পেঁয়াজ-রসুন ছাড়া নিরামিষ খাসির মাংসেরও স্বাদ হয় দারুণ, খেলেই প্রেমে পড়ে যাবেন

লাগবে না পেঁয়াজ-রসুন, খাসির মাংস এইভাবে রাঁধলেও স্বাদ হয় দুর্দান্ত, শিখে নিন রেসিপি

লুচি, পরোটা বা ভাতের সঙ্গে এক বাটি মাংস হলেই বাঙালির চলে যায়। মাছে-ভাতে বাঙালি যতই মাছের প্রতি ভক্তি থাকুক না কেন, সপ্তাহে দু-তিন দিন মাংস না হলে চলে না। মাংস রান্নার জন্য অনেক রকমের রেসিপি রয়েছে বাঙালির ভান্ডারে। পেঁয়াজ, রসুন, বিভিন্ন ধরনের মশলা দিয়ে কষিয়ে মাংস রান্না তো সকলেই করে থাকেন। তবে আজকের এই প্রতিবেদনে এমন এক রেসিপির হদিশ রইল যেখানে পেঁয়াজ-রসুন ছাড়াই খাসির মাংস (Mutton Curry Without Onion and Garlic) রান্না করা যায়। চট করে শিখে নিন এই রান্নাটা।

পেঁয়াজ-রসুন ছাড়া খাসির মাংস বানানোর জন্য প্রয়োজনীয় উপকরণ : এই রান্নার জন্য খুব একটা বেশি উপকরণ লাগে না। বাটাবাটির তেমন ঝামেলাও নেই, আবার মাংস রান্না করতেও সময় লাগে খুব কম। এই রান্নার জন্য প্রয়োজন হবে খাসির মাংস ৮০০ গ্রাম, টকদই, নুন, তেল, ঘি, গোটা জিরে, গোটা ধনে, গোটা গরমমসলা ১ চামচ, তেজপাতা ২ টা, চিনি, হলুদগুঁড়ো, কাশ্মিরি লঙ্কাগুঁড়ো, গরমমসলা গুঁড়ো।

খাসির মাংস রান্নার পদ্ধতি : প্রথমে মাংসটাকে ভাল করে ধুয়ে নিতে হবে। এবার একটা পরিষ্কার পাত্রের মধ্যে মাংস নিয়ে তার মধ্যে চার টেবিল চামচ টক দই এবং পরিমাণ অনুসারে নুন দিয়ে মাখিয়ে ম্যারিনেট করে নিতে হবে। মাংস যতক্ষণ ম্যারিনেট করে রাখা যায় ততই এর স্বাদ ভাল হয়। এবার অন্য একটি পাত্রে তিন চা চামচ গোটা জিরে এবং গোটা ধনে জলের মধ্যে ভিজিয়ে রাখুন।

এবার এই ভেজানো জিরে ও ধনে বেটে নিয়ে একটা পেস্ট বানিয়ে নিন। কড়াইতে তেল ও ঘি একসঙ্গে গরম করে তার মধ্যে ফোড়ন হিসেবে দিয়ে দিন গোটা গরম মশলা, দুটো তেজপাতা এবং এক চা চামচ চিনি। এবার এর মধ্যে অল্প হলুদ গুঁড়ো এবং এক চা চামচ পরিমাণ কাশ্মীরি লঙ্কার গুঁড়ো দিতে হবে। তারপর মশলাটা একটু নেড়েচেড়ে বেটে রাখা জিরে-ধনের পেস্ট এর মধ্যে দিয়ে কষিয়ে নিতে হবে।

তিন থেকে চার মিনিট মশলা কষিয়ে নেওয়ার পর ম্যারিনেট করে রাখা মাংসটাও কড়াইয়ের মধ্যে দিয়ে দিন। এবার পরিমাণ অনুসারে নুন দিয়ে ১০ থেকে ১৫ মিনিট মাংসটাকে কষিয়ে নিন। মাংস খুব ভাল করে কষানো হয়ে গেলে এরমধ্যে দিতে হবে গরম জল। ঠান্ডা জল দেওয়া যাবে না। আলাদা করে জল গরম করে কড়াইতে দিন এবং তার সঙ্গে একটা চামচ পরিমাণ গোলমরিচের গুঁড়ো, চেরা কাঁচালঙ্কা এবং নুন ঠিক আছে কিনা দেখে নিন।

এবার এই সমস্ত উপকরণ প্রেসার কুকারের মধ্যে দিয়ে সেদ্ধ করে নিতে পারেন। তবে হাতে যদি সময় থাকে তাহলে কড়াইতেও মাংস সেদ্ধ করতে পারেন। কড়াইতে সেদ্ধ করলে মাংসের স্বাদ আরও ভাল হয়। মাংস সেদ্ধ হয়ে এলে উপর থেকে শুধু এক চা চামচ গরম মশলা গুঁড়ো ছড়িয়ে নামিয়ে নিতে হবে। এবার গরম ভাতের সঙ্গে গরম গরম পরিবেশন করুন পেঁয়াজ রসুন ছাড়া এই নিরামিষ মাংস।