জলের তলায় মন্দির, রয়েছে অভয়ারণ্যও! নামমাত্র খরচে ঘুরে আসুন পরিযায়ী পাখিদের গ্রাম থেকে

কলকাতার কাছেই বার্ড ভিলেজ, রয়েছে অভয়ারণ্য! ঘুরে আসুন পরিযায়ী পাখিদের গ্রাম থেকে

Tour Plan : শুধুমাত্র সমুদ্র সৈকত নয়, জগন্নাথ মন্দিরের জন্য বিখ্যাত উড়িষ্যার পুরী। শুধুমাত্র বাঙালি নয়, সারা ভারতবর্ষের মানুষের কাছেই পুরীর জগন্নাথ মন্দিরের মাহাত্ম্য আলাদাই। তবে পুরী ছাড়াও উড়িষ্যায় (Odisha) এমন অনেক সুন্দর জায়গা রয়েছে, যেগুলি সম্পর্কে হয়তো আপনারা অবগত নন। আজ উড়িষ্যার তেমনই একটি অজানা লোকেশনের কথা বলা হবে এই প্রতিবেদনে।

বার্ড ভিলেজ

উড়িষ্যার পর্যটন স্থানগুলির মধ্যে অন্যতম হল গোবিন্দপুর (Govindpur)। এই স্থানটিকে বার্ড ভিলেজও বলা হয়। প্রতিবছর শীতকালে এই স্থানে অসংখ্য পরিযায়ী পাখিদের সমাগম হয়। এই গ্রামে থাকা একটি বিশাল বড় হ্রদের ধারে বাসা বেঁধে থাকে এই পাখিরা। শুধুমাত্র হ্রদের ধারে নয়, আশে পাশে থাকা প্রচুর গাছপালাতেও বাসা বেঁধে থাকে পরিযায়ী পাখিরা।

BIRD VILLAGE

গোবিন্দপুর গ্রাম – পরিযায়ী পাখিদের অন্যতম ঠিকানা

গোবিন্দপুরে প্রায় ৭৮৬ স্কোয়ার কিলোমিটার এলাকা জুড়ে থাকে পরিযায়ী পাখিদের বাসস্থান। প্রতিবছর ১০০ রকম পরিযায়ী পাখি এখানে এসে বাসা বাঁধে। প্রায় ২ লক্ষ পরিযায়ী পাখি দেখা যায় এই এলাকায়। তবে সারা বছর নয়, শুধু শীতকালে এই গ্রামে এলে আপনারা দেখতে পাবেন বিভিন্ন রকম পরিযায়ী পাখিদের মেলা।

রয়েছে হিরাকুদ অভয়ারণ্য

এই গ্রামেই রয়েছে হিরাকুদ অভয়ারণ্য। বনদপ্তরের কর্মীরা গ্রামবাসীদের সঙ্গে মিলিত হয়ে এই গ্রামটিকে পাখিদের বসবাসের সুযোগ্য গড়ে তোলার চেষ্টা করছেন। এই গ্রামে এলে বিভিন্ন পরিযায়ী পাখিদের ছবিও নিতে পারেন আপনি। আপনি যদি পাখিদের ছবি তুলতে ভালোবাসেন, তাহলে আপনাকে অবশ্যই আসতে হবে এই গ্রামে।

BIRD VILLAGE

সুন্দর সাজানো গ্রাম

তবে শুধু এই গ্রামে পাখিরা এসে বাসা বাঁধে তা নয়, এই গ্রামের প্রত্যেকটি বাড়ির দেওয়ালে আপনারা দেখতে পাবেন পরিযায়ী পাখিদের ছবি এবং নাম। গ্রামের বাসিন্দারা নিজেদের বাড়ির দেওয়ালে এই ছবিগুলি এঁকে রাখেন, যার ফলে এই গ্রামে একটি সুন্দর পরিবেশ তৈরি হয়। প্রাকৃতিক উপায়ে এই ছবিগুলি আঁকা হয়ে থাকে।

আরও পড়ুন : ১২০০ টাকাতেই কমপ্লিট! ঘুরে আসুন বাংলার এই ‘মিনি নায়গ্রা’ থেকে

GOVINDAPUR VILLAGE

আরও পড়ুন : লন্ডন-প্যারিসও ফেল! নামমাত্র বাজেটে ঘুরে আসুন এই ৫ দেশি লোকেশন থেকে

হ্রদের নিচে লুকিয়ে জগন্নাথ দেবের মন্দির

যে হ্রদের ধারে পরিযায়ী পাখিরা বাসা বাঁধে সেই হ্রদের মধ্যেই রয়েছে একটি জগন্নাথ দেবের মন্দির। তবে বছরের বেশিরভাগ সময় এই মন্দিরটি জলের নিচেই থাকে। মন্দিরটির চূড়া কেবলমাত্র দেখা যায় জলের ওপরে। হ্রদের ঠিক মাঝখানে যেতে গেলে আপনাকে নৌকা করে যেতে হবে। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত এই নৌকা চলে এই হ্রদে। তবে এই স্থানে আসার সব থেকে সঠিক সময় হল শীতকাল। অন্য সময় গেলে পরিযায়ী পাখিদের দর্শন পাবেন না আপনি।