ভারতের নাগরিকই নন, অথচ দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন বলিউডে, রইল ১৩ সুপারস্টারের নাম তালিকা

বলিউড (Bollywood) তারকারা গোটা বিশ্বে ভারতীয় সিনেমার নাম উজ্জ্বল করছেন। তবে জানেন কি এদের মধ্যে বেশিরভাগই কিন্তু ভারতের নাগরিক নন? এদের প্রত্যেকেই আলাদা দেশের নাগরিকত্ব ধারণ করেন। অথচ তারা ভারতেই রয়েছেন এবং এখানকার সিনেমাতে অভিনয় করেন। এই তালিকায় এমন এমন কিছু সুপারস্টারের নাম রয়েছে যাদের ভারতীয় বলে এতদিন ভুল জেনে এসেছেন আপনি। এক নজরে দেখে নিন তালিকাটি।

হেলেন (Helen) : ৭০-৮০ এর দশকে বলিউডে দাপিয়ে কাজ করেছেন হেলেন। তিনি ছিলেন বলিউডের সুন্দরী আইটেম গার্ল। তিনি একজন বার্মিজ বংশোদ্ভূত মহিলা। তার বাবা ছিলেন অ্যাংলো ইন্ডিয়ান এবং মা ছিলেন বার্মিজ। হিন্দি ছবির দুনিয়াতে প্রথম বিদেশী অভিনেত্রী ছিলেন হেলেন। বলিউডে আইকনিক নাচের প্রচলন তিনিই শুরু করেন।

দীপিকা পাড়ুকোন (Deepika Padukone) : বলিউডের মাস্তানিও যে ভারতীয় নন, সে কথা আপনার জানা ছিল কি? এই মুহূর্তে বলিউডের টপ নায়িকা তিনি। অসাধারণ অভিনেত্রী, চমৎকার নৃত্যশিল্পী ও সেই সঙ্গে অসাধারণ সৌন্দর্যের অধিকারীণী দীপিকা ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড় প্রকাশ পাড়ুকোনের মেয়ে। তার জন্ম হয়েছিল ডেনমার্কে। তার কাছে রয়েছে ডেনিশ নাগরিকত্ব। তবে তিনি বড় হয়েছেন বেঙ্গালুরুতে।

অক্ষয় কুমার (Akshay Kumar) : বলিউডের খিলাড়ি কুমার জন্ম নিয়েছিলেন পাঞ্জাবের অমৃতসর শহরে। তার বাবা-মা সকলেই এদেশীয়। তিনি নিজেও বেড়ে উঠেছেন দিল্লিতে। তবে তার কাছে রয়েছে কানাডিয়ান পাসপোর্ট। ‘সম্মানসূচক কানাডিয়ান নাগরিকত্ব’ পেয়ে ভারতের নাগরিকত্ব ছেড়ে দেন অক্ষয়।

আলিয়া ভাট (Alia Bhatt) : মহেশ ভাটের কন্যা আলিয়াও কিন্তু এদেশীয় নাগরিক নন। কাগজে কলমে ব্রিটিশ নাগরিক তিনি। তার মা সোনি রাজদান ব্রিটেনের নাগরিক। আলিয়ার জন্ম হয়েছিল লন্ডনে। তিনি বলিউডের প্রতিষ্ঠিত অভিনেত্রী হতে পারেন, তবে ব্রিটেনের নাগরিকত্ব ধারণ করেন।

ক্যাটরিনা কাইফ (Katrina Kaif) : ক্যাটরিনা কাইফদের বিদেশী সুন্দরী সে কথা সকলেই জানেন। তার বাবা ছিলেন কাশ্মীরি। ক্যাটরিনার জন্ম হয়েছিল হংকংয়ে। তার কাছে ব্রিটিশ নাগরিকত্ব রয়েছে। কারণ তার মা ছিলেন ব্রিটিশ নাগরিক। ক্যাটরিনা ১৫ বছরের ওয়ার্কিং ভিসায় এই দেশে বসবাস করছেন।

