প্যান্টের ভিতর ঢুকে গেল বিষধর সাপ, ৭ ঘণ্টা ধরে মরণ-বাঁচন লড়াই

বর্ষাকালে সাপ জঙ্গল থেকে বেরিয়ে লোকালয়ে ঢুকবে এটা বর্ষাকালের পরিচিত দৃশ্য। মাঝেমধ্যে বিষধর সাপের কামড়ের ঘটবে প্রাণহানি। কিন্তু উত্তর প্রদেশের মির্জাপুরে এক যুবকের সঙ্গে একটি বিষাক্ত সাপ যা করলো তাতে চোখ কপালে উঠবে আপনার।

উত্তর প্রদেশের জামালপুর থানা এলাকায় সিকান্দারপুর গ্রামে বিদ্যুতের খুঁটি লাগাতে গিয়ে তিক্ত অভিজ্ঞতার সম্মুখীন এক যুবক। রাতে সমস্ত শ্রমিক রান্না শেষে খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পড়েছিল। এই ঘুমানোর সময়েই লবলেশ কুমার নামে এক শ্রমিকের জামার মধ্যে এদিয়ে একটি বিষাক্ত সাপ ঢুকে জিন্সের প্যান্টের ভেতরে চলে যায়।

তারপর শুরু হয় জীবন-মৃত্যুর টানাটানি। প্যান্টের ভেতর থেকে সাপ নিজের থেকে বেরোচ্ছে না আবার সাপটিকে প্যান্ট থেকে বের করার জন্য যুবকটিও কিছু করতে পারছেন না। এরপর কি করবে বুঝতে না পেরে প্যান্ট অর্ধেক খুলে ধাম ধরে ঠায় দাঁড়িয়ে থাকে সেই যুবক। সারারাত, টানা ৭ ঘন্টা।

তার পর ভোরবেলা এক সাপুড়েকে খবর দিয়ে আনা হয়। তিনি এসে খুব সাবধানে ও কায়দা করে সাপটিকে প্যান্ট থেকে বের করেন।  হাঁফ ছেড়ে বাঁচেন লাভকেশ। এই ঘটনার ভিডিয়ো ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

অলৌকিক ভাবে সাপের কামড় থেকে বেঁচে ফিরলেন ওই ব্যাক্তি। ঘটনার মসয় অবশ্য শুধু সাপুড়ে নয়, ঘটনাস্থলে পৌঁছে গিয়েছিল পুলিশও। তৈরি ছিলেন চিকিৎসক, তৈরি ছিল অ্যাম্বুলেন্স। যদি কোনও কারণে বিপদ ঘটে, তাহলে যেন সঙ্গে সঙ্গে চিকিৎসা করা যায়। কিন্তু অসীম ধৈর্য নিয়ে কী করে টানা সাতঘণ্টা দাঁড়িয়ে রইলেন ওই মানুষটি, এটাই এখন সবাইকে অবাক করে দিচ্ছে।

বিশ্বে সাপ নানান প্রজাতির হয়ে থাকলেও বিষধর সাপ হাতেগোনা কয়েক প্রজাতির রয়েছে। আর এই হাতেগোনা বিষধর সাপগুলির মধ্যে গোখরো বিষধর প্রজাতির। এই গোখরো সাপ দেখলেই আমরা ভীতসন্ত্রস্ত হয়ে পড়ি, আর এই সাপই যদি প্যান্টের ভিতরে ঢুকে পড়ে তাহলে কি পরিস্থিতি হবে তা তো বুঝতেই পারছেন!