বাড়িতে কত টাকা, সোনা গয়না রাখা যায়, ইডির নজর পড়ার আগেই জেনে নিন

কত টাকা ও সোনার গয়না বাড়িতে রাখলে ইডির নজরে পড়বেন না, সময় থাকতেই জেনে নিন

এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের (Enforcement Directoret) নজরবন্দি হয়ে রয়েছেন রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং তার ঘনিষ্ঠ অর্পিতা মুখোপাধ্যায়। অর্পিতার ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয়েছে ৫০ কোটিরও বেশি টাকা (Rupees) এবং সোনা-হীরের গয়না (Gold)। এত ধনসম্পত্তির উৎস দেখাতে পারেননি অর্পিতা। অন্যদিকে মহারাষ্ট্রের শিবসেনা নেতা সঞ্জয় রাউতের বাড়ি থেকেও সাড়ে ১১ লক্ষ টাকা পেতেই তাকে গ্রেফতার করা হয়।

নিত্যদিন যেভাবে অতিরিক্ত সোনা-গয়না রাখার অপরাধে নেতা-মন্ত্রীদের গ্রেফতারির হার বাড়ছে তাতে কার্যত সাধারণ মানুষের কপালেও দুশ্চিন্তার ভাঁজ দেখা দিয়েছে। প্রশ্ন উঠছে কত টাকা এবং সোনার গয়না বাড়িতে রাখলে তা নিরাপদ? বাড়িতে কীভাবে টাকা এবং গয়না সঞ্চিত রাখলে তার জন্য ইডির ভয়ে রাতের ঘুম উড়বে না?

Arpita Mukherjee`s Fees For Her First Movie Will Surprise You

এই বিষয়ে খুঁটিনাটি তথ্য আগে থাকতেই জেনে রাখা ভাল। ইডির মতে আপনি আপনার ইচ্ছেমত বিপুল পরিমাণ টাকা বাড়িতে গচ্ছিত রাখতেই পারেন তবে সেক্ষেত্রে আয়ের উৎস সম্পর্কে স্বচ্ছতা রাখতে হবে। যদি আপনার কাছে ১ কোটি টাকা থাকে তাহলে সেই টাকার উৎস সম্পর্কিত বৈধ কাগজ দেখালেই আপনি এই চিন্তামুক্ত থাকতে পারবেন।

তবে যদি আপনি টাকার উৎসের হিসেব না দিতে পারেন তাহলেই বিপদ। সেক্ষেত্রে ১৩৭ শতাংশ পর্যন্ত জরিমানা হওয়ার নিয়ম রয়েছে। সেই সঙ্গে ইডি আধিকারিকদের হেফাজতে নানা প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হবে। এ তো গেল টাকার বিষয়। গয়নার ক্ষেত্রে কিন্তু নিজের ইচ্ছেমত সোনা বাড়িতে রাখার অনুমতি নেই।

আয়কর বিভাগের নিয়ম অনুসারে বাড়িতে সর্বোচ্চ ৫০০ গ্রাম পর্যন্ত সোনা রাখা যেতে পারে। তবুও এখানে বেশ কিছু ভাগ রয়েছে। যেমন বিবাহিত, অবিবাহিত মহিলা এবং পুরুষের ক্ষেত্রে বাড়িতে সোনা রাখার পরিমাণটা আলাদা। বিবাহিত মহিলারা সর্বোচ্চ ৫০০ গ্রাম পর্যন্ত সোনা রাখতে পারেন নিজের কাছে।

অবিবাহিত মহিলারা নিজেদের কাছে ২৫০ গ্রাম এবং পুরুষেরা সর্বোচ্চ ১০০ গ্রাম সোনা রাখতে পারবেন। যদি আয়কর বিভাগের অনুমতির চেয়ে বেশি সোনা কিংবা গয়না থেকে থাকে তাহলে তা বাজেয়াপ্ত করা হয়। তবে যারা পূর্বপুরুষের থেকে প্রচুর সোনা পেয়েছেন কিংবা জমিদার বাড়ির বংশধর তারা অতিরিক্ত সোনা রাখতে পারবেন। সে ক্ষেত্রে তাদের সরকারি আধিকারিকদের কাছে বিষয়টির স্বচ্ছতা রাখতে হয়।