ইমরান খান (Emran Khan) : ইমরান খান হলেন আমির খানের ভাগ্নে। তিনি মার্কিন নাগরিকত্ব ধারণ করছেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উইসকনসিনের ম্যাডিসনে তার জন্ম হয়েছিল। বাবা মায়ের বিচ্ছেদের পর তিনি মায়ের সঙ্গে মুম্বাইতে চলে আসেন।

জ্যাকলিন ফার্নান্ডেজ (Jacqueline Fernandes) : এই শ্রীলঙ্কান সুন্দরী শ্রীলঙ্কা থেকে এসেছেন বলিউডে। স্বভাবতই তার কাছে রয়েছে শ্রীলঙ্কার নাগরিকত্ব। তিনি এখনও ভারতীয় নাগরিকত্ব পাননি। তার জন্ম হয়েছিল বাহারাইনে। ২০০৬ সালে তিনি মিস ইউনিভার্স শ্রীলঙ্কা সুন্দরী প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হন।

কল্কি কোয়েচলিন (Kalki Koechlin) : ইনিও বলিউডের বেশ ভালোই খ্যাতি পেয়েছেন। তার জন্ম হয়েছিল ভারতের পন্ডিচেরিতে। তার বাবা এবং মা দুজনেই ফ্রান্সের নাগরিক। সেই সূত্রে কল্কিও ভারতের নাগরিক নন।

ফাওয়াদ খান (Fawad Khan) : ফাওয়াদ খান ২০১৪ সালে বলিউডে ডেবিউ করেন। এই হ্যান্ডসাম অভিনেতা খুব কম সময়ের মধ্যেই হয়ে উঠেছিলেন বলিউডের হার্টথ্রব। তবে তিনি হলেন পাকিস্তানের নাগরিক। এই দেশে বিক্ষোভের মুখে পড়ে তিনি পাকিস্তানে ফিরে গিয়েছেন।

সানি লিওনি (Sunny Leone) : এই প্রাক্তন পর্ন তারকা এখন বলিউডে অভিনয় করছেন। তিনি তার স্বামী ড্যানিয়েল ওয়েবার ও তিন সন্তানকে নিয়ে থাকেন এই দেশে। কানাডিয়ান ও আমেরিকান নাগরিকত্ব ধারণ করছেন তিনি। তিনি একজন বিদেশী নাগরিক। তার আসল নাম হল করণজিৎ কৌর।

আলি জাফর (Ali Zafar) : সদা হাসি মাখা মুখ আর শান্ত শিষ্ট স্বভাবের কারণে এই দেশে অনেক ফ্যানবেস তৈরি হয়ে গিয়েছিল এই অভিনেতার। তিনি হলেন পাকিস্তানী বংশোদ্ভূত অভিনেতা এবং গায়ক। বলিউডে একসময় বেশ কিছু ছবিতে তিনি অভিনয় করেন। ফাওয়াদ খানের সঙ্গে সঙ্গে তাকেও ফিরে যেতে হয়েছে পাকিস্তানে।

নার্গিস ফাকরি (Nargis Fakhri) : নার্গিস ফাকরি বিদেশি নাগরিকত্ব ধারণ করেন। তার বাবা হলেন পাকিস্তানি এবং মা হলেন সেজ। তিনি একজন আমেরিকান মডেল এবং আমেরিকান নাগরিকত্ব ধারণ করেন।

ইভলিন শর্মা (Evelyn Sharma) : ‘ইয়ে জওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি’ ছবিতে রণবীর কাপুর ও দীপিকা পাড়ুকোনের পাশাপাশি নজর কেড়েছিলেন ইভলিনও। ইনি একজন জার্মান মডেল। তার বাবা ছিলেন পাঞ্জাবী এবং মা ছিলেন জার্মান।