এক কাপ চা খেলেই মিলবে আইফোন! গল্প নয়, সত্যি! জেনে নিন কীভাবে

সকালে উঠে চায়ে চুমুক না দেওয়া পর্যন্ত আমাদের একপ্রকার তৃপ্তি আসে না। কর্মব্যস্ত দিনে বা কাজের ফাঁকে চায়ের চুমুক একদিকে যেমন শরীরে নিয়ে আসে কাজের স্ফূর্তি, তেমনি অল্প কর্মবিরতি আমাদের মনকে বা শরীরকে শক্তিতে ভরপুর করে তোলে। চা উত্তেজক তরল পানীয় এবং তা শরীরে উত্তেজনা এবং স্নায়ু স্পন্দন ঠিক রাখতে সাহায্য করে। অতিরিক্ত চা বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করে এটাও আমরা জানি। অনেক খাদ্য বিশেষজ্ঞদের মতে সারা দিনে দু কাপ চা শরীরের পক্ষে যথেষ্ট আর এর থেকে বেশি চা খেতে হলে তবে খেতে হবে লিকার চা। কিন্তু কে কার কথা শোনে ?গ্রাম বাংলা থেকে শুরু করে শহুরে সংস্কৃতিতে চা পানে তার কোন রূপ উৎসাহের কমতি দেখা যায় না আর এই চা পান করে যদি পাওয়া যায় আইফোনের মতো একটি মোবাইল ফোন তাহলে তো কোন কথাই নেই।তাই তো?

 এক কাপ চা খেলেই মিলবে আইফোন! গল্প নয়, সত্যি! জেনে নিন কীভাবে

এমনই এক অভিনব ব্যবসায়িক কৌশল প্রয়োগ করেছেন এক চা বিক্রেতা। এর ফলে একদিকে যেমন দেদার তার চায়ের খদ্দের বেড়ে গিয়েছে রাতারাতি তেমনই যারা যারা এই চা খেয়েছেন তারা প্রত্যেকেই এখন আইফোন পাওয়ার স্বপ্নে মশগুল। মধ্য কলকাতার রায়েড স্ট্রিটে দীর্ঘদিন ধরে চায়ের দোকান চালান মোহাম্মদ ইয়াসিন। আর তাই নানারকম ব্যবসায়িক পদ্ধতি অবলম্বন করে থাকেন চায়ের বিক্রি বাড়ানোর জন্য। এমনিতে তার দোকানে চায়ের  মূল্য সাধারণের ধরাছোঁয়ার মধ্যেই। মাত্র ৫ টাকাতেই দুধ চা এবং ৪ টাকাতেই লিকার চা।

 এক কাপ চা খেলেই মিলবে আইফোন! গল্প নয়, সত্যি! জেনে নিন কীভাবে

কিন্তু তবুও সেইভাবে ব্যবসায়িক সফলতা আসে নি। বর্তমানে খুচরো ব্যবসায় যে পায়ের তলার মাটি ধরে রাখতে তার সঙ্গে জনপ্রিয়তা অর্জন করতে প্রত্যেক ব্যবসায়ীকে নিতে হয় কর্পোরেট ধাঁচের বুদ্ধি। আর তাই ইয়াসিন ভাই বের করেছে এই অভিনব বুদ্ধি। তিনি এক পোষ্টার দিয়ে ঘোষণা করেছেন যারা যারা তার দোকানে চা খাবেন তারা প্রত্যেকেই পাবেন একটি লাকি কুপন এবং  পরবর্তী সময়ে একটা নির্দিষ্ট দিনে লাকি ড্রয়ের মাধ্যমে সেই কুপনগুলি থেকে ভাগ্যবান বিজেতা জিতে নিতে পারবেন একটি আইফোন সিক্স।

Loading...

ইয়াসিন ভাইয়ের চায়ের দোকানে নানা স্বাদের চা পাওয়া যায়। তাই তার চায়ের দোকানে যে চায়ের খদ্দের হয় না খুব একটা বেশি তা কিন্তু নয়। তিনি গ্রাহকদের প্রয়োজনে বানিয়ে দিতে পারেন আদা চা, এলাচ চা, আবার কখনও তেজপাতা চা। তবে ব্যবসায়িক ক্ষেত্রে চূড়ান্ত সফলতা অর্জন করার জন্যই তিনি এমন পরিকল্পনা নিয়েছেন।

ইয়াসিন ভাইয়ের দোকানে চা খেলে একটি লাকি টোকেন পাবেন।তাতে লিখতে হবে আপনাকে নিজের নাম এবং মোবাইল নাম্বার যে নাম্বারে আপনাকে যোগাযোগ করা যাবে।তারপর তা লিখতে দোকানে রাখা এক বিশেষ বাক্সে ফেলে দিতে হবে।পয়লা ডিসেম্বর লাকি ড্রয়ের মাধ্যমে বেছে নেওয়া হবে ভাগ্যবান আই ফোন সিক্সের বিজেতাকে।

আরও পড়ুন : পকোড়া বিক্রি করে কোটিপতি! আয়কর দিলেন ৬০ লক্ষ টাকা

ইয়াসিন ভাইয়ের নিজের কথায়,”আমার এই অভিনব  পদ্ধতির কথা লোকমুখে চারিদিকে ছড়িয়ে যাওয়ার পর থেকেই আমার দোকানের চায়ের বিক্রি অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে।এই লটারির কথা প্রকাশিত হওয়ার পর থেকে এখনও পর্যন্ত আমার দোকানে প্রায় ২৫,০০০এর মতো লোক চা খেয়েছে।আর তাই বর্তমানে একপ্রকার দোকান সামলানোই মুশকিল হয়ে পড়েছে।

আরও পড়ুন : গুগলের লোভনীয় চাকরি ছেড়ে শুধু শিঙাড়া বেচেই লাখপতি

শুধু মধ্য কলকাতা থেকেই নয়,কলকাতার বিভিন্ন প্রান্ত থেকেই উৎসাহী লোক আমার দোকানে চা খেতে আসছে। বর্তমানে আমাকে প্রায় ১৩০ কেজি দুধ সংগ্রহ করে রাখতে হয় শুধুমাত্র চায়ের জন্য ।আসলে প্রত্যেক মানুষের বিশেষ করে বর্তমান প্রজন্মের একটা সুপ্ত বাসনা থাকে যে তাদের হাতেও যেন থাকে আই ফোন আর তাই চা পানের সঙ্গে যদি বাড়তি পাওনা হিসেবে হাতে আইফোন জুটে যায় তাহলে সে তো হবে সোনায় সোহাগা।”

তাহলে আর অপেক্ষা কিসের?  দিয়ে আসুন এক কাপ চা এ চুমুক, আর হাতে আইফোন সিক্স পাওয়ার স্বপ্ন দেখুন প্রতিদিন আগামী পয়লা ডিসেম্বর পর্যন্ত।

Loading...