এবার কি শেষ হয়ে যাচ্ছে ‘এই পথ যদি না শেষ হয়’, বড় আপডেট দিলেন পরিচালক

শেষ হল পথ চলা, এই পথ যদি না শেষ হয় নিয়ে বড় আপডেট দিলেন পরিচালক

একের পর এক বন্ধ হয়ে যাচ্ছে অনেক পুরনো বাংলা সিরিয়াল (Bengali Mega Serial)। স্টার জলসার জনপ্রিয় ধারাবাহিক মন ফাগুন এবং জি বাংলার উমা বন্ধের মুখে। সামনের সপ্তাহেই খড়কুটোর পথচলা শেষ হয়ে যাবে। এরই মাঝে এবার জি বাংলার (Zee Bangla) আরও এক ধারাবাহিক বন্ধের খবর পাওয়া গেল। শেষ হয়ে যাচ্ছে জি বাংলার ‘এই পথ যদি না শেষ হয়’ (Ei Poth Jodi Na Sesh Hoy) ধারাবাহিকটি।

এরকমই একটি খবর সম্প্রতি স্টুডিও পাড়াতে ঝড়ের গতিতে ভাইরাল হচ্ছে। শোনা যাচ্ছে উর্মি এবং সাত্যকির পথ চলা নাকি এখানেই শেষ হয়ে যাবে। একদিকে এখন ধারাবাহিকে টানটান উত্তেজনা চলছে। টুকাই বাবুর প্রাণ সংশয় দেখে দর্শকরা তো এমনিতেই উত্তেজনার মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন। তারই মাঝে বুধবার রাতে ফেসবুকে আচমকা এক অনভিপ্রেত স্টেটাস দিলেন পরিচালক অয়ন সেনগুপ্ত।

বুধবার রাতে আচমকাই ফেসবুকে তিনি লিখলেন, ‘শেষ হল পথ চলা’। ‘এই পথ যদি না শেষ হয়’ ধারাবাহিকের বর্তমান পরিচালকের থেকে এই খবর পেয়ে মাথায় হাত দর্শকদের। উর্মি এবং সাত্যকির ভক্তরা ধরেই নেন যে এবার বন্ধের মুখে পড়তে চলেছে এই ধারাবাহিক। তাই জনৈক ভক্ত লিখলেন, “নির্মাতারা আমাদের মানসিক রোগী বানিয়েই ছাড়বে।”

সত্যিই কি শেষ হয়ে যাচ্ছে ধারাবাহিকটি? যেভাবে চ্যানেলগুলোতে পুরনো ধারাবাহিক বন্ধের হিড়িক পড়ে গিয়েছে তাতে তা অসম্ভব কিছু নয়। তাই বেজায় হতাশ হয়ে পড়েছিলেন তারা। অবশেষে হিন্দুস্তান টাইমস বাংলার কাছে রহস্য ভেদ করলেন পরিচালক। পরিচালক সকলকে আশ্বস্ত করে বলেছেন, ‘‘না, না এই পথ যদি না শেষ হয় মোটেই শেষ হচ্ছে না। ফ্যানেরা নিশ্চিন্তে থাকতে পারে। আসলে আমি এই প্রোজেক্ট থেকে সরে দাঁড়ালাম, সেই জন্যই ওই স্টেটাস’’।

উল্লেখ্য প্রথমে এই সিরিয়ালের নির্দেশক ছিলেন কৃষ বসু। তারপরে গত মে মাস থেকে সিরিয়ালের পরিচালনার দায়িত্ব সামলেছিলেন অয়ন সেনগুপ্ত। তিনিও এবার সিরিয়াল ছেড়ে সরে দাঁড়াচ্ছেন। তবে কেন হঠাৎ সিরিয়াল ছেড়ে সরে গেলেন পরিচালক? তার কথায়, “সবকিছু তো একটা বোঝাপড়ার মধ্যে দিয়ে চলে। কিছু সমস্যা হয়েছিল, সেই জন্যই আমি সঙ্গে থাকতে পারলাম না। দেখুন নিজেরও তো একটা গুডউইলের ব্যাপার রয়েছে। আমি যেভাবে কাজটা করতে চাইছিলাম সেই জায়গা থেকে সমস্যা হচ্ছিল।”

পরিচালক আরও বলেছেন, “আমি কারও মনে আঘাত দিতে চাই না। এটা নিয়ে যাই বলা হবে তাতে হতে পারে, প্রযোজক মর্মাহত হবেন কিংবা চ্যানেল খারাপ ভাববে। আমাদের সবাইকে তো এই পেশাতেই থাকতে হবে। হয়তো আমিই নিজের কাজ দিয়ে প্রযোজক এবং চ্যানেলকে সন্তুষ্ট করতে পারছিলাম না।” অয়ন সেনগুপ্তের কথায় কৃষ একান্ত ব্যক্তিগত কারণে সিরিয়াল থেকে সরে দাঁড়িয়েছিলেন। তিনিও তার ব্যক্তিগত কারণ থেকেই সরে যাচ্ছেন।