চোখের জলে অভিনয়কে বিদায় জানালেন ‘ইষ্টি কুটুম’-এর ‘বাহা’ রনিতা দাস

ইন্ডাস্ট্রির গ্ল্যামার এবং ফেমের পেছনে অনেক সময় লুকিয়ে থাকে অনেক না পাওয়ার কথা। বাংলা ইন্ডাস্ট্রিতে এমনই একাধিক অভিজ্ঞতা হয়েছে অভিনেত্রী রণিতা দাস (Ronita Das) এবং অভিনেতা সৌপ্তিক চক্রবর্তীর (Souptik Chakraborty)।এই ন্ডাস্ট্রিতে ১০ বছর থাকার পাশাপাশি তাদের সম্পর্কের ও ১০ বছর পেরিয়ে গেছে বিগত বছরের ফেব্রুয়ারি মাসেই। এই ১০ বছরে বিভিন্ন ওঠাপড়া সাক্ষী থেকেছেন তারা। বাংলা ধারাবাহিকের জগতের অন্যতম বিখ্যাত ধারাবাহিক ছিল ইস্টি কুটুম,আর সেই ধারাবাহিকে মুখ্য চরিত্রে অর্থাৎ বাহামনির চরিত্রে প্রথম দেখা মিলেছিল অভিনেত্রী রণিতা দাসের।

তবে চরিত্র নিয়ে নানারকম এক্সপেরিমেন্ট করার জন্যই বাহামনির চরিত্র থেকে বেরিয়ে গিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু তারপর হারিয়ে যান এই অভিনেত্রী। অন্যদিকে একই রকম ঘটনা ঘটে জলনুপুর ধারাবাহিকের মুখ্য চরিত্র এবং রণিতার প্রেমিক সৌপ্তিকের সাথেও। রণিতা নিজেও স্বীকার করেছিলেন যে, যেহেতু মাত্র এক সপ্তাহের ব্যবধানে তারা এই ধারাবাহিক দুটি থেকে বেরিয়ে এসেছিলেন। তাই সবার ধারণা তারা আলোচনা করেই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তার কথায় দুজনে সিদ্ধান্ত দুটি আলাদা কারণে নেওয়া হলেও তা ইন্ডাস্ট্রির কাউকে বোঝাতে পারেননি তারা।

অনেকেই মনে করেন ইষ্টিকুটুম ধারাবাহিকটি জেদের বশে ছেড়েছেন রণিতা। তবে তিনি সোজা ভাবে জানান, শারীরিক কারণে ধারাবাহিকটি থেকে সরে আসতে হয়েছিল তাকে।মেরুদন্ডে ব্যথা, ওভারিতে সমস্যা সব মিলিয়ে তার পক্ষে আর ধারাবাহিকে কাজ করা সম্ভব হয়নি। রনিতা বলেন, ইষ্টিকুটুম ছেড়ে যাওয়ার কারণে আমার বিরুদ্ধে কেস করা হয়েছিল পরে অবশ্য তা মিটে যায়। সিরিয়ালটি আসলে আমি অসুস্থতার কারনে ছেড়েছিলাম।

   

অভিনেত্রী আরও বলেন, মেরুদণ্ডের ব্যথায় দাঁড়াতে পারতাম না, ওজন খুব বেশি বেড়ে যাচ্ছিল, তাছাড়া অনেক সমস্যা দেখা দিয়েছিল কিন্তু তারপরেও টানা রিকশায় বসে শর্ট দিয়েছিলাম। সিরিয়াল না ছাড়লে হয়তো মরেই যেতাম। অন্যদিকে “জল নূপুর” ধারাবাহিকের থেকে সৌপ্তিক বিচ্ছিন্ন হওয়ার কারণ হিসেবে বলেন অভিনয় জায়গাটা হারিয়ে যাচ্ছিল। দুজনে একসাথে অভিনয় ছেড়ে দেওয়ার কারণে ইন্ডাস্ট্রি থেকে রনিতা এবং সৌপ্তিককে ব্যান করা হয়।

এই কারণে সৌপ্তিককে তিনটি সিনেমা ছাড়তে হয়েছিল। রনিতাও বেশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। অবশেষে বড় পর্দায় ফিরছেন রনিতা দাস। অন্যদিকে সৌপ্তিক এখন পরিচালনার কাজে নিযুক্ত হচ্ছেন। ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারীতে তাদের সম্পর্কের ১০ বছর পূর্ণ হয়েছে।