এই ৫টি শর্তে জামিন পেলেন রিয়া, ১০দিন থানায় দিতে হবে হাজিরা

গ্রেফতার হওয়ার প্রায় এক মাস পর জামিন পেলেন অভিনেত্রী রিয়া। তবে একাধিক শর্ত আরোপ করা হয়েছে অভিনেত্রীর উপর। তাই জামিন পেলেও আপাতত আদালতের শর্তগুলি মেনে চলতে হবে তাঁকে।

অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুকাণ্ডের তদন্তে মাদক যোগে গত ৮ই সেপ্টেম্বর বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীকে গ্রেফতার করে এনসিবি(NCB)। মাদক চক্রের সক্রিয় সদস্য এবং সুশান্তের জন্য মাদকের যোগান দেওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয় রিয়া চক্রবর্তী এবং তার ভাই সৌভিক চক্রবর্তীকে।

আজ বুধবার, বোম্বে হাইকোর্টে তার জামিন মঞ্জুর করা হয়েছে। তবে তার ভাই সৌভিক কে বিচার ২০ অক্টোবর পর্যন্ত বিভাগীয় হেফাজতে রাখা হবে বলেই জানানো হয়েছে।

রিয়ার অভিযোগ, কোনও উপযুক্ত প্রমাণ ছাড়াই তাকে এবং তার ভাই সৌভিককে ফাঁসানো হয়েছে। এমনকি মাদকের পরিমাণ অনেক বাড়িয়ে দেখানো হয়েছে বলেও অভিযোগ তোলেন তিনি। তিনি জানান বাইপোলার ডিসঅর্ডারে ভুগতেন সুশান্ত এবং তাকে মাদকের নেশা থেকে বের করার চেষ্টা করেও কোনো ফল পাননি তিনি।

মাদকের জন্য কাছের মানুষদের সাহায্য নিতেন অভিনেতা। লকডাউন চলাকালীন সুশান্তের মানসিক অবস্থার আরও অবনতি হয় বলে জানান তিনি। মাদক চক্রের সাথে যুক্ত থাকার বা অপরাধীদের আশ্রয় দেওয়ার অভিযোগ ওঠে তার দিকে কিন্তু সেই অভিযোগ অস্বীকার করেন রিয়া।

১লক্ষ টাকার বন্ডে রিয়ার জামিন মঞ্জুর হলেও আগামী ১০ দিন থানায় হাজিরা দিতে হবে তাকে, জমা রাখতে হবে পাসপোর্টও।পুলিশের অনুমতি ছাড়া গ্রেটার মুম্বাই থেকে বাইরে যেতে পারবেন না তিনি।

আদালতের অনুমতি ছাড়া রিয়া বিদেশযাত্রা করতে পারবেন না বলেও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তার জন্য পাসপোর্ট জমা রাখতে বলা হয়েছে তাঁকে। এমনকি মুম্বইয়ের বাইরে পা রাখার আগেও থানার অনুমতি নিতে হবে রিয়াকে। সঙ্গে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে তিনি কোনও সাক্ষীর সঙ্গে দেখা করতে পারবেন না।

আরও পড়ুন : নেই বালিশ বিছানা ফ্যান, জেলে কীভাবে রিয়ার দিন কাটছে দেখুন

বুধবার প্রত্যেকের ৫০ হাজার টাকার বন্ডে জামিন পেলেন সুশান্তের দুই কর্মচারী দীপেশ সবন্ত এবং স্যামুয়েল মিরান্ডা।তবে পাসপোর্ট বাজিয়াপ্ত করা হয়েছে তাদের। তবে জামিন পাননি আবদুল পরিহার।সুশান্তকে মাদক সরবরাহ করার অভিযোগ ওঠে তার দিকে।

রিয়ার বিরুদ্ধে সুশান্তের আর্থিক তছরুপের যে অভিযোগ উঠেছিল সেটাকেও এড়িয়ে যেতে চাননা তদন্তকারী সংস্থা ইডি ED। সেই অভিযোগ খতিয়ে দেখা হবে। সুশান্ত এর মৃত্যুর সাথে রিয়ার অন্য কোনরকম যোগ আছে নাকি সেই বিষয় তদন্ত চালাবে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা অর্থাৎ সিবিআই (CBI)