বিধবা হয়েও কার জন্য সিঁদুর পরেন রেখা, প্রকাশ্যে এলো আসল কারণ

4853

সত্তরের দশকে বলিউডের প্রথম সারির অভিনেত্রীদের মধ্যে যার নাম না দিলেই নয় তিনি হলেন রেখা। রেখার সৌন্দর্য্য, অভিনয় দক্ষতা আজও সিনে অনুরাগীদের মনে গেঁথে রয়েছে। সৌন্দর্যের নিরিখে ৬৬ বছরেও নট আউট রেখা। তিনিই একমাত্র অভিনেত্রী যিনি এই বয়সেও নিজের গ্ল্যামার ধরে রাখতে পেরেছেন। তবে সৌন্দর্য ছাড়াও রেখা তার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে বরাবরই চর্চায় থাকেন।

আজ থেকে প্রায় ৩০ বছর আগে বিধবা হয়েছিলেন রেখা। তবুও আজও যে কোনও অনুষ্ঠানে সিঁথি ভর্তি সিঁদুর পরে হাজির হতে দেখা যায় তাকে। অথচ হিন্দু শাস্ত্র অনুসারে বিধবা মহিলারা সিঁদুর পরেন না। স্বামীর দীর্ঘায়ু কামনার জন্যই সিঁথিতে সিঁদুর পরেন হিন্দু মহিলারা। বিধবা হয়েছেন অনেক আগে। নতুন করে বিয়ে করেছেন, এমন ঘটনাও জানা যায়নি। কিন্তু এর পরও তাঁর সিঁথিতে সিঁদুর কেন? তাহলে কেন এবং কার জন্য রেখার সিঁথিতে আজও উজ্জ্বল সিঁদুরে লাল রং?

অমিতাভ ও রেখার প্রেম

শাস্ত্রমতে, নারীদের কপালে সিঁদুর দেওয়া মানেই স্বামী বেঁচে আছেন। তবে আশি কিংবা নব্বইয়ের দশকে ভারতের প্রেমিকরা তাঁদের প্রেমিকাদের বিয়ের আগে সিঁদুর পরাতেন বলে জানা যায়। তখন মেয়েদের কাছে সিঁদুরের দাম ছিল অনেক। ফলে রেখার ভক্তরা অনেকেই ধরে নিয়েছেন, অমিতাভের নামেই আজো সিঁথিতে সিঁদুর পরেন রেখা।

উল্লেখ্য, রেখা কিন্তু বিয়ের আগে থেকেই সিঁদুর পরেন। বি-টাউনে গুঞ্জন বিগ-বি অমিতাভ বচ্চনের প্রেমে মশগুল হয়ে পড়েছিলেন রেখা। এই গুঞ্জনের জেরে রেখা-অমিতাভ অভিনীত “সিলসিলা’ ছবির পর তাদের একসঙ্গে আর কখনো কোনও ছবিতে অভিনয় করতে দেখা যায়নি।

কেন সিঁদুর পরেন রেখা?

তবে কি রেখার পুরোনো বান্ধবী দীপালির বক্তব্য ধরেই বলতে হয়, ‘রেখা আজো অমিতাভের জন্যই সিঁদুর পরেন?’ যদিও দীপালির প্রকাশ্যে বলা ওই বক্তব্যে কখনোই প্রতিবাদ করেননি রেখা। আজো কেউ জানে না, রেখা-অমিতাভের অমলিন এই প্রেমের সম্পর্কের গভীরতা ঠিক কতটা। তবে অমিতাভের সঙ্গে পুরোনো প্রেমের স্মৃতিকে কখনোই প্রকাশ্যে আনেননি রেখা। গত ৩০ বছরের বেশি সময় ধরে কথা বলা দূরের কথা, এ পর্যন্ত একসঙ্গে কোনো পার্টিতেও দেখা যায়নি দুজনকে।

রেখা বিধবা হয়েও সিঁদুর পরেন কেন?

১৯৯০ সালে রেখা দিল্লির এক শিল্পপতি মুকেশ আগরওয়ালকে বিয়ে করেন। কিন্তু বিয়ের এক বছরের মাথায় মুকেশ রেখার ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন। সে সময় মুকেশ তাঁর সুইসাইড নোটে লিখে যান, তাঁর মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নয়। সে সময় অনেকে রেখাকে ডাইনি নামেও সম্বোধন করতে ছাড়েননি। তার পর থেকেই খাতা-কলমে রেখা ছিলেন একজন বিধবা মহিলা। কিন্তু তিনি আজো সিঁথিতে সিঁদুর পরেন, যার উত্তর কেউ আজো জানেন না।

বিধবা হয়েও কার জন্য সিঁথিতে সিঁদুর পরেন রেখা?

বলিউড তারকা ঋষি কাপুর এবং নিতু সিংয়ের বিয়ের সময় আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে ছিলেন রেখা। সেই সময়ও সিঁথিতে সিঁদুর পরেই বিবাহ আসরে উপস্থিত হয়েছিলেন তিনি। উল্লেখ্য, তখনো কিন্তু মুকেশ আগারওয়ালের সঙ্গে রেখার বিয়ে হয়নি। তার সিঁথিতে সিঁদুর কেন? এই প্রশ্ন উঠলে রেখা জানিয়েছিলেন, শুটিং ফ্লোর থেকে সরাসরি চলে এসেছেন তিনি। তাই সিঁদুর তোলার সময় পাননি।

রেখা কার জন্য সিঁদুর পরেন?

তবে রেখার জীবনী লেখক ইয়াসিন উসমান “রেখা-দ্য আনটোল্ড স্টোরি”তে দাবি করেছেন, রেখার সিঁথিতে এই সিঁদুরের দাবিদার কিন্তু অমিতাভ নন। বরং সঞ্জয় দত্তের জন্যেই নাকি সিঁথি সর্বদা রাঙিয়ে রাখেন এই কন্ট্রোভার্সি কুইন। ১৯৮৪ সালে “জমিন-আসমান” ছবিতে সঞ্জয় দত্তের সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করতে গিয়েই নাকি তারা একে অপরের ঘনিষ্ঠ হয়ে পড়েন। ওই সময় গোপনে তারা বিয়েও করেছিলেন!