O) অফিস।
  • কলকাতা এলাকায় কলকাতা মিউনিসিপ্যাল করপোরেশন (Kolkata Municipal Corporation,KMC)
  • জেলার District Industries Centre (DIC) এর অন্তর্গত MSME Facilitation Centre (MFC)

কর্মসাথী প্রকল্পে আবেদনের নথিপত্র

  • ১. উদ্যোক্তার পরিচয়ের প্রমাণ
  • ২. ছবি ( পাসপোর্ট ও স্ট্যাম্প সাইজ)
  • ৩. স্থায়ী বাসিন্দার সাটিফিকেট।
  • ৪. শিক্ষাগত যোগ্যতার প্রমাণ ( মার্কশিট বা রেজিস্ট্রেশন)
  • ৫. বয়সের উপযুক্ত প্রমাণ পত্র।
  • ৬. উদ্যোক্তা এসসি / এসটি / ওবিসি / সংখ্যালঘু / ভিন্নভাবে সক্ষম হলে তার শংসাপত্রের অনুলিপি